আদালত কক্ষে বড় ধাক্কা খেলেন ক্রিকেট তারকা মহম্মদ শামি ! আইনি লড়াইয়ে শেষ হাসি হাসিনেরই !! 1

ভারতীয় দলের পেসার মহম্মদ শামি’র সাথে সম্পর্কের তিক্ততা দিন বেড়েই বেড়েই চলেছে হাসিন জাহানের। তাঁরা একসাথে থাকেন না বহুদিন। একে অন্যকে নানান অভিযোগের তীরে বিদ্ধ করেছেন এর মধ্যে। বিষয়টি গড়িয়েছে আইন আদালত অব্দি। এবার সেই আদালতেই খানিক স্বস্তি পেলেন হাসিন জাহান। বীরভূমের সিঊড়ির মেয়ে হাসিন জাহান  (Hasin Jahan) পেশায় একজন মডেল এবং অভিনেত্রী। ২০১৪ সালে ভারতীয় দলের পেসার শামি এবং হাসিন বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। তাঁদের একটি ছোটো মেয়েও আছে। সুখের সংসারে ভাঙন ধরে কয়েক বছরের মধ্যেই। ফেসবুকে বেশ কিছু চ্যাট শেয়ার করে হাসিন তাঁর সুপারস্টার স্বামীর বিরুদ্ধে পরকীয়ার অভিযোগ আনেন। তুলকালাম পড়ে যায় ভারতের ক্রিকেট্মহলে। এরপর এক সাক্ষাৎকারে পালটা হাসিনের নামেও কিছু কথা বলেছিলেন শামি। সেই থেকেই শামিভক্তদের নিশানায় তিনি। পারিবারিক অশান্তি চরম সীমায় পৌঁছানোয় আদালতে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা করেছিলেন হাসিন (Hasin Jahan) । সাথে ক্রিকেট তারকার থেকে চেয়েছিলেন খোরপোশ’ও। সেই সংক্রান্ত মামলাতেই রায় দিলো কলকাতার আলিপুর ডিস্ট্রিক্ট আদালত।

মহম্মদ শামির থেকে খোরপোশের দাবী করেন হাসিন-

Mohammed Shami | image: twitter
Hasin Jahan wanted to divorce Indian cricket star Mohammed Siraj

২০১৮ সালে আদালতে ক্রিকেট তারকা মহম্মদ শামি’র (Mohammed Shami) থেকে প্রতি মাসে দশ লক্ষ টাকা খোরপোশ দাবী করে মামলা করেন হাসিন জাহান। এর মধ্যে ৭ লক্ষ টাকা তাঁর ব্যক্তিগত ভরণপোষণের কাজে ব্যবহার হবে। আর বাকি ৩ লক্ষ থাকবে তাঁদের শিশুকন্যার ভরণপোষণের জন্য। জানিয়েছিলেন হাসিন। আদালতে হাসিনের আইনজীবী মৃগাঙ্ক মিস্ত্রী ভারতীয় দলের পেসার মহম্মদ শামির (Mohammed Shami) ২০২০-২০২১ সালের অর্থবর্ষের উপার্জনের নিরিখে এই অর্থ দাবী করেন। আদালতকে হাসিন (Hasin Jahan) ও তাঁর আইনজীবী জানান যে বার্ষিক ৭ কোটি টাকার কাছাকাছি উপার্জন করেন শামি। সেই হিসেবে মাসিক ১০ লক্ষ টাকা খোরপোশ দেওয়া তাঁর পক্ষে অসম্ভব নয়। আইনি লড়াইতে পিছু হটেন নি মহম্মদ শামিও। আলিপুর জেলা আদালতে শামির (Mohammed Shami) আইনজীবী সেলিম রহমান দাবী করেন যেহেতু মডেল এবং অভিনেত্রী হিসেবে হাসিনের (Hasin Jahan)  নিজস্ব নিয়মিত উপার্জন রয়েছে্‌, সেহেতু এত বেশী পরিমাণ অর্থ খোরপোশ হিসেবে তিনি দাবী করতে পারেন না। দীর্ঘ টালবাহানার পর অবশেষে এই মামলায় রায় জানালেন মহামান্য আদালত।

রায় জানিয়ে দিলো আদালত-

Hasin Jahan | image: twitter
Mohammed Shami ordered to pay monthly alimony to estranged wife Hasin Jahan by court

এর আগেও মানহানির মামলায় হাসিন জাহানের পক্ষে রায় দিয়েছিলেন মহামান্য আদালত। হাসিন (Hasin Jahan)  ও তাঁর শিশুকন্যার বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল যাবতীয় বিদ্বেষমূলক পোস্ট মুছে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়। এই মর্মে আদালতের নোটিশও যায় ফেসবুক, ইউটিউবের মত ওয়েবসাইটগুলির কাছে। খোরপোশ মামলাতেও শামি নয়, বরং শেষ হাসি হাসলেন হাসিন জাহান’ই। স্ত্রী’র সাথে না থাকলেও তাঁকে ভরণপোষণের জন্য মাসিক অর্থ পাঠাতে হবে শামি’কে (Mohammed Shami)। জানিয়ে দিয়েছে মহামান্য আদালত। তবে হাসিনের (Hasin Jahan)  দশ লক্ষ টাকার দাবী যুক্তিযুক্ত নয় বলেই মনে করেছে আদালত। পরিবর্তে ভারতীয় দলের ক্রিকেট তারকাকে মাসিক ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা হাসিনকে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৫০০০০ টাকা হাসিন ব্যাক্তিগত ভরণপোষণের কাজে ব্যবহার করতে পারবেন। বাকি ৮০০০০ টাকা ব্যবহার করা যাবে শামি এবং হাসিনের শিশুকন্যার ভরণপোষণের কাজে। সম্পূর্ণ দাবীপূরণ না হলেও মহামান্য আদালতের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন হাসিন জাহান (Hasin Jahan) । খোরপোশের অর্থ আরও খানিক বেশী হলে ভালো হত, তবে আদালতে সিদ্ধান্তে তিনি খুশি বলেই জানিয়েছেন হাসিন। তবে ভারতীয় ক্রিকেট তারকার কোনো প্রতিক্রিয়া এখনও পাওয়া যায় নি। শামি (Mohammed Shami) বর্তমানে ভারতীয় দলের হয়ে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ক্রিকেট খেলতে ব্যস্ত রয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.