১০ হাজার রান করার পর এখন দ্রুত বিরাট ভেঙে দেবেন শচীনের সবচেয়ে বেশি ম্যান অফ দ্য ম্যাচ আর সিরিজ হওয়ার বিশ্বরেকর্ড

ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ওয়ানডে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন। এই ম্যাচে বিরাট কোহলি সিরিজে লাগাতার দ্বিতীয় সেঞ্চুরি করেছেন। ওয়ানডে ক্রিকেটে এটা বিরাট কোহলি ৩৭তম সেঞ্চুরি ছিল। এর সঙ্গেই বিরাট কোহলি ওয়ানডেতে সবচেয়ে দ্রুত ১০ হাজার রান করা খেলোয়াড়ও হয়েছেন। বিরাট কোহলি নিজের ২০৫টি ইনিংসে এই মাইলস্টোন স্পর্শ করেছেন। অন্যদিকে শচীন তেন্ডুলকর ২৫৯ ইনিংসে এই কৃতিত্ব করেছিলেন।
১০ হাজার রান করার পর এখন দ্রুত বিরাট ভেঙে দেবেন শচীনের সবচেয়ে বেশি ম্যান অফ দ্য ম্যাচ আর সিরিজ হওয়ার বিশ্বরেকর্ড 1
এই রেকর্ডের উপর এখন রয়েছে বিরাটের নজর

এখন টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক বিরাট কোহলির নজর শচীন তেন্ডুলকরের আরও একটি রেকর্ডের দিকে থাকবে। সবচেয়ে বেশি ম্যান অফ দ্য ম্যাচ আর ম্যান অফ দ্য সিরিজ জেতার রেকর্ড। এখনও পর্যন্ত শচীন ৯৫ বার এই কৃতিত্ব করে দেখিয়েছেন।

সবচেয়ে বেশি ম্যান অফ দ্য ম্যাচ আর সিরিজ জেতা খেলোয়াড়

৯৫ — শচীন তেন্ডুলকর
৭১ — সনৎ জয়সূর্য, জ্যাক কালিস
৬০ — বিরাট কোহলি*
৫৯ — কুমার সাঙ্গাকারা
৫৯ — রিকি পন্টিং

প্রসঙ্গত বিরাটকে ছাড়া বাকি সকলেই ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে ফেলেছেন। ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচ টাই হয়ে গিয়েছে।
১০ হাজার রান করার পর এখন দ্রুত বিরাট ভেঙে দেবেন শচীনের সবচেয়ে বেশি ম্যান অফ দ্য ম্যাচ আর সিরিজ হওয়ার বিশ্বরেকর্ড 2
ভারত কোহলির ইনিংস (অপরাজিত ১৫৭ রান) এর সৌজন্যে ছয় উইকেট হারিয়ে ৩২১ রান তোলে। ওয়েস্টইন্ডিজের শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১৪ রান আর এরপর শেষ বলে পাঁচ রানের দরকার ছিল। শাই হোপ (অপরাজিত ১২৩) উমেশ যাদবকে চার মেরে স্কোর সমান সমান করে দিয়েছেন।
তিনি ম্যাচের পর বলেন,

“ আমার এই ইনিংস আর ১০,০০০ রানের কৃতিত্ব ছোঁয়া নিয়ে গর্ব হয়েছে। এটা এমন কিছু ছিল যার ব্যাপারে আমি ম্যাচের আগেই ভেবে রেখেছিলাম।এই পিচে যে কেউই প্রথমে ব্যাটিং করতে চাইবে কারণ এখানে আবহাওয়া গরম ছিল আর পরে আপনাকে রান বাঁচাতে হত”।

১০ হাজার রান করার পর এখন দ্রুত বিরাট ভেঙে দেবেন শচীনের সবচেয়ে বেশি ম্যান অফ দ্য ম্যাচ আর সিরিজ হওয়ার বিশ্বরেকর্ড 3

“সবার আগে, আমি এটা বলতে চাই যে এটা একটা দারুন ভালো ম্যাচ ছিল। ওয়েস্টইন্ডিজের এর কৃতিত্ব পাওয়া উচিত, যারা ভালো ক্রিকেট খেলেছে, বিশেষ করে দ্বিতীয় ইনিংসে পর যখন ওদের দ্রুত তিন উইকেট পড়ে যায় আর তারপর শিমরণ হেটমেয়ার (৯৪) তথা হোপ ম্যাচ তৈরি করে দেয়”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *