World Championship এর জন্য টিম ইন্ডিয়ার গ্রুপে শামিল হল এই দুই নতুন দল, ২০২২-২০২৫ পর্যন্ত খেলা হবে ম্যাচ 1

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট পরিষদ (ICC) ২৫ মে আইসিসি মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপের (ICC Women’s Championship) তৃতীয় সংস্করণ আর ফর্ম্যাট নিয়ে বড় ঘোষণা করেছে। এই টুর্নামেন্টের শুরু ১ জুন শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে পাকিস্তানের ঘরোয়া সিরিজ দিয়ে শুরু হবে। ওম্যান্স ক্রিকেটের উন্নতিতে গতি আনার জন্য আইসিসির কমিটমেন্টের অংশ হিসেবে আইডব্লিউসিকে ৮টি দল থেকে ১০টি দলে বাড়ানো হয়েছে। বাংলাদেশ আর আয়ারল্যান্ড এই টুর্নামেন্টে অংশ নেবে। যা আইসিসি মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৫ এর কোয়ালিফিকেশনের জন্য সোজা রাস্তা খুলে দেবে।

১০টি দল নেবে এই টুর্নামেন্টে অংশ

World Championship এর জন্য টিম ইন্ডিয়ার গ্রুপে শামিল হল এই দুই নতুন দল, ২০২২-২০২৫ পর্যন্ত খেলা হবে ম্যাচ 2

২০২২ থেকে ২৫ এর সার্কেল চলাকালীন ১০টি দল তিন-আট আর তিন ম্যাচের সিরিজ খেলবে। যার মধ্যে চারটি ঘরোয়া সিরিজ আর চারটি বিদেশী সিরিজ শামিল রয়েছে। এই টুর্নামেন্টের আয়োজক দেশ আর শীর্ষ পাঁচটি দল ক্রিকেট বিশ্বকাপে সোজা এন্ট্রি দেওয়া হবে। বাকি থাকা ২টি দলকে কোয়ালিফায়ার ম্যাচের মাধ্যমে এতে শামিল করা হবে। এই কোয়ালিফায়ারে ৬টি দল থাকবে। আইডব্লিউসির বাকি চারটি দল আর অন্য দুটী দল যাদের নির্বাচন হবে আইসিসি মহিলা ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের মাধ্যমে।

ওয়ানডের জন্য দলগুলির অবস্থান

World Championship এর জন্য টিম ইন্ডিয়ার গ্রুপে শামিল হল এই দুই নতুন দল, ২০২২-২০২৫ পর্যন্ত খেলা হবে ম্যাচ 3

প্রসঙ্গত, সম্প্রতিই ৫টি সহযোগী মহিলা দল- নেদারল্যান্ড, পাপুয়া নিউগিনি, স্কটল্যান্ড, থাইল্যান্ড আর আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রকেও সংশোধিত ক্রিকেট বিশ্বকাপ যোগ্যতার আধারে একদিনের দলের মান্যতা দেওয়া হয়েছে, যা এখন টি-২০ বিশ্বকাপের যোগ্যতা থেকে একদম আলাদা। এই দলগুলির ওয়ানডেতে প্রদর্শন, তাদের ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিং নির্ধারিত করবে আর ২০২৫ বিশ্বকাপের জন্য তাদের এই টুর্নামেন্টে জায়গা করে দেবে।

অতিরিক্ত দলগুলিকে ওয়ানডের মান্যতা দেওয়ার কারণ খোলসা

World Championship এর জন্য টিম ইন্ডিয়ার গ্রুপে শামিল হল এই দুই নতুন দল, ২০২২-২০২৫ পর্যন্ত খেলা হবে ম্যাচ 4

এই ব্যাপারে জানাতে গিয়ে আইসিসির প্রধান কার্যকরি আধিকারিক জিওফ এলার্ডিস বলেন, “এই সিদ্ধান্ত আইসিসির বোর্ডের তরফে আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট পরিষদ বিশ্বজোড়া উন্নয়ণ রণনীতি অনুযায়ী নেওয়া হয়েছে। আইসিসি মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপে দলের সংখ্যা বাড়ানোয় আর ৫টি অতিরিক্ত দলকে একদিনের মান্যতা দেওয়ায় আমরা মহিলাদের ক্রিকেটের উন্নতিতে গতি আনতে সাহায্য পাব। নিয়মিতভাবে ক্রিকেট খেলা দলগুলি এই টুর্নামেন্টকে আরও কঠিন করে তোলে যেমনটা আমরা সম্প্রতিই নিউজিল্যান্ডে খেলা হওয়া বিশ্বকাপে দেখেছিলাম”।

Leave a comment

Your email address will not be published.