২০০৭ সালের টি- ২০ বিশ্বকাপে ধোনির আগে অধিনায়ক হতে চেয়েছিলেন, বড় বিষয় খোলসা করলেন যুবরাজ 1

টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনি নিজের কৃতিত্ব ও অধিনায়কত্বের জন্য বিখ্যাত। তিনি তার অধিনায়কত্বের অধীনে একের পর এক এমন ইতিহাস তৈরি করেছেন, যার যাত্রা কোনও খেলোয়াড়ের পক্ষে পৌঁছানো সহজ নয়। এদিকে টিম ইন্ডিয়ার সেরা অলরাউন্ডার যুবরাজ সিং এমন একটি বিবৃতি দিয়েছেন, যা মাহি ভক্তদের হজম নাও হতে পারে। দীর্ঘদিন পরে তিনি প্রকাশ করেছেন যে বিসিসিআই তার আশা কতটা ছিন্ন করেছে। প্রথমত ভারতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক ধোনির সাফল্যের প্রথম পদক্ষেপ ছিল ২০০৭ সালের টি- ২০ বিশ্বকাপে দলকে নেতৃত্ব দেওয়া।

২০০৭ সালের টি- ২০ বিশ্বকাপে ধোনির আগে অধিনায়ক হতে চেয়েছিলেন, বড় বিষয় খোলসা করলেন যুবরাজ 2

এখান থেকেই তাঁর কিংবদন্তি হওয়া শুরু হয়েছিল। একজন ভারতীয় হিসাবে, তিনি চিরকালের জন্য এমন একটি মানদণ্ড স্থাপন করেছেন যা মেলানো কঠিন বলে মনে হয়। ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট টি- ২০ বিশ্বকাপে ধোনিকে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দিয়েছিল। যা প্রত্যাশিত ছিল যুবরাজ সিং হবেন। কিন্তু টিম ম্যানেজমেন্টের সিদ্ধান্ত এলে অবাক হয়ে যান যুবি। কারণ তিনি নিশ্চিত ছিলেন যে দলের অধিনায়কত্বের কমান্ড তাঁর হাতে দেওয়া হবে। টি- ২০ বিশ্বকাপ ২০০৭ সালে তার ব্যাট হাতে দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন যুবি। ভক্তরা আজ অবধি সেই সব ইনিংস ভুলতে পারেননি।

২০০৭ সালের টি- ২০ বিশ্বকাপে ধোনির আগে অধিনায়ক হতে চেয়েছিলেন, বড় বিষয় খোলসা করলেন যুবরাজ 3

এই টুর্নামেন্টে তিনি একের পর এক অনেক ঝোড়ো ইনিংস খেলেছিলেন। দলকে ফাইনালে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভূমিকা ছিল যুবির। ভারত পাকিস্তানকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল। এমএস ধোনির অধিনায়কত্বে দলের প্রাক্তন খেলোয়াড় ব্যাট হাতে বিরোধী দলগুলির বিরুদ্ধে রেকর্ড তৈরি করেছিলেন। এই সময়ে যুবরাজ সিং নিজেকে বাকি থেকে আলাদা প্রমাণ করেছিলেন। যুবরাজ সিংহ ২০১১ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপ জিতিয়েছিলেন দলকে। সেই সময় তিনি প্লেয়ার অফ দ্য সিরিজ হয়েছিলেন। ২০০৭ সালের টি- ২০ বিশ্বকাপে বেশিরভাগ সিনিয়র খেলোয়াড় টুর্নামেন্ট খেলতে অস্বীকার করেছিলেন তাও তিনি ব্যাখ্যা করেছিলেন।

Was Expecting to Lead India in 2007 T20 World Cup Before MS Dhoni – Yuvraj Singh - Cricket Country

যুবি বলেন, “৫০ ওভারের বিশ্বকাপটি হেরেছে ভারতীয় দল। যার পর দলে তোলপাড় চলছিল। তার পরে দু’মাস ইংল্যান্ড সফর এবং তারপরে এক মাসের দক্ষিণ আফ্রিকা এবং আয়ারল্যান্ড সফর ছিল। এক মাস ছিল টি- ২০ বিশ্বকাপ, সুতরাং মোট চার মাস বাড়ি থেকে দূরে ছিল। তাই সিনিয়র খেলোয়াড়রা বিরতি নেওয়ার কথা ভাবেন এবং স্পষ্টতই কেউ টি- ২০ বিশ্বকাপকে তত্ক্ষণাত গুরুত্বের সাথে নেননি। আমি আশা করছিলাম যে টি- ২০ বিশ্বকাপে আমাকে ভারতীয় দলের অধিনায়ক করা হবে কিন্তু পরে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে দলের অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিল।”

Leave a comment

Your email address will not be published.