প্রকাশ হলো Ranking, লজ্জাজনক অবস্থায় অজিরা এবং ভারতীয় দল আছে এই স্থানে 1

প্রকাশ হলো Ranking, লজ্জাজনক অবস্থায় অজিরা এবং ভারতীয় দল আছে এই স্থানে 2

বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ম্যাচে সিরিজ ১-১ ড্র করে আইসিসি টেস্ট রেংকিংয়ে পঞ্চম স্থানে নেমে গেলো অস্ট্রেলিয়া। ১০০ রেটিং ও রেংকিংয়ের চতুর্থ স্থানে থেকে বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শুরু করেছিলো অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু ঢাকায় প্রথম টেস্ট হেরে যাওয়া ৩ রেটিং হারায় অসিরা। চট্টগ্রাম টেস্ট ড্র বা হারলে আরও রেটিং হারাত অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু গতকাল শেষ হওয়া টেস্ট ৭ উইকেটে জিতে মুখ রক্ষা হয় অজিদের। ফলে ৯৭ রেটিং নিয়ে পঞ্চম স্থানে জায়গা পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। চতুর্থ স্থানে থাকা নিউজিল্যান্ডেরও রেটিং ৯৭। কিন্তু ভগ্নাংশের হিসেবে এগিয়ে থাকায় রেংকিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার উপরে নিউজিল্যান্ড। রেংকিংয়ে শীর্ষে রয়েছে ভারত। তাদের রেটিং ১২৫। ১১০ রেটিং নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে দক্ষিণ আফ্রিকা। ১০৫ রেটিং নিয়ে তৃতীয় স্থানে ইংল্যান্ড।

সিরিজ ড্র’তে লাভবান হয়েছে বাংলাদেশে। তবে রেংকিংয়ের টেবিলে নিজেদের পরিবর্তন ঘটাতে সক্ষম না হলেও গুরুত্বপূর্ণ পাঁচটি রেটিং পয়েন্ট অর্জন করেছে বাংলাদেশ। ১-১ এ সমতা বিধান করা সিরিজ শেষে আইসিসির হালনাগাদকৃত র্যাংকিং তালিকায় বাংলাদেশের নামের পাশে নতুন করে যুক্ত হয়েছে পাঁচ পয়েন্ট। অস্ট্রেলিয়া রেংকিংয়ে বাংলাদেশের উপরে অবস্থান করছে বিধায় চট্টগ্রাম টেস্ট হারায় খুব একটা ক্ষতি হয়নি টাইগারদের। ৭৪ রেটিং নিয়ে নবম স্থানেই রয়েছে টাইগাররা। অষ্টম স্থানে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবধান এখন মাত্র ১ রেটিং।

অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়ার অফ স্পিনার নাথান লিওন ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করেছেন চট্টগ্রামে। ১৫৪ রান দিয়ে ১৩ উইকেট গেছে তার দখলে। এতে বোলার রেংকিংয়ে প্রথমবার শীর্ষ দশে ঢুকেছেন তিনি। ৯ ধাপ এগিয়ে এখন লিওন ৮ নম্বরে। ম্যাচের সর্বোচ্চ ১২৩ রান করে ডেভিড ওয়ার্নার এক ধাপ এগিয়ে ব্যাটসম্যান রেংকিংয়ের পাঁচে। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ১৬ ধাপ উন্নতি করেছেন, অবস্থান করছেন ৮৮ নম্বরে।

এদিকে যথারীতি আইসিসি টেস্ট রেংকিংয়ের শীর্ষস্থানে আছে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারত। তাদের ঠিক পরের অবস্থানে, অর্থাৎ দ্বিতীয় স্থানে আছে দক্ষিণ আফ্রিকা। একনজরে দেখে নিন সর্বশেষ হালনাগাদকৃত আইসিসি টেস্ট রেংকিংটি (ব্রাকেটে রেটিং পয়েন্ট)-

 

১. ভারত (১২৫)

২. দক্ষিণ আফ্রিকা (১১০)

৩. ইংল্যান্ড (১০৫)

৪. নিউজিল্যান্ড (৯৭)

৫. অস্ট্রেলিয়া (৯৭)

৬. পাকিস্তান (৯৩)

৭. শ্রীলঙ্কা (৯০)

৮. ওয়েস্ট ইন্ডিজ (৭৫)

৯. বাংলাদেশ (৭৪)

১০. জিম্বাবুয়ে (০)

Nazmus Sajid

Sports Fanatic!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *