১৮ বছর বয়েসী পৃথ্বী শ’য়ের প্রতি পাগল হলেন এই অভিনেত্রী, প্রতি চার ছয়েই দিলেন দারুণ উৎসাহ

আইপিএলের মঞ্চে আরও একবার তরুণ ক্রিকেটাররা তাদের দম দেখালেন। গত পাঁচ এপ্রিল হায়দ্রাবাদের ঘরের মাঠ রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয়েছিল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ এবং দিল্লি ডেয়ারডেভিলস। এই ম্যাচে এক তরুণ ক্রিকেটার নিজের দুরন্ত পারফর্মেন্সে সকলেই প্রভাবিত করেছেন। এই ক্রিকেটার আর কেউ নন, ভারতীয় অনুর্ধ্ব ১৯ দলের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক বছর আঠেরোর পৃথ্বী শ। পৃথ্বী হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে ম্যাচে চমৎকারী পারফর্মেন্স করেন। পৃথ্বী শয়ের মাধ্যমে পাওয়া শুরুয়াতি সাফল্যের ফায়দা তুলতে পারেন নি দিল্লির আর কোনও ব্যাটসম্যান। ফলে হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে নির্ধারিত ২০ ওভারে পাঁচ উইকেটে ১৬৩ রানই করতে পারে তারা। দিল্লির হয়ে ইনিংস শুরু করে পৃথ্বী ৩৬ বলে ৬৫ রানের ইনিংস খেলেন, যার সৌজন্যে দিল্লি প্রথম দশ ওভারে ৯৫ রান করে, কিন্তু পরের দশ ওভারে তারা মাত্র ৬৭ রানই করতে পারে।
১৮ বছর বয়েসী পৃথ্বী শ’য়ের প্রতি পাগল হলেন এই অভিনেত্রী, প্রতি চার ছয়েই দিলেন দারুণ উৎসাহ 1
পৃথ্বী পাশাপাশি এই ম্যাচে দিল্লি অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ারও ৩৬ বলে ৪৪ রানের ইনিংস খেলেন। পৃথ্বী এই ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় আইপিএল হাফ সেঞ্চুরি মাত্র ২৫ বলে পূর্ণ করেন। নিজের পঞ্চাশ রান পূর্ণ করার পথে তিনি ছ’টি চার এবং তিনটি ছক্কা মারেন। অন্যদিকে দিল্লি অধিনায়ক নিজের হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করা থেকে মাত্র ৬ রান দূরে ছিলেন। কিন্তু হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ হওয়ার আগেই তিনি আউট হয়ে যান। ৪৪ রানের ইনিংস আইয়ার তিনটি চার এবং দুটি ছক্কা মারেন। সেই সঙ্গে ফর্মে চলা ঋষভ পন্থ নিজের ধারাবাহিকতা দেখাতে পারেন নি এবং মাত্র ১৮ রানই করতে পারেন। শেষ দিকে অলরাউন্ডার বিজয় শঙ্কর একটি চার এবং একটি ছয়ের সাহায্যে ২৩ রান করে দিল্লিকে সম্মানজক স্কোরে পৌঁছে দেন।
১৮ বছর বয়েসী পৃথ্বী শ’য়ের প্রতি পাগল হলেন এই অভিনেত্রী, প্রতি চার ছয়েই দিলেন দারুণ উৎসাহ 2
অন্যদিকে পৃথ্বীর এই দুরন্ত ইনিংস সকলেই প্রভাবিত করে। অন্যদিকে দিল্লির ইনিংসে চলাকালীন পৃথ্বীর ইনিংস দেখে স্টেডিয়ামে উপস্থিত অভিনেত্রী দীক্ষা পন্থকে পৃথ্বীকে উৎসাহ দিতে দেখা যায়। সেই সঙ্গে পুরো দলকেও উৎসাহ দেন দীক্ষা। বিশেষ করে পৃথ্বীর ইনিংসের সময় দীক্ষার উৎসাহ ছিল চোখে পড়ার মত।
১৮ বছর বয়েসী পৃথ্বী শ’য়ের প্রতি পাগল হলেন এই অভিনেত্রী, প্রতি চার ছয়েই দিলেন দারুণ উৎসাহ 3
পৃথ্বীর মারা প্রায় প্রতিটি চার ছয়ের পরেই উৎসাহিত হয়ে উঠতে দেখা যায় এই অভিনেত্রীকে। চেয়ার ছেড়ে উঠে দাঁড়িয়েও পৃথ্বীকে চিয়ার করতে দেখা যায় তাকে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দিল্লি এই ম্যাচ হারায় দীক্ষা যথেষ্টই হতাশই হন।
১৮ বছর বয়েসী পৃথ্বী শ’য়ের প্রতি পাগল হলেন এই অভিনেত্রী, প্রতি চার ছয়েই দিলেন দারুণ উৎসাহ 4

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *