তাঁর অবসর নিয়ে যে যাই মত দিক, দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন অলরাউন্ডার ল্য়ান্স ক্লুজনারের মতে ক্রিকেটকে এখনও পুরোপুরি বিদায় জানানোর সময় আসেনি মহেন্দ্র সিং ধোনির। ধোনি এখন অবসর নিলে ভারতকে বড় বিপদের মুখে পড়তে হবে। দক্ষিণ আফ্রিকার এই কিংবদন্তি অলরাউন্ডার এবিষয়ে গভীর চিন্তাও প্রকাশ করেছেন। লাল বলের ক্রিকেটে অবসর নেওয়ার পর ৫০ ওভার ও টি-২০র অধিনায়কত্বের দায়ভারও বিরাটকে ছেড়ে দিয়েছেন ধোনি। সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন এখনও। কারণ, ২০১৯ বিশ্বকাপ পর্যন্ত তরুণ ক্রিকেটারদের গাইড করার জন্য় তাঁর থাকাটা জরুরি। একদিনের আসরে ধোনির ব্য়াটিং গড় একান্নর কিছু ওপরে বর্তমানে। অধিনায়ক থাকাকালীন নিজের জোর খাটিয়ে ব্য়াটিং অর্ডারে উপরে উঠে এলে এই গড়টা আরও বেশি হতে পারত, এনিয়ে ধোনির অতিবড় নিন্দুকও অস্বীকার করবেন না। তবে, মাহি সবসময় নিজের আগে ভারতীয় ক্রিকেটকে প্রাধান্য় দিয়েছেন।

ইদানিং সীমিত ওভারের ক্রিকেটে আগের মতো ধারাবাহিকতা দেখা যাচ্ছে না মাহির ব্য়াটে। কিন্তু, ক্লুজনারের মতে ভারতীয় ক্রিকেটকে দেওয়ার মতো এখনও অনেক কিছু রয়েছে মাহির মধ্য়ে। দক্ষিণ আফ্রিকার এই কিংবদন্তি বলেন, কাউকে সরে দাঁড়ানো উপদেশ দেওয়া খুব সহজ। ধোনির মধ্য়ে দেওয়ার মতো এখনও অনেক কিছু বাকি রয়েছে। বিরাটের অধিনায়কত্বে পরপর ম্য়াচ জিততে দেখে সমালোচকরা বলতে শুরু করেছেন, ধোনিকে যেন এখনই বাদ দেওয়া হয় ভারতীয় দল থেকে। তাঁদের পরামর্শ, ৩৬ বছর বয়সী ধোনিকে বাদ দিয়ে এখন থেকেই তরুণ ক্রিকেটারদের ঘঁষেমেজে তৈরি করা হোক ২০১৯ বিশ্বকাপে খেলার জন্য়।

ভারতের হয়ে এখনও পর্যন্ত ২৯৬টি ওয়ান-ডে এবং ৭৭টি টি-২০ ম্য়াচ খেলেছেন ধোনি। অধিনায়ক থাকাকালীন ভারতকে তিনটি বড় আইসিসি ট্রফি জিতিয়েছিলেন, বিশ্ব ক্রিকেটে আরও কোনও অধিনায়কের এই কৃতিত্ব নেই। টেস্টের আসরে ভারত তাঁর আমলেই প্রথমবার একনম্বর হয় ব়্য়াঙ্কিংয়ে। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে সমালোচনার মুখে পড়ে টেস্ট দলের অধিনায়কত্বের পাশাপাশি অবসরও নিয়ে নেন ৯০টি টেস্ট খেলার পর। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে ধোনির ব্য়াটে ধারাবাহিকতা কমলেও তিনি অচল একেবারেই বলা যাবে না। কিন্তু, সমালোচকরা যেভাবে মাহিকে নিয়ে মন্তব্য় করছেন, তার পরিপ্রেক্ষিতে ক্লুজনার পাল্টা প্রশ্ন করেছেন, ধোনিকে বাদ দেওয়ার কথা বলা হচ্ছে। ওঁকে বাদ দেওয়ার মতো উপযুক্ত কাউকে কি পাওয়া গিয়েছে? বলতে পারবেন, যাকে পাওয়া গিয়েছে, সে ধোনির থেকেও ভালো হবে কি না?”

অধিনায়ক ও ব্য়াটসম্য়ান ধোনির প্রশংসা করেছন ক্লুজনার। ধোনির অধিনায়কত্ব করার গুনের কথা তুলে ধরে প্রাক্তন দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটারটি বলেন, ক্রিকেটের ইতিহাসে সেরা সর্বকালের সেরা ম্য়াচ ফিনিশার মহেন্দ্র সিং ধোনি। মাহিকে জোর করে অবসর নিতে বাধ্য় করা হলে ভারতীয় দল দুর্বল হয়ে যাবে বলে মন্তব্য় করেছেন ক্লুজনার। পরামর্শদাতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা ওঁকে তাড়াতে চাইছেন কেন? ভারত যদি ধোনিকে সরিয়ে দেয়, তাহলে বোকার মতে কাজ করবে।

উল্লেখ্য়, ১৯৯৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ইংল্য়ান্ডের বিরুদ্ধে অভিষেক হয়েছিল ক্লুজনারের। তাঁর ক্রিকেট জীবনে ১৭১টি একদিনের ম্য়াচে ১৩৭টি ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ৩,৫৭৬ রান করেছিলেন। ৪৯টি টেস্টে তাঁর সংগ্রহ ১,৯০৬ রান। একদিনের ক্রিকেট ও টেস্টে তাঁর ঝুলিতে রয়েছে যথাক্রমে ১৯২টি ও ৮০টি উইকেট। অবসর নেওয়ার পর কোচিং করেন। জিম্বাবোয়ে ক্রিকেট টিমকেও কোচিং দিয়েছেন। তামিলনাড়ু প্রিমিয়ার লিগে লাইকা কোভাই কিংস ফ্র্য়াঞ্চাইজিকে কোচিং দেওয়ার অভিজ্ঞতা রয়েছে এই প্রাক্তন দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটারের।

  • SHARE

    আরও পড়ুন

    রশিদ খানকে বিশ্বের সেরা স্পিনারের তকমা দিলেন ডিন জোন্স

    বিশ্বকে চমকে দিয়েছেন আগেই তার স্পিনের জাদুতে। এবার চলতি আইপিএলেও তার সেই স্পিন জাদু অব্যাহত। তার স্পিনের...

    ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে তথ্যের অধিকার আইনের আনার পরিকল্পনা

    ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে তথ্যের অধিকার আইনের আনার পরিকল্পনা
    শেষ পর্যন্ত এত দিন যা হয় নি ভারতীয় ক্রিকেটের এবার তাই হতে চলেছে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে তথ্যের...

    আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দেশের সম্মান ফিরে পেতে অস্ট্রেলিয়ার কোচ হলেন এই নামী তারকা

    আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দেশের সম্মান ফিরে পেতে অস্ট্রেলিয়ার কোচ হলেন এই নামী তারকা
    অবশেষে ডারেন লেম্যানের ছেড়ে যাওয়া জায়গা ভরাট করে ফেলল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় ক্রিকেট দলের জন্য নতুন...

    পাঞ্জাবের অনুশীলণে নিজের প্রবীণতম ভক্তের সঙ্গে দেখা করে আপ্লুত সেহবাগ

    আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সন্ন্যাস নিয়েছেন বেশ অনেকদিনই হল। চলতি আইপিএলেও তিনি পাঞ্জাবের মেন্টর। তাই ক্রিকেট ছাড়লেও ক্রিকেট...

    মুম্বাইয়ের রাস্তায় ক্রিকেট খেললেন শচীন তেন্ডুলকর, দেখে নিন

    মুম্বাইয়ের রাস্তায় ক্রিকেট খেললেন শচীন তেন্ডুলকর, দেখে নিন
    আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নিলেও ক্রিকেটকে ছাড়তে পারেন নি শচীন রমেশ তেন্ডুলকর। ক্রিকেট তার হৃদয়ে রয়েছে, ফলে...