TOP 3: এই ৩ ক্রিকেটারের ওপর আস্থা দেখিয়ে সমস্যায় পড়তে হতে পারে গুজরাত টাইটান্স'কে !! 1
Prev1 of 3
Use your ← → (arrow) keys to browse

TOP 3:  নতুন দল হিসেবে নিজেদের প্রথম বছরেই আইপিএল ট্রফির স্বাদ পেয়েছিলো গুজরাত টাইটান্স। ২০২৩-এ সাফল্য ধরে রাখা’ই এখন লক্ষ্য তাদের। হার্দিক পান্ডিয়া’র নেতৃত্বে নিজেদের দ্বিতীয় বছরে দ্বিতীয় ট্রফি’র লক্ষ্যে ঝাঁপানোর আগে নিজেদের গতবারের দলের অনেক’কে ধরে রাখার সিদ্ধান্ত নিলো তারা। কথায় আছে কোনোকিছু যখন ঠিকঠাক কাজ করছে তখন বদলের কি দরকার? সেই পন্থায় আস্থা রাখলেন গুজরাত ফ্র্যাঞ্চাইজি’র থিঙ্ক ট্যাঙ্ক। মোট ১৭ জন ক্রিকেটার’কে ‘রিটেন’ করেছে তারা। মোট ৬ জন’কে বাতিল করে তারা। গুজরাত থেকে ‘ট্রেডিং’ পদ্ধতি’তে বিদায় নিয়েছেন কিউই পেসার লকি ফার্গুসন এবং আফগান উইকেটরক্ষন রহমানুল্লাহ গুরবাজ। গুজরাতের হাতে এখন রয়েছে ১৯.২৫ কোটি টাকা। অধিকাংশ পুরনো খেলোয়াড়দের ওপর ভরসা দেখালেও ৩ জন এমন ক্রিকেটার রয়েছে গুজরাত দলে যাঁদের ওপর দলের ভরসা ‘ব্যুমেরাং’ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

বিজয় শঙ্কর

Vijay Shankar | image: twitter
Vijay Shankar went though a ‘lean patch’ in IPL 2022

ভারতীয় দলে রবীন্দ্র জাদেজা’র উত্তরসূরী ভাবা হয়েছিলো তাঁকে একসময়। তামিলনাড়ুর বিজয় শঙ্কর (Vijay Shankar) জায়গা করে নিয়েছিলেন ভারতের ২০১৯ সালের একদিনের বিশ্বকাপ দলে। তাঁকে নিয়ে তৎকালীন নির্বাচক প্রধান এম এস কে প্রসাদের করা সেই ‘থ্রি ডি প্লেয়ার’ উক্তি এখনো ভারতীয় ক্রিকেটমহলে কান পাতলে শোনা যায়। তবে ব্যাটিং, বোলিং বা ফিল্ডিং, ক্রিকেট খেলা’র কোনো দিকেই সময়টা বিশেষ ভালো কাটছে না বিজয় শঙ্করের। ভারতীয় দল থেকে বাদ পড়েছিলেন আগেই। ২০২২ মেগা নিলামের আগে তাঁকে রাখে নি তাঁর পুরনো দল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ’ও। নিলামে তাঁর জন্য ঝাঁপায় নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি গুজরাত টাইটান্স। নতুন দলে গিয়ে ফর্মে বদল আসবে বিজয়ের, এমনটাই আশা করেছিলেন সবাই। কিন্তু বাস্তবে তা দেখা যায় নি। শুরুতে নিয়মিত প্রথম একাদশে সুযোগ পেলেও খারাপ পারফর্ম্যান্স করে মাত্র ৪ ম্যাচ পরেই দল থেকে বাদ পড়েন শঙ্কর। করেন মাত্র ১৯ রান। গড় ৪.৭৫। বোলিং-এ আরও করুণ দশা তাঁর। চারটি ম্যাচ খেলে পান নি একটিও উইকেট। এই রকম হতশ্রী পারফর্ম্যান্সের পর মনে করা হয়েছিলো তাঁকে বাতিল করে দেবে গুজরাত, কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে তাঁকে ধরে রাখার দিকেই এগিয়েছে গুজরাত থিঙ্কট্যাঙ্ক। শঙ্করের ফর্মের যদি তেমন কোনও উন্নতি না হয় তা হলে তাঁর প্রতি দলের আস্থা ‘ব্যুমেরাং’ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

Prev1 of 3
Use your ← → (arrow) keys to browse

Leave a comment

Your email address will not be published.