IPL এর উন্নতি সহ্য হচ্ছে না পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের, একের পর এক নিয়মিত ওগরাচ্ছেন বিষ

আপনারা সেই প্রবাদ নিশ্চই শুনে থাকবেন যে ‘ঘুঁটে পোড়ে গোবর হাসে’, তেমনই হাল আইপিএলের। প্রত্যেক মরশুমে এই টুর্নামেন্টের মাধ্যমে বিসিসিআই মোটা টাকা রোজগার করছে। সম্প্রতিই বিসিসিআই আইপিএল ২০২৩-২৭ এর মিডিয়া রাইটস ৪৮,০০০ কোটি টাকায় বিক্রি করেছে। যা নিয়ে নিয়মিত এই টুর্নামেন্ট আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে রয়েছে।

ই-নিলামে ডিজনি স্টার ২৩,৫৭৫ কোটি টাকায় টিভি রাইটস কিনেছে অন্যদিকে রিলায়েন্সের ভায়োকম ১৮ ২০,৫০০ কোটি টাকায় আর ৩,২৫৮ কোটি টাকায় প্যাকেজ সি এর ডিজিটাল রাইটস কিনেছে। অন্যদিকে পাকিস্তান ক্রিকেট আইপিএলের এই উন্নতি সহ্য করতে পারছে না, আর তারা একের পর এক এই ভারতীয় টুর্নামেন্টের বিরুদ্ধাচারণ করে চলেছেন।

আইপিএলের মিডিয়া রাইটস বিক্রি হওয়ার পর পাকিস্তানের প্রকাতন তারকা ক্রিকেটারদের যেনো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে, বা এটা বলা যেতে পারে আইপিএলের এই উন্নতি তারা সহ্য করতে পারছেন না। এই কারণে এই লীগ নিয়ে কেউ না কেউ নিয়মিত প্রতিক্রিয়া দিয়ে চলেছেন। এখন এই তালিকায় পাকিস্তানী প্রাক্তন অধিনায়ক রশিদ লতিফের নামও যোগ হয়েছে।

আইপিএল স্রেফ বিজনেস – রশিদ লতিফ

IPL এর উন্নতি সহ্য হচ্ছে না পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের, একের পর এক নিয়মিত ওগরাচ্ছেন বিষ 1

পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক রশিদ লতিফের বক্তব্য যে আইপিএল ক্রিকেট নয় শুধু মাত্র ব্যবসা। হ্যাঁ, যবে থেকে এই টুর্নামেন্টের মিডিয়া রাইটস নিলাম হয়েছে, তখন থেকেই পাকিস্তানী তারকাদের তরফে একের পর প্ররোচনামূলক বয়ান আসছে। এখন পাকিস্তানী প্রাক্তন অধিনায়ক রশিদ লতিফও এমন একটা বয়ান দিয়েছেন যে সমর্থকরা শুনলে ক্ষুব্ধ হতে পারেন। এই ব্যাপারে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে কথা বলতে গিয়ে লতিফ বলেন,

“এটা (আইপিএল) ক্রিকেটের ব্যাপার নয় বরং বিজনেসের ব্যাপার। এটা আদর্শ পরিস্থিত নয়। যদি আমাদের টাকা দিতে হয়, তাহলে বহু লোকই রোজগার করে। এটা গুণমানের ব্যাপার একদমই নেই বরং এটা সম্পূর্ণ একটা ব্যবসা”।

ভারতীয়দের জিজ্ঞাসা করো ওরা কত ঘণ্টা ম্যাচ দেখেছে- লতিফ

IPL এর উন্নতি সহ্য হচ্ছে না পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের, একের পর এক নিয়মিত ওগরাচ্ছেন বিষ 2

এখানেই থেমে থাকননি রশিদ লতিফ। তিনি আরও বলেন,

“ভারতীয়দের ডাকো আর তাদের জিজ্ঞাসা করো ওর কত ঘন্টা ম্যাচ দেখেছে। এটা ব্যবসা। আমি আর কিছু বলছি না। আপনি যাই নাম দিন, পণ্যের মূল্য দিন, এটা ব্যবসা। আমাদের দেখতে হবে এটা কতটা টিকে থাকে”।

আইপিএলের কথা ধরা হলে এই টুর্নামেন্টে দলের সংখ্যা ৮ থেকে বেড়ে ১০ হয়ে গিয়েছে। শুধু তাই নয় এই দাবিও করা হচ্ছে যে আগামীদিনে ম্যাচের সংখ্যা বেড়ে ৯৪ও হতে পারে।

গুজরাট টাইটান্স জিতেছে বর্তমান মরশুম

IPL এর উন্নতি সহ্য হচ্ছে না পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের, একের পর এক নিয়মিত ওগরাচ্ছেন বিষ 3

সম্প্রতিই শেষ হওয়া আইপিএল ২০২২ এর বর্তমান মরশুমে ৮ এর বজায় ১০টি দল মাঠে নেমেছিল। আর এই টুর্নামেন্টের রোমাঞ্চ সমর্থকদের মাতিয়ে রেখেছিল। মজার কথা হল এই বছর প্রথমবার আইপিএল ২০২২ এ ডেবিউ করা গুজরাট টাইটান্সের দল রাজস্থান রয়্যালসকে দারুণভাবে হারিয়ে দুর্দান্ত জয় হাসিল করে এই মরশুমের খেতাব জেতে।

Leave a comment

Your email address will not be published.