যে বিখ্যাত মাঠগুলিতে সেঞ্চুরি করতে পারেন নি ক্রিকেট ঈশ্বর শচীন তেন্ডুলকর

তাকে বলা হয় ক্রিকেটের ঈশ্বর। ব্যাটিংয়ে এমন কোনও রেকর্ড বোধহয় বাকি নেই যা তিনি ছুঁয়ে দেখেন নি। তার কৃতিত্বকে বোঝাতে গেলে ছোটো পড়ে যে কোনও বিশেষণই। ক্রিকেট খেলিয়ে প্রায় সব দেশের বিরুদ্ধেই তার ব্যাট থেকে বেরিয়েছে সেঞ্চুরি। ডন ব্র্যাডম্যান স্বয়ং তাকে তুলনা করেছেন নিজের সঙ্গে। তিনি ভারতীয় ক্রিকেটের মিথ হয়ে যাওয়া জীবন্ত কিংবদন্তী শচীন রমেশ তেন্ডুকলর। ক্রিকেট থেকে এত কিছু পাওয়া সত্ত্বেও কয়েকটি জিনিস তারও কাছে অধরা রয়ে গেছে। সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি করেও বিশ্বের এমন কিছু বিখ্যাত মাঠ রয়ে গেছে তার ক্রিকেটীয় জীবনে যেখানে সেঞ্চুরি অধরাই রয়ে গেছে তার ক্রিকেট কেরিয়ারে। যা নিয়ে হয়ত মনে মনে আক্ষেপ রয়ে গেছে স্বয়ং ক্রিকেট কিংবদন্তীরও। একবার চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক বিশ্বের সেই পাঁচটি বিখ্যাত মাঠের, যেখানে সেঞ্চুরি অধরাই থেকে গেছে শচীন তেন্ডুলকরের ক্রিকেট জীবনে।

লর্ডস, লন্ডন: ক্রিকেট বলতেই সবার আগে যে স্টেডিয়ামটির কথা মাথায় আসে সেটি ইংল্যান্ডের বিখ্যাত ক্রিকেট স্টেডিয়াম লর্ডস। বিশ্বের সবচেয়ে অভিজাত এবং ঐতিহ্যপূর্ণ স্টেডিয়ামটির নাম লর্ডস। এখানে ক্রিকেট জীবন শুরুর স্বপ্ন দেখে যে কোনও ক্রিকেটারই। আর সেঞ্চুরি করলে তো নিজেকে সম্রাট মনে করতে পারেন যে কোনও ক্রিকেটারই। এমনই মহিমা এই মাঠের। কিন্তু বিশ্বের সবচেয়ে ঐতিহ্যপূর্ণ এই স্টেডিয়ামে কোনও সেঞ্চুরিই নেই ভারতের মাস্টার ব্লাস্টারের। লর্ডসের মাঠে শচীনের সর্বোচ্চ রান টেস্টে ৩৪ এবং একদিনের ক্রিকেটে ৩০। এই মাঠে এই সামান্য রানেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে একশো সেঞ্চুরির মালিককে।

দ্য গাব্বা, ব্রিসবেন: লিটল মাস্টারের ব্যাট যে দেশগুলির বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশি বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে তাদের মধ্যে তালিকায় সবার উপরে থাকবে অস্ট্রেলিয়া। আর যদি অস্ট্রেলিয়ার বিখ্যাত মাঠগুলির তালিকা করা হয় তাহলে ব্রিসবেনের গাব্বার নাম অবশ্যই উপরের দিকে থাকবে সেই তালিকায়। লর্ডসের মতই আশ্চর্যজনকভাবে গাব্বাও হতাশ করেছে এই মুম্বাইকরকে। নিজের ক্রিকেট কেরিয়ারে মাত্র দুটি টেস্টই গাব্বায় খেলেছিলেন শচীন। দুটি টেস্টের মধ্যে তার সর্বোচ্চ রান মাত্র ১৬। তবে টেস্টের তুলনায় গাব্বায় একদিনের ক্রিকেটে কিছুটা হলেও সফল হয়েছেন বিশ্বের এই শ্রেষ্ঠ ব্যাটসম্যান। গাব্বায় একদিনের ক্রিকেটে তার সর্বোচ্চ রান ৯১।

দ্য কেনিংটন ওভাল, লন্ডন: লর্ডসের মত অতটা ঐতিহ্যপূর্ণ না হলেও দ্য কেনিংটন ওভাল লন্ডনের বিখ্যাত ক্রিকেট মাঠগুলির অন্যতম একটি। উল্লেখযোগ্যভাবে এই মাঠও সেঞ্চুরির দিক থেকে খালি হাতেই ফিরিয়েছে এই ক্রিকেট কিংবদন্তীকে। কেনিংটন ওভালে কোনও শতরান নেই তার। সেই ১৯৯০ সালে ইংল্যান্ডে নিজের প্রথম সফরে এসেছিলেন তেন্ডুলকর তারপর থেকে ওভালে বহু ম্যাচে ব্যাট করেছেন শচীন। কিন্তু একবারও তিন অঙ্কের রানে পৌঁছতে পারেন নি তিনি। এই মাঠে টেস্টে তার সর্বোচ্চ রান ৯১, এবং একদিনের ক্রিকেটে করেছেন ৯৪ রান।

সাবাইনা পার্ক, জামাইকা: নিজের ক্রিকেট জীবন আরও কোনও দেশের মাঠে অস্বচ্ছন্দ বোধ না করলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজই একমাত্র দেশ যেখানে শচীন ব্যাট করতে নামলে মোটেও স্বস্তিবোধ করতেন না। অন্তত শচীন তেন্ডুলকরের পরিসংখ্যান সে কথাই জানান দিচ্ছে। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের সেরা মাঠ বলতে সবার আগে যে নামটি আসে তা হল সাবাইনা পার্ক। ভারতের হয়ে এই মাঠে মোট চারটি টেস্টে ব্যাট করতে নামেন লিটল মাস্টার। আর এই চারটি টেস্টের মধ্যে তার সর্বোচ্চ রান ৮৬। প্রসঙ্গত এই মাঠে একটাও একদিনের ম্যাচ খেলেন নি তিনি।

কিংসমিড, ডারবান: প্রোটিয়াদের দেশের অন্যতম সেরা মাঠ হিসেবেই বিবেচিত হয় কিংসমিড, ডারবান। বিশেষত ঘাসে ভরা সবুজ পীচের জন্য বরাবরই নাম ডাক রয়েছে ডারবানের। আর এহেন সবুজ পিচেই শতরান করতে ব্যর্থ ভারতীয় ক্রিকেট ঈশ্বর। এই মাঠে টেস্টে শচীনের সর্বোচ্চ রান হল ৬৩ একদিনের ক্রিকেটে আরও কম। একদিনের ক্রিকেটে এই মাঠে মাত্র ৪৫ রান করেছেন এই মাস্টার ব্লাস্টার।

SHARE
সাংবাদিক, আদ্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী। ব্রায়ান লারা সচিনের ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ব্রাজিলের সমর্থক এবং নেইমার ও মেসির অন্ধ ভক্ত।

আরও পড়ুন

ছবি: ঠিক এইভাবে হোলি উৎসবে মেতে উঠলেন ক্রিকেট ও ফুটবল তারকারা !

হোলি মানেই রঙের খেলা। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মতে ভগবান শ্রী কৃষ্ণ এদিন তার বন্ধু ও সখিদের নিয়ে রং...

চেন্নাই সুপার কিংসের এই জোরে বোলার আইপিএল শুরুর আগেই গেলেন ছিটকে, অবাক করে দেওয়ার মত কারণে

চেন্নাই সুপার কিংসের এই জোরে বোলার আইপিএল শুরুর আগেই গেলেন ছিটকে, অবাক করে দেওয়ার মত কারণে
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের ১২তম সংস্করণ ২৩ মার্চ থেকে খেলা হবে। এই টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ গত বিজেতা চেন্নাই...

স্টিফেন ফ্লেমিং জানালেন, কোন নম্বরে আইপিএল ২০১৯ এ ব্যাটিং করবেন এমএস ধোনি

স্টিফেন ফ্লেমিং সিএসকে দ্বারা আয়োজিত মিডিয়া কনফারেন্সে বলেন,আইপিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দল চেন্নাই সুপার কিংস। তারা আইপিএল ২০১৯...

আইপিএল ২০১৯: গত ১১বছর ধরে অটুট এই রেকর্ড, আজ পর্যন্ত ভাঙতে পারেননি কোনো খেলোয়াড়

আইপিএল ২০১৯: গত ১১বছর ধরে অটুট এই রেকর্ড, আজ পর্যন্ত ভাঙতে পারেননি কোনো খেলোয়াড়
দুনিয়ার সবচেয়ে দুর্দান্ত ক্রিকেট লীগ আইপিএলের শুরুয়াত ২০০৮ এ হয়েছিল। টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে ব্রেণ্ডন ম্যাকালামের ১৫৮ রানের...

আইপিএল ২০১৯— মাত্র ৩০ লাখ টাকায় এই আইপিএল মরশুমে খেলছেন ৮০ হাজার কোটি টাকার মালিকের ছেলে

আইপিএল ২০১৯— মাত্র ৩০ লাখ টাকায় এই আইপিএল মরশুমে খেলছেন ৮০ হাজার কোটি টাকার মালিকের ছেলে
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে মূল্যবান টি-২০ ক্রিকেট লীগ হিসেবে পরিচিত। এতে পয়সা পাওয়া যায়না বরং...