৩ তারকা খেলোয়াড় যারা নিজের দেশকে জিতিয়েছেন বহু ম্যাচ, কিন্তু অধিনায়ক হিসেবে হয়েছেন ফ্লপ

যে কোনো খেলাতেই দল অংশ নিলে তাতে অধিনায়কের যথেষ্ট বড়ো ভূমিকা থাকে। বিশ্ব স্তরে পছন্দ করা খেলাগুলির মধ্যে ক্রিকেটও এমনই একটি খেলা যাতে অধিনায়ক নিজের দলের আরও ১০ জন খেলোয়াড়কে নেতৃত্ব দেন। এই অবস্থায় অধিনায়কের দায়িত্ব আরও বেড়ে যায় আর তার নেতৃত্বের প্রভাব দলের উপর পরে। ভারতেই নয় বরং প্রায় প্রত্যেক দলেই দেখা যায় যে ভালো ফর্মে থাকা খেলোয়াড়কেই দলের দায়িত্ব দেওয়া হয়। কিন্তু সবসময় এই ফর্মুলা কাজে আসে না। বিশ্ব ক্রিকেটে এমন সমস্ত উদাহরণ রয়েছে, যারা খেলার নিজের কর্তৃত্ব দেখিয়েছেন কিন্তু অধিনায়কত্বে ফ্লপ থেকেছেন। এই বিশেষ প্রতিবেদনে আপনাদের বিশ্ব ক্রিকেটের সেই ৩ জন খেলোয়াড়ের ব্যাপারে জানানো যাক যারা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজের নাম করেছেন কিন্তু নেতৃত্বের ক্ষেত্রে ফ্লপ থেকেছেন।

১—শচীন তেন্ডুলকর

৩ তারকা খেলোয়াড় যারা নিজের দেশকে জিতিয়েছেন বহু ম্যাচ, কিন্তু অধিনায়ক হিসেবে হয়েছেন ফ্লপ 1

একজন খেলোয়াড় হিসেবে তো শচীন তেন্ডুলকর ক্রিকেটের মাঠে প্রচুর নাম কামিয়েছেন, কিন্তু অধিনায়ক হিসেবে তিনি নিজের ইমেজ ধরে রাখতে পারেননি। শচীন তেন্ডুলকরকে ৯০ এর দশকের শেষে টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক করা হয়েছিল, কিন্তু তাতে তিনি একশো শতাংশ সফল হতে পারেননি। শচীন তেন্ডুলকর ভারতীয় দলের হয়ে একদিনের ফর্ম্যাটে ৭২টি ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছিলেন। কিন্তু ভারতীয় দল তার মধ্যে মাত্র ২৩টি ম্যাচেই জয় লাভ করেছিল। অন্যদিকে ৪২টি ম্যাচে দলকে হারতে হয়। এর মধ্যে একটি ম্যাচ টাই ছিল। অধিনায়ক হওয়ার আগে শচীনের ব্যাটে নিয়মিত রানের বৃষ্টিও দেখতে পাওয়া যেত। কিন্তু এই দায়িত্বের কারণে তিনি ব্যাটিংয়েও ফ্লপ হন। লাগাতার ওঠা প্রশ্ন আর খারাপ ব্যাটিংয়ের কারণে তার জমিয়ে সমালোচনাও দেখতে পাওয়া যায় আর দ্রুতই শচীন নিজের পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে দেন।

২—ক্রিস গেইল

৩ তারকা খেলোয়াড় যারা নিজের দেশকে জিতিয়েছেন বহু ম্যাচ, কিন্তু অধিনায়ক হিসেবে হয়েছেন ফ্লপ 2

এই তালিকায় পরবর্তী নাম ওয়েস্টইন্ডিজের ওপেনিং ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইলের নাম রয়েছে গেল একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে তো দারুণ সফলতা পেয়েছেন, কিন্তু অধিনায়ক হিসেবে তিনি অসফল থেকেছেন। এমনটাও বলা যেতে পারে যে অধিনায়ক হিসেবে তিনি দলের সঙ্গে ভালোভাবে পাননি। ক্রিস গেইল ওয়েস্টইন্ডিজের হয়ে একদিনের ফর্ম্যাটে ৫৩টি ম্যাচে দলকে নেতৃত্ব দেন। যার মধ্যে মাত্র ১৭টি ম্যাচেই তার দল জয় পায়। অন্যদিকে ৩০টি ম্যাচে তার দলকে হারের মুখে পড়তে হয়। এর মধ্যে কিছু ম্যাচ ফলাফলহীন থাকে। একই দৃশ্য টেস্ট ফর্ম্যাটেও দেখতে পাওয়া যায়। ব্রায়ান লারার অবসরের পর ওয়েস্টইন্ডিজের বোর্ড ক্রিস গেইলকে দায়িত্ব দিয়েছিল, কিন্তুদলের খারাপ প্রদর্শনকে দেখে বোর্ড দ্রুতই তার কাছ থেকে এই দায়িত্ব নিয়ে রামনরেশ সারওয়ানকে দিয়ে দেয়। বর্তমান সময়ে ক্রিস গেইল এখনও সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলছেন।

৩—আজহার আলি

৩ তারকা খেলোয়াড় যারা নিজের দেশকে জিতিয়েছেন বহু ম্যাচ, কিন্তু অধিনায়ক হিসেবে হয়েছেন ফ্লপ 3

এই তালিকায় তৃতীয় নাম পাকিস্তান দলের অভিজ্ঞ খেলোয়াড় আজহার আলির নাম রয়েছে। আজহার আলিও পাকিস্তান দলের হয়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অধিনায়ক হিসেবে বিশেষ কিছুই করতে পারেননি। আজহারকে ২০১৫য় শাহিদ আফ্রিদির অবসরের পর দলের অধিনায়ক করা হয়েছিল। কিন্তু আত্র কার্যকাল মাত্র ২ বছর পর্যন্তই চলে। আজহার আলি পাকিস্তান দলের হয়ে একদিনের ফর্ম্যাটে মাত্র ৩১টি ম্যাচেই অধিনায়কত্ব করেছিলেন। এর মধ্যে পাকিস্তান মাত্র ১২টি ম্যাচেই জয় লাভ করে, অন্যদিকে ১৮টি ম্যাচে তারা হারের মুখে পড়ে। একটি ম্যাচ ফলাফলহীন থাকে। টেস্টেও আজহারের রেকর্ড এখনো পর্যন্ত ভালো থাকেনি। ২০১৮য় আজহার আলি একদিনের ফর্ম্যাট থেকে অবসরও ঘোষণা করে দিয়েছিলেন, আর বর্তমান সময়ে তিনি পাকিস্তান দলের টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে কাজ করছেন। টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে তিনি চারটি ম্যাচ খেলেছেন আর সবকটিতেই তিনি হারের মুখে পড়েছেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *