ক্রিকেটের প্রত্যেকটি দলের একটি রেকর্ড, যা আজ পর্যন্ত রয়েছে অটুট

ক্রিকেটের ১৪৩ বছরের ইতহাসে বেশকিছু দুর্দান্ত রেকর্ড তৈরি হয়েছে আর ভেঙেওছে। কিন্তু বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসে দলগুলির দ্বারা ১০টি এমন রেকর্ড তোইরি হয়েছিল যা ক্রিকেট ইতিহাসে এখনো পর্যন্ত অটুট রয়েছে। আজ আমরা আপনাদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ইতিহাসের সেই ১০টি রেকর্ডের ব্যাপারেই জানাব যার ভাঙা অসম্ভব দেখাচ্ছে।

ভারতের রোহিত শর্মার নামে ওয়ানডে ক্রিকেটে মোট তিনটি ডবল সেঞ্চুরি

ক্রিকেটের প্রত্যেকটি দলের একটি রেকর্ড, যা আজ পর্যন্ত রয়েছে অটুট 1

ভারতীয় দলের তারকা ওপেনিং ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা ওয়ানডে ক্রিকেটে মোট তিনটি ডবল সেঞ্চুরি করেছেন। তিনি প্রথম ডবল সেঞ্চুরি ২০৯ রানের করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে। অন্যদিকে নিজের দ্বিতীয় ডবল সেঞ্চুরি তিনি শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ইডেন গার্ডেন্সে ২৬৪ রানের করেছিলেন। রোহিত শর্মা নিজের তৃতীয় ডবল সেঞ্চুরিও শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধেই করেছিলেন। ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮য় মোহালির মাঠে এই ভারতীয় তারকা ওপেনিং ব্যাটসম্যান ১৫৩ বলে ২০৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন। তার এই তিনটি ডবল সেঞ্চুরির রেকর্ড ভাঙাও প্রায় অসম্ভবই মনে হয়।

ইংল্যাণ্ডের দলের নামে ওয়ানডে ক্রিকেটের সবচেয়ে বড়ো স্কোর

ক্রিকেটের প্রত্যেকটি দলের একটি রেকর্ড, যা আজ পর্যন্ত রয়েছে অটুট 2

ইংল্যান্ডের দলের নামে ওয়ানডে ক্রিকেটের সবচেয়ে বড়ো স্কোর করার রেকর্ড রয়েছে। ইংল্যান্ডের দল ১৯ জুলাই ২০১৮য় ইতিহাস গড়ে ওয়ানডে ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে বড়ো ৪৮১ রানের স্কোর করেছিল। ইংল্যান্ডের এই কৃতিত্বে সকলেই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন। ইংল্যান্ডের দল নিজেদেরই সবচেয়ে বড়ো রানের রেকর্ড ভেঙেছিল। এর আগেও ওয়ানডে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে বড়ো স্কোর ইংল্যান্ডের দলের নামেই ছিল। ইংল্যান্ডের দল এর আগে ২০১৬য় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ন্যাটিংহ্যামের মাঠে ৪৪৪ রানের বড়ো স্কোর করেছিল। এই ম্যাচে ইংল্যান্ডের হয়ে ওপেনার জেসন রয় ৬১ বলে যেখানে ৮২ রান করেছিলেন, অন্যদিকে আরেক ওপেনার জনি বেয়রস্টো ৯২ বলে ১৩৯ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেছিলেন। অ্যালেক্স হেলসও নিজের দলের হয়ে ৯২ বলে ১৪৭ রানের ইনিংস খেলেন। অন্যদিকে ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ইয়োন মর্গ্যান ৩০ বলে ৬৭ রানের ইনিংস খেলেছিলেন।

ওয়েস্টইন্ডিজের ব্রায়ান লারার নামে টেস্টে সবচেয়ে বড়ো ইনিংস খেলার রেকর্ড

ক্রিকেটের প্রত্যেকটি দলের একটি রেকর্ড, যা আজ পর্যন্ত রয়েছে অটুট 3

ওয়েস্টইন্ডিজ দলের প্রাক্তন অধিনায়ক ব্রায়ান লারা টেস্ট ক্রিকেটে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি অপরাজিত ৪০০ রান করেছেন। এই রেকর্ড তিনি ১০ এপ্রিল ২০০৪ এ ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে করেছিলেন। এই রেকর্ড ভাঙাও কোনো খেলোয়াড়ের জন্য মুশকিল। ৪০০ রানের নিজের এই দুর্দান্ত ইনিংসে ব্রায়ান লারা মোট ৫৮২টি বলের মুখোমুখি হয়েছিলেন আর তিনি নিজের এই ম্যারাথন ইনিংসে মোট ৪৩টি বাউন্ডারি আর ৪টি ছক্কা মেরেছিলেন। আপনাদের জানিয়ে দিই যে ব্রায়ান লারা নিজের টেস্ট আর ওয়ানডে আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে ১০ হাজারেরও বেশি রান করেছেন। লারা যেখানে ১৩১টি টেস্ট ম্যাচে ৫২.৮৮ গড়ে ১১৯৫৩ রান করেছেন, অন্যদিকে ২৯৯টি ওয়ানডে ম্যাচে তিনি ৪০.৪৮ গড়ে ১০৪০৫ রান করেছেন। ব্রায়ান লারার নামে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৪০০ রানের অপরাজিত সর্বোচ্চ ইনিংস খেলার রেকর্ডও রয়েছে।

অস্ট্রেলিয়া জিতেছে সবচেয়ে বেশি ৫টি বিশ্বকাপ

ক্রিকেটের প্রত্যেকটি দলের একটি রেকর্ড, যা আজ পর্যন্ত রয়েছে অটুট 4

অস্ট্রেলিয়া দলের ওয়ানডের ইতিহাস যথেষ্ট সোনালী থেকেছে। তারা বিশ্বের একমাত্র দল যারা ওয়ানডে বিশ্বকাপের খেতাব মোট ৫বার জিতেছে। ১৯৮৭ সালে অ্যালান বর্ডারের নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়া প্রথমবার বিশ্বকাপ নিজেদের নামে করে। এরপর ১৯৯৯তে ইংল্যান্ডে হওয়া বিশ্বকাপও অস্ট্রেলিয়াই জেতে। দক্ষিণ আফ্রিকায় হওয়া ২০০৩ সালের বিশ্বকাপও অস্ট্রেলিয়া জিততে সফল হয়। ওয়েস্টইন্ডিজে হওয়া ২০০৭ এর বিশ্বকাপও জেতে অস্ট্রেলিয়া। ২০১৫য় অস্ট্রেলিয়ার দল নিজেদের দেশের মাটিতেও বিশ্বকাপ জিতেছিল আর এইভাবে অস্ট্রেলিয়ার দল মোট ৫ বার বিশ্বকাপের খেতাব জিততে সফল হয়েছিল।

শ্রীলঙ্কার সাঙ্গাকারা-জয়বর্ধনে করেছিলেন ৬২৪ রানের পার্টনারশিপ

ক্রিকেটের প্রত্যেকটি দলের একটি রেকর্ড, যা আজ পর্যন্ত রয়েছে অটুট 5

২৭ জুলাই ২০০৬ এ দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে শ্রীলঙ্কার দুই মহান ব্যাটসম্যান কুমার সাঙ্গাকারা আর মাহেলা জয়বর্ধনে টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে বড়ো পার্টনারশিপ গড়েছিলেন। সাঙ্গাকারা-জয়বর্ধনে তিনদিন পর্যন্ত ব্যাটিং করে তৃতীয় উইকেটের হয়ে ৬২৪ রান যোগ করেছিলেন। কুমার সাঙ্গাকারা ২৮৭ আর ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ মাহেলা জয়বর্ধনে ৩৭৪ রান করেছিলেন। জানিয়ে দিই যে এই ব্যাটসম্যানের জুটি ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বশ্রেষ্ঠ জুটিগুলির একটি। এই দুজি খেলোয়াড়ই নিজেদের কেরিয়ারে নিজেদের মধ্যে বেশকিছু ভালো পার্টনারশিপ গড়েছিলেন।

