নিজের স্পিনে যখন মাইকেল ভন শচীন তেন্ডুলকরকে চমক দিয়েছিলেন, দেখুন ভিডিও 1

 

ভারত এবং ইংল্যান্ডের মধ্যে টেস্ট সিরিজের তৃতীয় ম্যাচটি ছিল ডে-নাইট টেস্ট ম্যাচ। আহমেদাবাদের নরেন্দ্রে মোদী স্টেডিয়ামে ১০ ​উইকেটে ম্যাচ জিতেছে ভারতীয় দল। নরেন্দ্র মোদী ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলা ম্যাচটিতে স্পিনাররা আধিপত্য বিস্তার করেছিলেন। ভারতের পক্ষে যদিও অক্ষর প্যাটেল এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিন ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের ক্রিজে টিকতে দেননি। অন্যদিকে অধিনায়ক জো রুট ইংল্যান্ডের পক্ষ থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন এবং ভারতীয় ব্যাটসম্যানদেরকে একে একে আউট করছিলেন।

The Numbers Game: Sachin Tendulkar v James Anderson

রুটের মতো মাইকেল ভনও একবার নিজের স্পিন বোলিং দিয়ে ভারতীয় দলের উপর ভারী পড়েছিলেন। ২০০২ সালে ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যে ম্যাচটি ট্রেন্ট ব্রিজে চলছিল। বল ছিল মাইকেল ভনের হাতে এবং তার মুখোমুখি ছিলেন ভারতের তারকা ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকর। মাস্টার ব্লাস্টার তখন ৯২ রানে খেলছিলেন। মাইকেল ভন বলটি অফ স্টাম্পের বাইরে ফেলেছিলেন, কিন্তু বল টার্ন নিয়ে ব্যাটের মাঝখান দিয়ে গিয়ে স্টাম্পকে আঘাত করে।

শচীন আবারও নার্ভাস নব্বইয়ের ঘরে বোলারের শিকার হয়েছিলেন। একই সাথে ভন এবং ইংল্যান্ডের দল উদযাপন করছিল। যদিও সেই ম্যাচে শচীন কোনও সেঞ্চুরি পূর্ণ করতে পারেননি, তবুও টিম ইন্ডিয়া ৮ উইকেটে ৪২৪ রান করে ডিক্লেয়ার করে। ওই ম্যাচে ১১৪ রান করেছিলেন রাহুল দ্রাবিড়। এই টেস্ট ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত ড্র হয়েছিল।

নিজের স্পিনে যখন মাইকেল ভন শচীন তেন্ডুলকরকে চমক দিয়েছিলেন, দেখুন ভিডিও 2

বলা বাহুল্য, এই টেস্টে শুরু থেকেই ভারতীয় স্পিনারদের মতো ইংল্যান্ড স্পিনাররাও আধিপত্য বিস্তার করেছে। ভারত ম্যাচ জিতলেও ব্যাটসম্যানদের প্রদর্শন খুব একটা ভালো নয়। পিচ নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যে খেলা তৃতীয় টেস্ট ম্যাচের পিচ নিয়ে প্রতিনিয়ত প্রশ্ন উত্থাপন করা হচ্ছে। পাঁচ দিনের টেস্ট ম্যাচটি শেষ হয়েছে মাত্র দুই দিনের মধ্যে। ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে দুটি সেশনে ১৭টি উইকেট পড়েছিল। তবে ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট এবং রোহিত শর্মা পিচটি নিয়ে ডিফেন্ড করেছেন। প্রাক্তন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান সুনীল গাভাস্কারও এই পিচটি নিয়ে ইতিবাচক কথা বলেছিলেন এবং বলেছিলেন যে এটি এমন একটি পিচ যা উইকেট বাঁচানোর জন্য খেলতে হবে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *