দুই দিনের কম সময়ে ইংল্যান্ডকে হারিয়েও খুশি নন বিরাট কোহলি, এই ব্যর্থতা নিয়ে উগড়ালেন ক্ষোভ 1

দুই দিনও শেষ হয়নি, তাঁর মধ্যেই শক্তিশালী একটি ইংল্যান্ড দলকে হারিয়ে নজির গড়ল টিম ইন্ডিয়া। এই জয়ের ফলে এক দিকে সিরিজে এগিয়ে গেল টিম ইন্ডিয়া, অন্যদিকে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ওঠার ক্ষেত্রে বড় ধাপ এগোল তারা। দুর্দান্ত স্পিন বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি ইংরেজ ব্যাটসম্যানরা। কিন্তু তা সত্ত্বেও ভারতের এমন দুর্ধর্ষ পারফর্মেন্সে পুরোপুরি খুশি নন খোদ অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

Image

পোস্ট ম্যাচ প্রেজেন্টেশনে এসে বিরাট বলেছেন, “সত্যি বলতে গেলে, আমি মনে করি না ব্যাটিংয়ের মানটি উচ্চমানের ছিল। আমরা ১০০ রানে তিনটি উইকেট হারিয়েছিলাম এবং তারপরে ১৫০ এরও ক,এ আউট হয়েছি। কেবলমাত্র একটি অন্যরকম বল ঘুরছিল এবং প্রথম ইনিংসে ব্যাট করা সহজ ছিল। অবাক করা বিষয় ছিল যে ৩০টির মধ্যে ২১টি ডেলিভারি উইকেটে পড়ে সোজা হয়ে গিয়েছিল। টেস্ট ক্রিকেট আপনার ডিফেন্সকে আত্মবিশ্বাসী করার পরীক্ষা। প্রয়োগের অভাবে ম্যাচটি এত তাড়াতাড়ি শেষ হয়েছে।”

Image

এরপর কোহলি বলেন, “জসপ্রীত বুমরাহ বলেছিলেন যে খেলার সময় আমাকে ওয়ার্কলোড হবে। ইশান্ত শর্মা বলেছিলেন যে আমি আমার শততম ম্যাচ খেলছি এবং এখনও আমি বোলিং করতে পারছি না। আমি এর আগে কখনও এমন অভিজ্ঞতা লাভ করিনি। এটি এমন একটি উদ্ভট খেলা যা দুই দিনের মধ্যে শেষ হয়েছে।”

Image

ম্যান অফ দ্য ম্যাচ অক্ষর প্যাটেলের প্রসঙ্গে বিরাট কোহলি বলেছেন, “জাড্ডু (রবীন্দ্র জাদেজা) আহত হলে অনেক লোক স্বস্তি পেয়েছিল। কিন্তু তারপরে এই ছেলেটি (অক্ষর প্যাটেল) এসে দুর্দান্ত ভঙ্গিতে বল করে। আমি জানি না এটি গুজরাটের সাথে কি হয়েছে এবং কি করে এত বাঁ হাতি স্পিনার তৈরি করছে। আপনি কেবল এই লোকটিকে সুইপ করতে পারবেন না, আপনি এনাকে ডিফেন্সও করতে পারবেন না কারণ তিনি আপনাকে কেবল বোলিং করে যাবেন। উইকেটে যদি কিছু থাকে তবে সেখানে অক্ষর খুব মারাত্মক।”

Image

সব শেষে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের প্রশংসা করে বিরাট কোহলি বলেছেন, “আমি মনে করি আমাদের উঠে দাঁড়াতে হবে এবং অশ্বিন কী করেছে তা খেয়াল করা উচিত। টেস্টে তিনি আধুনিক সময়ের কিংবদন্তি। অধিনায়ক হিসাবে আমি খুব খুশি যে তিনি আমার দলে রয়েছেন। আমরা একটি কঠিন ম্যাচের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। এই ব্যস্ত সময়সূচি থেকে কিছুটা অতিরিক্ত বিরতি সব সময় স্বাগত।”

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *