স্টিভ স্মিথ পেয়েছিলেন ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের হয়ে খেলার আমন্ত্রণ, এই কারণে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন কোটি টাকার অফার

অস্ট্রেলিয়ার (Australia) সর্বশ্রেষ্ঠ ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একজন স্টিভ স্মিথ (Steve Smith) গত ছয় বছরের বেশি সময় ধরে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট দলের (Australia Cricket Team) মেরুদণ্ড হয়ে থেকেছেন। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান নিজের কেরিয়ারের শুরু লেগ স্পিনার হিসেবে করেছিলেন। তিনি ধীরে ধীরে নিজেকে একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে বদলেছেন। গত কয়েক বছরে স্মিথ দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের সৌজন্যে আইসিসি টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন। এর আগে তিনি দীর্ঘদিন পর্যন্ত র‍্যাঙ্কিংয়ে প্রথম স্থানে ছিলেন।

এতে কোনো দ্বিমত নেই যে স্টিভ স্মিথ অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের একজন গুরুত্বপুর্ণ সদস্য আর তিনি বর্তমানে টেস্ট আর একদিনের ক্রিকেটে নিজের দলের সবচেয়ে সফলতম ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একজন। কিন্তু আপনারা কী জানেন যে স্টিভ স্মিথের কাছে ইংল্যাণ্ড ক্রিকেট দলের (England Cricket Team) হয়ে খেলার আমন্ত্রণ এসেছিল। যদি না জেনে থাকেন চলুন জেনে নেওয়া যাক।

স্মিথ পেয়েছিলেন ইংল্যান্ডের হয়ে ক্রিকেট খেলার আমন্ত্রণ

Steve Smith revealed why he chose to play international cricket for Australia instead of England

 

স্মিথ বিশ্বে বেশ কিছু ক্রিকেট সমর্থকদের প্রথম পছন্দ। স্মিথের ক্রিকেট কেরিয়ারের সঙ্গে সম্পর্কিত তথ্য সমর্থকদের মনে থাকে। অন্যদিকে কিছু ক্রিকেট সমর্থক এমনও রয়েছেন যারা জানেনই না যে স্টিভ স্মিথ অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের আগে ইংল্যান্ডের হয়ে খেলার অফার পেয়েছিলেন। তিনি সারে ক্লাবের হয়ে তিন বছরের চুক্তি পেয়েছিলেন। তার কাছে অস্ট্রেলিয়ান আর ব্রিটীস  পাসপোর্ট ছিল আর তিনি ইংল্যান্ডে কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে পারতেন। আসলে স্টিভ স্মিথ নিজের আত্মজীবনী The Journey: My Story, from Backyard Cricket To Australian Captain  এ এই ব্যাপারে খোলসা করে লিখেছেন,

“আমাকে এটা ঠিক করতে হত যে আমি কী নিউ সাউথ ওয়েলস আর শেষে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলার উচ্চাকাঙ্খা নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই না ইংলিশ কাউন্টি সারের সঙ্গে যেতে চাই আর ইংল্যান্ডের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার সম্ভাবনাকে তাড়া করতে চাই? সারে ক্লাব ব্রিটিশ পাসপোর্ট ধারক হিসেবে আমার পরিস্থিতির ব্যাপারে জানত আর এই কারণে আমার কাছে ইংল্যান্ডের প্রাক্তন ওপেনিং ব্যাটসম্যান আর ইংল্যান্ডের সতীর্থ মার্ক বুচারের বাবা অ্যালান বুচারের কাছ থেকে তিন বছরের চুক্তি পেশ করে একটি ফোন এসেছিল। আমি জীবনে কখনও এত টাকার কল্পনা করিনি। যদি টাকার কথা হত তাহলে কোনো প্রতিযোগীতা ছিল না। সারে আমাকে প্রতি বছর প্রায় ৩০,০০০ পাউন্ডের সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি পেশ করছিল”।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে করেছিলেন প্রথম সেঞ্চুরি

Steve Smith's First Test Century Against England

প্রসঙ্গত, স্টিভ স্মিথ অস্ট্রেলিয়া ফেরার সিদ্ধান্ত নেন আর তিনি প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ নিউ সাউথ ওয়েলসের হয়ে খেলেন। তিনি ২০১০ সালে ক্রিকেটের তিনটি ফর্ম্যাটেই নিজের ইনিংস শুরু করেছিলেন। অন্যদিকে ২০১১ বিশ্বকাপে তিনি অস্ট্রেলিয়া দলের সদস্য ছিলেন। স্টিভ স্মিথ নিজের টেস্ট সেঞ্চুরি ২০১৩ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে করেছিলেন আর তারপর থেকে আর কখনও পেছনে ফিরে তাকাননি।

Leave a comment

Your email address will not be published.