২০০৮ এ প্রথম শুরু হওয়া ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের আসন্ন নিলামটি তার শুরুয়াতি বছরের থেকেও বড় এবং জাকজমকপূর্ণ হতে চলেছে। ফ্রেঞ্চাইজি গুলির সঙ্গে অধিকাংশ প্লেয়ারেরই কন্ট্রাক্ট শেষ হয়ে গেছে। আগামী বছর প্রায় সমস্ত প্লেয়ারই নিলামে উঠতে চলেছে। এখন একমাত্র সময়ই বলবে যে ফ্রেঞ্চাইজিগুলি ঠিক কতজন প্লেয়ারকে নিজেদের অধীনে রেখে দেওয়ার অনুমতি পাবেন। একটি মিডীয়া রিপোর্ট অনুযায়ী ২০১৮ আইপিএলের জন্য এখনও পর্যন্ত মাত্র দুটি ফ্রেঞ্চাইজিই ওপেন অকশনের পক্ষে ভোট দিয়েছে। যদিও এখনও এ ব্যাপারে আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল কোনো সিদ্ধান্ত নেয় নি। একটি প্রস্তাবিত রিপোর্ট অনুযায়ী ফ্রেঞ্চাইজিগুলিকে তিনজন করে প্লেয়ার রাখার অনুমতি দেওয়া হতে পারে। তার মানে ২ বছরের নির্বাসন থেকে ফিরে আসা রাজস্থান রয়্যালস এবং চেন্নাই সুপার কিংসই একমাত্র এই ব্যাপারে আকর্ষণীয় কিছু করতে পারে। কিন্তু যদি ফ্রেঞ্চাইজিগুলি তাদের খেলোয়াড়দের রেখে দেওয়ার অনুমতি পায় তাহলেই এই দুটি টিম তাদের ২০১৫র দলের খেলোয়াড়দের নিজেদের দখলে রেখে দিতে পারবে। তাই একবার দেখে নেওয়া যেতে পারে দুবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংস কোন তিনিজন প্লেয়ারকে নিজেদের দখলে রেখে দিতে পারে।

এমএস ধোনি : অলরেডি সিএসকে পরিস্কার করে দিয়েছে যে তারা তাদের সেরা অধিনায়ক এমএস ধোনিকে হলুদ জার্সিতে ফিরিয়ে আনতে বদ্ধ পরিকর। আর তা চাইবেই না কেন? ধোনির নেতৃত্বেই চেন্নাইয়ের এই দলটি ২টি আইপিএল খেতাব, দুটি চ্যাম্পিয়ন ট্রফি খেতাব, ছাড়াও চারবার আইপিএল ফাইনালে খেলেছে। ধোনির এই সাফল্যে ছেদ পড়ে তখন, যখন গড়পেটার অভিযোগে চেন্নাইয়ের এই দলটিকে দু বছরের জন্য সাসপেন্ড করে দেওয়া হয়। নিজেদের গায়ে লাগা এই দাগ থেকে বেরিয়ে নতুন করে নিজেদের দল গড়তে সিএসকের কাছে ধোনির থেকে ভালো নেতা আর কেউ আর হতেই পারে না।

সুরেশ রায়না : সুরেশ রায়না আইপিএল টুর্নামেন্টের এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে সফল ব্যাটসম্যান। রায়না শুরু থেকেই ধারাবাহিকভাবে সিএসকে দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে এসেছেন। সিএসকের হয়ে আইপিএলে সবচেয়ে বেশি রান করা এই সফল ব্যাটসম্যানটি এই টুর্নামেন্টে শুরুর থেকেই সিএসকের হয়ে খেলে এসেছেন। তবে সিএসকে সাসপেন্ড হওয়ার পর থেকে গত দুটি মরসুমে রায়নাকে গুজরাট লায়নসের হয়ে খেলতে দেখা গেছে।

রবিচন্দ্রন অশ্বিন : আরও একজন প্লেয়ার যিনি আইপিএল শুরুর মরসুম থেকেই সিএসকে দলে রয়েছেন তিনি হলেন রবি চন্দ্রন অশ্বিন। ফলে স্বাভাবিকভাবেই জাতীয় দলের এই স্পিনার সিএসকের পছন্দের তালিকায় প্রায়োরিটি পাবেন ধরেই নেওয়া যায়। সিএসকের হয়ে তাদের উত্থান পতনের সঙ্গী থাকা অশ্বিন ব্যাট এবং বল হাতে তাদের বহু ম্যাচ জিতিয়ে সিএসকের সাফল্যে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে এসেছেন। তাই সিএসকে ফ্রেঞ্চাইজি অবশ্যম্ভাবী ভাবেই তাদের স্পিন বিভাগ সামলাতে অশ্বিনকে রেখে দিতে পারে।

SHARE
সাংবাদিক, আদ্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী। ব্রায়ান লারা সচিনের ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ব্রাজিলের সমর্থক এবং নেইমার ও মেসির অন্ধ ভক্ত।

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক সেঞ্চুরির মালিক যে পাঁচ ক্রিকেটার

ক্রিকেটে একজন ব্যাটসম্যানের মানদণ্ড বিচার করার ক্ষেত্রে কোন ব্যাটসম্যান কত সংখ্যক সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তাঁর ক্যারিয়ারে তা অতীব...

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে যে তিনটি মাইলফলক স্পর্শ করতে পারেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা

ঘরের মাটিতে জয়রথ যেন থামছেই না টিম ইন্ডিয়ার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সাদা পোশাকে সিরিজ জয়ের পর রঙিন...

স্ট্যাটস: ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ: প্রথম ওয়ানডেতে হতে পারে সাতটি রেকর্ড, রোহিত আর ধবন ইতিহাস বইতে নথিভূক্ত করতে পারেন নিজের নাম

স্ট্যাটস: ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ: প্রথম ওয়ানডেতে হতে পারে সাতটি রেকর্ড, রোহিত আর ধবন ইতিহাস বইতে নথিভূক্ত করতে পারেন নিজের নাম
ভারতীয় দল আর ওয়েস্টইন্ডিজ দলের মধ্যে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ আগামিকাল ২১ অক্টোবর গুয়াহাটির মাঠে...

হ্যাপি বার্থ ডে সেহবাগ: এই ৫টি জিনিস প্রমান করে যে এখনও পর্যন্ত হয়নি বীরেন্দ্র সেহবাগের মত ব্যাটসম্যান

হ্যাপি বার্থ ডে সেহবাগ: এই ৫টি জিনিস প্রমান করে যে এখনও পর্যন্ত হয়নি বীরেন্দ্র সেহবাগের মত ব্যাটসম্যান
বিশ্বের সবচেয়ে আক্রামণাত্মক ওপেনার্সদের একজন বীরেন্দ্র সেহবাগ ৪০তম জন্মদিন পালন করছেন। ক্রিকেট জগত আর ওপেনিংকে নতুন পরিভাষা...

প্রত্যেক উইকেট নেওয়ার পর মিলত ১০ টাকা, ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়ার পর রাতভর কেঁদেছিলেন এই খেলোয়াড়

প্রত্যেক উইকেট নেওয়ার পর মিলত ১০ টাকা, ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়ার পর রাতভর কেঁদেছিলেন এই খেলোয়াড়
নিজের দলের হয়ে উইকেট নিতে প্রত্যেক বোলারেরই ইচ্ছে থাকে। পাপু রায় এক এমন বোলার যার জন্য উইকেট...