নিউজিল্যান্ডের ব্রেন্ডন ম্যাকুলামের নামে টেস্টে সবচেয়ে বেশি ছক্কার রেকর্ড

ক্রিকেটের প্রত্যেকটি দলের একটি রেকর্ড, যা আজ পর্যন্ত রয়েছে অটুট 6

নিউজিল্যান্ডের বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান এবং প্রাক্তন অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাকুলাম টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ছক্কা মারার বিষয়ে এক নম্বরে রয়েছেন। ব্রেন্ডন ম্যাকুলাম নিজের খেলা ১০১টি টেস্ট ম্যাচের ১৭৬টি ইনিংসে ১০৭টি ছক্কা মেরেছেন। তার চেয়ে বেশি ছক্কা টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে আর কোনো ব্যাটসম্যান মারেননি। টেস্ট ক্রিকেটে ব্যাটসম্যান খুব বেশি আক্রামণাত্মক শট খেলেন না আর ছক্কা মারার বেশি বিশ্বাস করেন না। কিন্তু ব্রেন্ডন ম্যাকুলামের ভাবনা বাকি ব্যাটসম্যানদের চেয়ে আলাদা ছিল, এই কারণে তিনি টেস্ট ক্রিকেটেও মোট ১০৭টি ছক্কা মেরেছেন। বর্তমানে আর কোনো ব্যাটসম্যানকে তার এই রেকর্ডের কাছাকাছিও দেখা যাচ্ছে না, এই কারণে তার এই রেকর্ড ভাঙাও ভীষণই মুশকিল মনে হচ্ছে।

পাকিস্তানের নামে সবচেয়ে বেশি টি-২০ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার রেকর্ড

ক্রিকেটের প্রত্যেকটি দলের একটি রেকর্ড, যা আজ পর্যন্ত রয়েছে অটুট 7

পাকিস্তান দলের নামে সবচেয়ে বেশি টি-২০ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার রেকর্ড রয়েছে। পাকিস্তান দল এখনো পর্যন্ত ১৫১টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছে। নিজেদের খেলা ১৫১টি ম্যাচের মধ্যে পাকিস্তান ৯২টি ম্যাচ জিতেছে আর ৫৫টি ম্যাচ হেরেছে। ৩টি টি-২০ আন্তর্জাতিক ম্যাচ পাকিস্তানের টাই থেকেছে আর একটি ম্যাচ ফলাফলহীন থেকেছে। পাকিস্তানের টি-২০তে জয়ের শতাংশ ৬০.৩৩। পাকিস্তান দলের চেয়ে বেশি টি-২০ ম্যাচ বিশ্বের আর কোনো দল খেলেনি। পাকিস্তান দল ২০০৯ এ টি-২০ বিশ্বকাপও নিজেদের নামে করেছিল।

দক্ষিণ আফ্রিকার ডেভিলিয়র্সের নামে ওয়ানডেতে ৩১ বলে সবচেয়ে দ্রুত সেঞ্চুরির রেকর্ড

ক্রিকেটের প্রত্যেকটি দলের একটি রেকর্ড, যা আজ পর্যন্ত রয়েছে অটুট 8

দক্ষিণ আফ্রিকার বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান এবি ডেভিলিয়র্স ওয়ানডে ক্রিকেটে ৩১ বলে সবচেয়ে দ্রুত সেঞ্চুরি করেছেন। এই রেকর্ড এবি ডেভিলিয়র্স ১৮ জানুয়ারি ২০১৫য় ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে করেছিলেন। নিজের এই ইনিংসে এবি ডেভিলিয়র্স ৪৪ বলে মোট ১৪৯ রান করেছিলেন। যার মধ্যে তিনি ৯টি বাউন্ডারি আর ১৬টি ছক্কা মারেন, এই রেকর্ডও ভাঙা কারো জন্যই ভীষণই মুশকিল।

Leave a comment

Your email address will not be published.