Team India: ছয় বছর ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে এই নজরকাড়া খেলোয়াড়, অবসরই এখন একমাত্র রাস্তা! 1

Team India: ভারতীয় ক্রিকেট দলের বোলাররাও তাদের গতি ও দক্ষতার দাপট সারা বিশ্বে খেলেছে। ভারত ক্রিকেট বিশ্বকে অনেক মারাত্মক বোলার দিয়েছে। ২০১১ সালেও ভারতীয় ক্রিকেট দলে একজন মারাত্মক বোলার জায়গা করে নেন যিনি তার গতি দিয়ে সবার নজর কেড়েছিলেন। এই খেলোয়াড় ধোনির অধিনায়কত্বে টিম ইন্ডিয়ার হয়ে মাঠে নামেন। কিন্তু ৬ বছরেরও বেশি সময় ধরে এই খেলোয়াড় টিম ইন্ডিয়ার বাইরে এবং এখন প্রত্যাবর্তনও অসম্ভব বলে মনে হচ্ছে।

বছরের পর বছর জাতীয় দলে সুযোগ পাননি

Team India: ছয় বছর ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে এই নজরকাড়া খেলোয়াড়, অবসরই এখন একমাত্র রাস্তা! 2

২০১১ সালে এই মারাত্মক বোলারটি তার গতির ওপর ভর করে বড় বড় ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলেছিলেন। এই বোলার আর কেউ নন, তিনি বরুণ অ্যারন। ২০১১ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে অভিষেক হয় বরুণ অ্যারনের। তার কেরিয়ারের শুরুটাও খুব ভালো ছিল। কিন্তু এখন তিনি টিম ইন্ডিয়া থেকে অনেকটাই দূরে তিনি। বরুণ অ্যারনের চোটও তাকে অনেক কষ্ট দিয়েছিল যার কারণে তিনি একটানা টিম ইন্ডিয়ায় জায়গা করে নিতে পারেননি।

দেশের হয়ে শেষ ম্যাচ খেলেন ২০১৫ সালে

Team India: ছয় বছর ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে এই নজরকাড়া খেলোয়াড়, অবসরই এখন একমাত্র রাস্তা! 3

২০১৫ সালে টিম ইন্ডিয়ার হয়ে শেষ ম্যাচ খেলেছিলেন বরুণ অ্যারন। টিম ইন্ডিয়ার হয়ে ৯ টেস্ট ম্যাচে ১৮ উইকেট নিয়েছেন বরুণ অ্যারন। একই সঙ্গে ৯টি ওয়ানডেতে নিয়েছেন ১১ উইকেট। কিন্তু এই খেলোয়াড়ের কেরিয়ারের গ্রাফ একেবারে নিচের দিকে যেতে থাকে। ক্রিকেট পন্ডিতরা তাকে ভারতীয় দলে অনেক দিন ধরেই দেখেছিলেন। কিন্তু এর পর চোট তাকে সমস্যার মুখে ফেলে এবং এরপর আর দলে ফিরতে পারেননি তিনি।

আইপিএল ২০২২-এ চ্যাম্পিয়ন হন

Team India: ছয় বছর ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে এই নজরকাড়া খেলোয়াড়, অবসরই এখন একমাত্র রাস্তা! 4

বরুণ অ্যারনের ক্রিকেট কেরিয়ার এখন শেষের পথে কারণ বরুণ দীর্ঘদিন ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে রয়েছেন। বরুণ অ্যারন আইপিএল ২০২২-এ গুজরাট টাইটানসের (GT) অংশ ছিলেন। এই মরশুমে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে গুজরাট টাইটান্স (জিটি)। মরশুমের প্রথম ম্যাচে খেলার সুযোগ পেলেও এই মরশুমটা তার জন্য আহামরি ছিল না। এই মরশুমে তিনি ২ ম্যাচ খেলে ১০.৪০ ইকোনমিতে মাত্র ২টি উইকেট নেন। বরুণ অ্যারন আইপিএলে ৫২টি ম্যাচ খেলেছেন এবং ৮.৯৪ ইকোনমিতে ৪৪টি উইকেট নিয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.