আইপিএলে এসে তারা দর্শকদের যৌন লালসার শিকার, জানিয়ে দিলেন চিয়ার লিডাররা

আইপিএলের ২২ গজে চলে ব্যাটে বলের উত্তেজক লড়াই। বিশ্বের তাবড় তাবড় ব্যাটসম্যান তা সে বিরাট কোহলি হোক বা ক্রিস গেইল অথবা ঘরের ছেলে ঋদ্ধিমান সাহা, তার যখন উইলোর মারে বলকে মাঠের বাইরে পাঠান তখন নিরন্তর ভাবে মাঠের ধারে নিজেদের কাজ করে যান এই সুন্দরী চিয়ার লিডাররা। আইপিএলের সবচেয়ে বড় চমক তারা। ক্রিকেট আইপিএলের লাস্যময়ী ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর তারা। তাদের উপস্থিতিতেই আইপিএল হয়ে হঠে লাস্যময় আবেগের খেলা। তবে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা আই মোহময়ী চিয়ার লিডারদের আইপিএল অভিজ্ঞতা কেমন? তাদের অভিজ্ঞতার কাহিনী শুনলে ঝটকা লাগতে পারে ভারতীয়দের। আর এই আইপিএলকে ঘিরে তাদের ভয়ংকর অভিজ্ঞতার কথা তারা খোলাখুলিই জানিয়েছে এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে। নিজেদের নাম প্রকাশ না করার শর্তে তাদের আইপিএলের পোষাক, আইপিএল নিয়ে তাদের অভিজ্ঞতা, সব কিছুই খোলাখুলি জানিয়েছেন তারা ওই সংবাদমাধ্যমের কাছে।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে এক এক চিয়ার লিডার জানিয়েছেন, “ যখন কোনও মহিলা নৃত্য শিল্পী প্রাশ্চাত্যে নাচেন তখন এখানকার মত তার পোষাক বা শরীর নিয়ে কেউই ভাবে না। মহিলা চিয়ারলিডারদের এদেশে সেক্স অবজেক্ট হিসেবে দেখা হয়”। অন্য এক চিয়ারলিডার আরও বিস্ফোরকভাবে ওই সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, “ একজন নৃত্যশিল্পী হিসেবেই আমি এই টুর্নামেন্টের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। কিন্তু এখন দেখছি আমাকে এখানে যৌন পণ্য হিসেবেই দেখানো হয়”। প্রায়ই ভারতীয় দর্শকরা তাদের যৌন ইঙ্গিত করে থাকেন।

ভারতীয় দর্শকদের প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে এক চিয়ার লিডার ওই সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, “ অনেকেই মাঠে এমন অঙ্গভঙ্গি করে যে মন্তব্য না করে সহজে মেনে নেওয়া যায় না। আমরা তখন এড়িয়ে যেতে বাধ্য হই। তাদের ক্ষমাসুলভ দৃষ্টিতেই দেখি আমরা”। আইপিএল নিয়ে তাদের অভিজ্ঞতা এতটাই ভয়ংকর যে তারা উঠতি মডেলদের এই পেশা থেকে দূরে থাকার পরামর্শই দিচ্ছেন। ওই চিয়ারলিডারদের একজন জানিয়েছেন, “ কেউ যদি চিয়ার লিডার হতে চায় তাহলে তার উচিৎ অবশ্যই নাচের তালিম নেওয়া। কারণ যদি এই পেশা তাকে হতাশ করে তাহলে তিনি নৃত্যশিল্পী হিসেবেই নিজের জীবন চালাতে পারবেন”।

প্রসঙ্গত এর আগে আইপিএলে উঠেছিল বর্ণ বিদ্বেষের অভিযোগ। অনেকেই আওয়াজ তুলেছেন ছোটো ছোটো পোষাক পরে এই চিয়ারলিডারদের নাচের বিরুদ্ধে। যা নিয়ে এই চিয়ারলিডাররা মেনে নিচ্ছেন আইপিএলে এখনও পুরো মাত্রায় রয়েছে বর্ণ বিদ্বেষ। এই মুহুর্তে ধর্ষণ দিয়ে উত্তাল গোটা দেশ। প্রশ্ন উঠেছে একটি বিশেষ রাজনৈতিক দলের ভূমিকা নিয়েও। কিন্তু সাধারণ মানুষই যদি না বদলায় তাহলে সে ক্ষেত্রে রাজনৈতিক দলগুলিকে দোষ দেওয়ার কোনও মানেই হয় না। প্রয়োজন সাধারণ মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি বদলানোর যা কার্যত জানিয়েই দিয়েছেন ওই চিয়ার লিডাররা।

  • SHARE
    সাংবাদিক, আদ্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী। দ্বিতীয় ডিভিসনে দীর্ঘদিন ক্রিকেট খেলার দরুণ ক্রিকেটের অন্ধ ভক্ত। ব্রায়ান লারা সচিনের অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ব্রাজিলের সমর্থক এবং নেইমার ও মেসির অন্ধ ভক্ত।

    আরও পড়ুন

    আইপিএল ২০১৮: এমআই বনাম আরআর, আমরা আরও ২০ রান করতে পারলে হলে ঠিক হত: রোহিত শর্মা

    রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স আরও একটা ক্লোজড ম্যাচে রান বাঁচাতে ব্যর্থ হল। রাজস্থানের বিরুদ্ধে শেষ দু...

    সানরাইজার্সকে সমর্থন জানাতে ডেভিড ওয়ার্নারের ভারত আসা আটকে দিল বিসিসিআই

    সানরাইজার্সকে সমর্থন জানাতে ডেভিড ওয়ার্নারের ভারত আসা আটকে দিল বিসিসিআই
    সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ চলতি আইপিএলের নিশ্চিতভাবেই তাদের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের অভাব বোধ করছে। তবে সানরাইজার্সের থেকেও বেশি অভাববোধ...

    আইপিএল ২০১৮: এসআরএইচ বনাম সিএসকে, স্ট্যাটিস্টিক্যাল হাইলাইটস

    চেন্নাই সুপার কিংস ঘরের দল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে শেষ ওভারের রুদ্ধশ্বাস নাটকের পর ৪ রানের ব্যবধানে জয়...

    ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতি নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন কলকাতার অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক

    ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতি নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন কলকাতার অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক
    শনিবার ইডেনে যখন কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ব্যাট করতে নামে তখন তাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল...

    দল চ্যাম্পিয়ন হলে বিশেষ উপহার ঘোষণা প্রীতির

    দল চ্যাম্পিয়ন হলে বিশেষ উপহার ঘোষণা প্রীতির
    এর আগে বলিউড বাদশা কলকাতা নাইট রাইডার্স দলের সমর্থক এবং ক্রিকেটারদের কথা দিয়েছেন যদি তার দল চ্যাম্পিয়ন...