হোক একটা আইপিএল বনাম পিএসএল ম‍্যাচ ! দাবী পাকিস্তানের ক্রিকেট ভক্তদের ! 1

হোক একটা আইপিএল বনাম পিএসএল ম‍্যাচ ! দাবী পাকিস্তানের ক্রিকেট ভক্তদের ! 2

ইতিমধ্যে জমে উঠেছে আইপিএল।সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে অনুষ্ঠিত এবারের আইপিএলে আমরা দেখতে পারছি নিত‍্যদিন নিত‍্য সব চমক।উত্তেজনার বিচারে ম‍্যাচ গুলো হার মানাবে যেকোনো সাসপেন্স সিনেমার গল্পকে।এর মাঝে চমকপ্রদ প্রস্তাব দিলো ‘পাকিস্তান সুপার লিগ’এর পেশোয়ার জালমি দলের মালিক জাভেদ আফ্রিদি।একটা পাকিস্তান সুপার লিগ বনাম ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ ম‍্যাচ হলে কেমন হয় ?তার এহেন প্রশ্নে উত্তাল গোটা পাকিস্তানের ক্রিকেট ভক্ত সম্প্রদায়।মরুদেশের যেকোনও স্টেডিয়ামে আয়োজন করা হোক এই ম‍্যাচ এমনটা দাবী করলেন জাভেদ !

ভারতে করোনার প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পাওয়ার প্রভাবে এবারের আইপিএল আয়োজন করার ক্ষেত্রে বিকল্প ব‍্যাবস্থা গ্রহণ করে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।তেরো তম আইপিএল আয়োজন করার ব‍্যাবস্থা করা হয় সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে।দর্শক শূন্য গ‍্যালারিতে ম‍্যাচ আয়োজন হলেও ম‍্যাচের উত্তেজনার রেশ উপভোগ করছে বিশ্বের তামাম ক্রিকেট ভক্তরা।

হোক একটা আইপিএল বনাম পিএসএল ম‍্যাচ ! দাবী পাকিস্তানের ক্রিকেট ভক্তদের ! 3
গত ১৯ শে সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই জনপ্রিয় ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১০ ই নভেম্বর।এবং সেই টুর্নামেন্ট শেষ হওয়ার পর আয়োজন করা হবে একটি প্রদর্শনী ম‍্যাচ পিএসএল বনাম আইপিএল,এমনটাই চাইছেন জাভেদ আফ্রিদি।ম‍্যাচের থেকে সংগৃহিত অর্থ ব‍্যাবহার করা হয় করা হোক কোভিড – ১৯ সংক্রান্ত নানান কাজে।এমনটাই চাইছেন তিনি।

পরবর্তী সময়ে জাভেদের টুইট ভাইরাল হয়ে যায় ঝড়ের বেগে।ক্রিকেট ভক্তরাও সাক্ষী থাকতে চাইছেন এমন একটা ম‍্যাচের।টালমাটাল ভারত – পাকিস্তানের রাজনৈতিক অবস্থা,এবং তার প্রভাব দুই দেশের ক্রিকেটে।বহু বছর হলো আয়োজন হয়না ভারত – পাক দ্বীপাক্ষিক সিরিজ।

২০০৭ সালের পর থেকে আর কোনও সিরিজ খেলেনি ভারত পাকিস্তান।সেইবার ভারতে এসেছিলো পাকিস্তান ক্রিকেট দল,তিনটি টেস্ট ম‍্যাচ এবং পাঁচটি ওয়ানডে খেলতে।এরপর ২০১২ সালে ডিসেম্বর মাসে তিনটি ওয়ানডে এবং দুটো টি টোয়েন্টি ম‍্যাচ খেলেছিলো পাকিস্তান দল।এখন শুধুমাত্র আইসিসি আয়োজিত টুর্নামেন্ট অথবা এশিয়া কাপে মুখোমুখি হয় এই দুই দেশ।

শেষবার ভারত – পাকিস্তান মুখোমুখি হয়েছিল ২০১৯ সালে বিশ্বকাপের ম‍্যাচে।ম‍্যাচে বাবর আজমদের হারিয়ে বিশ্বকাপে মন্চে পাকিস্তানকে হারানোর রেকর্ড বজায় রেখেছিলো বিরাটরা।বর্তমান প‍রিস্থিতিতে এইরকম ম‍্যাচ আয়োজন করা কোনও ভাবেই সম্ভব নয়।

Leave a comment

Your email address will not be published.