আইপিএল ২০২০র নিলামের আগে এই ৩ খেলোয়াড়কে দলের বাইরের রাস্তা দেখাতে পারে কেকেআর

আইপিএলের দ্বাদশ সংস্করণ শেষ হয়ে গিয়েছে যার মধ্যে বেশ কিছু খেলোয়াড় তো দুর্দান্ত প্রদর্শন করেছেন তো অন্যদিকে বেশ কিছু খেলোয়াড় ফ্লপ প্রমানিত হয়েছেন। এই মরশুমের প্রদর্শন দেখে পরবর্তী মরশুমে সমস্ত ফ্রেঞ্চাইজিই নিজেদের কিছু খেলোয়াড়কে রিটেন করবে তো কিছু খেলোয়াড়দের রিলিজ করে দেবে। যে খেলোয়াড়রা ভাল প্রদর্শন করেছিলেন তাদের ফ্রেঞ্চাইজি রিটেন করবে অন্যথায় খারাপ প্রদর্শন করা খেলোয়াড়দের দল রিলিজ করে বাইরের রাস্তা দেখিয়ে দেবে। কলকাতা নাইট রাইডার্স নিজেদের খারাপ রানরেটের কারণে আইপিএল ২০১৯এ টপ ৪ এ জায়গা করতে পারেনি। অর্থাৎ কোয়ালিফায়র দলগুলির দৌড়ে পেছিয়ে পড়েছিল। তো আসুন আপনাদের আজ জানিয়ে দিই যে কলকাতা নাইট রাইডার্স আগামী মরশুমে কোন ৩ জন খেলোয়াড়কে রিলিজ করতে পারে।

১. কুলদীপ যাদব

আইপিএল ২০২০র নিলামের আগে এই ৩ খেলোয়াড়কে দলের বাইরের রাস্তা দেখাতে পারে কেকেআর 1

কানপুরে জন্মানো আর বিশ্বকাপ ২০১৯ এ নিজের বোলিংয়ে দুর্দান্ত প্রদর্শন করা এই খেলোয়াড় দ্রুতই ২০২০ আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের অংশ থাকবেন না। কুলদীপ যাদব একজন ভারতীয় ক্রিকেটার যিনি ঘরোয়া ক্রিকেটে ভারতের হয়ে আর উত্তরপ্রদেশের হয়ে এবং আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলেন। তিনি অ্যাকাডেমি স্তরে একজন জোরে বোলার হিসেবে শুরু করেছিলেন, কিন্তু তার কোচ তার শিল্প দেখে তাকে স্পিন বোলার তৈরি করে দেন। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে যদি ভারতীয় দল এই সময় ভাল ফল করছে তো তাতে কুলদীপ যাদব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় রয়েছেন। কুলদীপ যাদব ২০১২য় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স দলের অংশ ছিলেন, কিন্তু সেই মরশুমে তাকে একটিও ম্যাচ খেলার সুযোগ দেওয়া হয়নি। তারপর এই খেলোয়াড় ২০১৪য় কলকাতা নাইট রাইডার্সে যোগ দেন, কিন্তু এখন ২০১৯ আইপিএলকে দেখে এমনটা মনে করা হতে পারে যে কেকেআর তাকে দ্রুতই বের করে দিতে পারে। কারণ গত মরশুমে তিনি নিজেকের সম্পূর্ণভাবে প্রমান করতে পারেননি। গত মরশুমে তিনি ৯টি ম্যাচ খেলেছিলেন যার মধ্যে তিনি ৭১.৫০গড়ে এবং ৮.৬৬ ইকোনমি রেটে মাত্র ৪টি উইকেট নিয়েছিলেন।

২. রবিন উথাপ্পা

আইপিএল ২০২০র নিলামের আগে এই ৩ খেলোয়াড়কে দলের বাইরের রাস্তা দেখাতে পারে কেকেআর 2

এই দুর্দান্ত খেলোয়াড়ের জন্ম ১১ নভেম্বর হয়েছিল, তিনি ঘরোয়া ক্রিকেটে কেরল আর আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলেন। উথাপ্পা এপ্রিল ২০০৬ এ ভারতের হয়ে ইংল্যাণ্ড সফরের সপ্তম আর শেষ ম্যাচে নিজের একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক করেন। তিনি সফল শুরু করেন আর ৮৬ রান করে আউট হওয়ার আগে একজন ওপেনার হয়ে যান। সীমিত ওভারের ম্যাচে যা কোনো ভারতীয়র পদার্পণ ম্যাচেই সর্বোচ্চ স্কোর ছিল। তিনি ২০০৭ এর আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপে ভারতকে জয় এনে দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। তিনি গত আইপিএল মরশুমে ১২টি ম্যাচ খেলেছিলেন যার মধ্যে তিনি ৩১. ৩৩ গড়ে ২৮২ রান করেছিলেন আর মাত্র একটিই হাফসেঞ্চুরি করেছিলেন।

৩. কার্লোস ব্রেথওয়েট

আইপিএল ২০২০র নিলামের আগে এই ৩ খেলোয়াড়কে দলের বাইরের রাস্তা দেখাতে পারে কেকেআর 3

কার্লোস ব্রেথওয়েটের জন্ম ১৮ জুলাই ১৯৮৮তে হয়েছিল, তিনি বার্বাডোজের ক্রিকেটার আর বর্তমানে ওয়েস্টইন্ডিজের টি-২০ আন্তর্জাতিক দলের অধিনায়ক। এপ্রিল ২০১৬য় তিনি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের হয়ে শুরু করেন, যেখানে তার দাম ছিল ৪.২ কোটি টাকা। এরপর জানুয়ারি ২০১৮য় নিলামে তিনি সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে যোগদান করেন। ডিসেম্বর ২০১৮য় তাকে ২০১৯ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের জন্য কলকাতা নাইট রাইডার্স কিনেছিল, কিন্তু তার প্রদর্শন দলকে কোনো বিশেষ জয় এনে দিতে পারেনি। বিশ্বকাপেও তার প্রদর্শন বিশেষ কিছুই ছিল না। যদি ২০১৯এর আইপিএল প্রদর্শনের কথা ধরা হয় তো তিনি ২টি ম্যাচ খেলে একটিও উইকেট নিতে পারেননি। আর ব্যাট হাতেও তিনি মাত্র ১১রানই করেন। এই সব কারণেই তাকে দল এবার রিলিজ করে দিতে পারে।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *