গৌতম গম্ভীরের কারণেই ফের ফর্ম হারালেন বিরাট কোহলি? কিউইদের বিপক্ষে রান না পাওয়ায় ভাইরাল পুরনো ট্যুইট !! 1

নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে একদিনের সিরিজের শেষ ম্যাচে আজ মাঠে নেমেছে ভারতীয় দল। হায়দ্রাবাদ এবং রায়পুরের ম্যাচ জিতে ইতিমধ্যেই সিরিজ জিতে নিয়েছে ভারতীয় দল। আজ ইন্দোরের হোলকার স্টেডিয়ামে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচ জিতে প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করার লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নেমেছে ‘টিম ইন্ডিয়া।’ ম্যাচে টসে জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন কিউই অধিনায়ক টম ল্যাথাম। সাম্প্রতিককালে বেশ ভালো ব্যাটিং পারফর্ম্যান্স দেখিয়েছে ‘মেন ইন ব্লু।’ ধারাবাহিকতা বজায় রেখে বড় রান আজও তুলে নিলো ভারত। জোড়া শতরান দেখা গেলো রোহিত শর্মা (Rohit Sharma এবং শুভমান গিলের (Shubman Gill) থেকে। অর্ধশতরান করেন হার্দিক পান্ডিয়াও। পঞ্চাশ ওভারের শেষে ৩৮৫ রান স্কোরবোর্ড যোগ করে ভারতীয় দল। টপ অর্ডারের ব্যাটারদের সাফল্যের দিনে আজ শান্ত থাকলো বিরাট কোহলির (Virat Kohli) ব্যাট। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে যেভাবে বছরটা শুরু করেছিলেন বিরাট, নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পুরো বিপরীত চিত্র দেখা গেলো কোহলির ব্যাট থেকে। হঠাৎ ছন্দ হারালেন কেনো ‘কিং কোহলি?’ ভারতীয় দলের সমর্থকরা কিনা দোষ দিচ্ছেন প্রাক্তণী গৌতম গম্ভীরকে (Gautam Gambhir)।

নিউজিল্যান্ড সিরিজে ফর্ম হারালেন বিরাট কোহলি-

Virat Kohli | image: twitter
Virat Kohli scored only 55 runs in the ODI series against New Zealand

২০১৯ এর পর থেকে দীর্ঘদিন ফর্ম নিয়ে সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়েছিলো বিরাট কোহলিকে (Virat Kohli)। প্রায় তিন বছর তাঁর ব্যাটে শতরানের দেখা পান নি বিশ্বের ক্রিকেট অনুরাগীরা। ২০২২ সালের মাঝামাঝি সময় অন্ধকার অধ্যায় কাটিয়ে আলোয় ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তিনি। এশিয়া কাপে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে দুর্দান্ত শতরান করেন। টি-২০ বিশ্বকাপেও ৯৯ গড়ে ব্যাটিং করে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হন। বছরের শেষ একদিনের ম্যাচে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে কেরিয়ারের ৪৪তম ODI সেঞ্চুরিও সম্পূর্ণ করেন। ২০২৩ এর শুরুটাও দারুণভাবে করেছিলেন তিনি। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে তিনটি একদিনের ম্যাচের দু’টিতে শতরান করেন বিরাট (Virat Kohli)। প্রথম ম্যাচে গুয়াহাটিতে করেন ১১৩ এবং তৃতীয়টিতে তিরুঅনন্তপুরমের গ্রিনফিল্ড স্টেডিয়ামে করেন ১৬৬*। ৩ ম্যাচে ২৮৩ রান করে সিরিজের সেরা ক্রিকেটারও নির্বাচিত হন। বিশ্বকাপের আগে কোহলির আগুনে ফর্ম স্বস্তি দিয়েছিলো ভারত সমর্থকদের। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে মাঠে নামতেই সেই সোনালি অধ্যায় যেন অতীত। হায়দ্রাবাদে প্রথম ম্যাচে করেন ৮, দ্বিতীয় ম্যাচে করেন ১১ এবং আজ করলেন ৩৬। তিন ম্যাচে তাঁর মোট রান মাত্র ৫৫। রানের পর্বতচূড়া থেকে এমন অতল খাদে কি করে তলিয়ে গেলো কোহলির (Virat Kohli) ফর্ম? উত্তর খুঁজতে মরিয়া ভক্তেরা। তাঁদের তোপের মুখে গৌতম গম্ভীর (Gautam Gambhir)।

বিরাটের ফর্ম হারানোর পেছনে ‘অপয়া’ গম্ভীর ?

Kohli and Gambhir | image: twitter
Virat Kohli fans are blaming Gambhir for the sudden dip in Kohli’s form.

গৌতম গম্ভীরের সাথে বিরাট কোহলির যে একটা ঠান্ডা লড়াই রয়েছে তা জানেন দেশের ক্রিকেট অনুরাগীরা। এর আগেই মাঠেই একাধিকবার ঝামেলায় জড়িয়েছেন দিল্লীর দুই ক্রিকেটতারকা। খেলা ছাড়ার পর এখন ধারাভাষ্যকার এবং বিশেষজ্ঞ হিসেবে নানা সংস্থার সঙ্গে যুক্ত গম্ভীর (Gautam Gambhir)। খেলা নিয়ে আলোচনার সময় গম্ভীর যে সাধারণত মন খুলে কোহলির (Virat Kohli) প্রশংসা করেন না, সুযোগ পেলেই বরং বেঁধেন সমালোচনার তীরে, তা নজর এড়ায় নি ভক্তদের। টি-২০ বিশ্বকাপে এক মহাকাব্যিক ৮২* রানের ইনিংস খেলে পাকিস্তানকে একার হাতে হারিয়েছিলেন বিরাট। গ্রুপ পর্বের অন্য একটি খেলায় দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৬৪ রান করেছিলেন সূর্যকুমার যাদব (Suryakumar Yadav)। সেই ম্যাচটি হেরেছিলো ভারত। বিরাটের ম্যাচ জেতানো ৮২ নয়, বরং সূর্যকুমারের ইনিংসটিকেই কোনো ভারতীয়ের খেলা সর্বকালের সেরা টি-২০ ইনিংস বলেছিলেন গম্ভীর। এই নিয়েও একপ্রস্থ বিতর্ক হয়েছিলো সেই সময়। এহেন গম্ভীর’কে শ্রীলঙ্কা সিরিজের পর বিরাটের (Virat Kohli) অকুন্ঠ প্রশংসা করতে শোনা যায়। ৩ ম্যাচে বিরাট ২৮৩ করার পর ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় গম্ভীর বলেন, “এই বছরটা বিরাটের জীবনের সেরা বছর হবে।” আর তারপরেই রানের দেখা নেই কোহলির (Virat Kohli) ব্যাটে। কড়া সমালোচকের প্রশংসা পেয়েই আসলে দুর্ভাগ্যের স্বীকার হয়েছেন ‘টিম ইন্ডিয়া’র তারকা ব্যাটসম্যান, এমন অভিযোগ তুলেই গম্ভীরের দিকে তোপ দেগেছেন ফ্যানেরা।

Leave a comment

Your email address will not be published.