ফের বড় ছয় হাঁকালেন সহবাগ, কোথায় তা অবশ্যই দেখতে হবে 1

ইতিহাস গড়ার অপেক্ষায় ছিলেন মিতালি রাজ, হরমনপ্রীত কাউররা। কিন্তু ফাইনালে ইংল্যান্ডের দেওয়া ২২৯ রানের লক্ষ্য পার হতে পারেনি ভারত। থেমে যায় ২১৯ রানে। ফলে ৯ রানের ব্যবধানে ভারতকে হারিয়ে মহিলা বিশ্বকাপের ট্রফি জিতে নেয় ইংল্যান্ড। দেশের অনেকে ২০১১ বিশ্বকাপের চেয়ে এবারের মহিলা বিশ্বকাপটাকেই বেশি গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে আখ্যা দিতে শুরু করেছিলেন। সেমিফাইনালে হরমনপ্রীত কাউরের অবিশ্বাস্য ১৭১ রানের ইনিংসই সবচেয়ে বেশি স্বপ্ন দেখায় ভারতকে।
সবাই জানে বছর দুয়েক ধরেই ভারতের প্রাক্তন বিধ্বংসী ওপেনার বীরেন্দ্র সহবাগ এবং ব্রিটিশ সাংবাদিক পিয়ার্স মরগ্যানের নীরব যুদ্ধ চলছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সূত্রপাত অবশ্য করেছিলেন ব্রিটিশ সাংবাদিক নিজেই। ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে হারের পর মিতালিদের উদ্দেশ্যে টুইট করেছিলেন বীরেন্দ্র সহবাগ। সেটা নিয়েই আবার তার সঙ্গে লেগে গেল পুরনো ‘বন্ধু’ পিয়ার্স মরগ্যানের।
২০১৬ রিও অলিম্পিকে পদক জয়ের পর ভারতীয়দের সেলিব্রেশন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন মরগ্যান। জবাবে সহবাগের কাছে উচিত শিক্ষা পেয়েছিলেন এই ব্রিটিশ সাংবাদিক। এরপর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মরগ্যানের সঙ্গে ‘নজফগড় নবাব’এর টুইটারে লড়াই লেগেই আছে।
রবিবার মেয়েদের বিশ্বকাপ ফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে ভারতের পরাজয়ের পর সহবাগকে ব্যঙ্গ করে মরগ্যান। সোশ্যাল মিডিয়ায় মরগ্যান লেখেন, ‘বন্ধু তুমি ভালো আছো!’ সঙ্গে বিশ্বকাপের হারের কথাও উল্লেখ করেন তিনি। জবাবে তাকে ছক্কা মারার ভঙ্গিতে মাঠের বাইরে ফেলে দেন সহবাগ। প্রাক্তন ওপেনার জবাব দেন, ‘আমি ও আমাদের দেশের মানুষ এই হারের পরও গর্বিত। কিন্তু আমার মনে হচ্ছে ইংল্যান্ডের এই জয়ে তুমি আনন্দ পাচ্ছ না বন্ধু। আমরা কিন্তু উন্নতি করছি। আর এটা তুমি উপভোগ করতে পারো।’

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *