PAK vs SL: 'আন্ডারডগ' থেকে এশিয়া কাপ জয়, রূপকথার যাত্রায় পাকিস্তানকে বধ করে চ্যাম্পিয়নের মুকুট শ্রীলঙ্কার মাথায় !! 1

PAK vs SL: ভারত-পাকিস্তানের মতো তারকা দলগুলিকে পিছনে ফেলে এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। এশিয়া কাপের ১৫তম আসরের ফাইনালে পাকিস্তানকে ২৩ রানে হারিয়ে টুর্নামেন্টের ষষ্ঠ ট্রফি ঘরে তুলল শ্রীলঙ্কা। রবিবার সংযুক্ত আরব আমিরসাহীর দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাট করে ভানুকা রাজাপাকসের ৪৫ বলের ৭১ রানের ঝড়ো ইনিংসে ভর করে ৬ উইকেটে ১৭০ রান করে শ্রীলঙ্কা।

টার্গেট তাড়া করতে নেমে বিনা উইকেটে ২২ রান করা পাকিস্তান, এরপর শূন্য রানের ব্যবধানে পরপর দুই বলে বাবর আজম ও ফখর জামানের উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায়। তৃতীয় উইকেটে ইফতেখার আহমেদকে সঙ্গে নিয়ে ওয়ানডের স্টাইলে ব্যাটিং করে ৫৯ বলে ৭১ রানের জুটি গড়েন মোহাম্মদ রিজওয়ান।

PAK vs SL: 'আন্ডারডগ' থেকে এশিয়া কাপ জয়, রূপকথার যাত্রায় পাকিস্তানকে বধ করে চ্যাম্পিয়নের মুকুট শ্রীলঙ্কার মাথায় !! 2

২ উইকেটে ৯৩ রান করা পাকিস্তান এরপর ৫৪ রানের ব্যবধানে হারায় ৮ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায়। ইনিংসের শেষ দিকে নিয়মিত ব্যবধানে সাজঘরে ফেরেন ইফতেখার আহমেদ, মোহাম্মদ নওয়াজ, মোহাম্মদ রিজওয়ান, আসিফ আলি, খুশদিল শাহ, শাদাব খান, নাসিম শাহ ও হারিস রউফরা। শেষ দিকে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ের কারণে শেষ পর্যন্ত ১৪৭ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান।

এশিয়া কাপের ফাইনালে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রীলঙ্কা তুলেছিল ৬ উইকেটে ১৭০ রান। তাদের শুরুটা হয়েছিল খুবই বাজে। প্রথম ওভারেই নাসিম শাহর বলে ‘গোল্ডেন ডাক’-এর শিকার হন কুশল মেন্ডিস। ২৩ রানে হারিস রউফের বলে অন্য ওপেনার পাথুম নিশাঙ্কার (৮) বিদায়ে বিপদ আরও বাড়ে। দানুশকা গুনাথিলাকা ফিরেন ৪ বলে ১ রান করে। ৩৬ রানে ৩ উইকেট পড়লেও ধনাঞ্জয়ার আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে পাওয়ারপ্লেতে আসে ৪২ রান। ২১ বলে ৪ বাউন্ডারিতে ২৮ রানে ফিরেন ধনঞ্জয়। এরপর অধিনায়ক শানাকার (২) বিদায়ে ৫৮ রানে ৫ উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা।

PAK vs SL: 'আন্ডারডগ' থেকে এশিয়া কাপ জয়, রূপকথার যাত্রায় পাকিস্তানকে বধ করে চ্যাম্পিয়নের মুকুট শ্রীলঙ্কার মাথায় !! 3

এরপর পাল্টা আক্রমণ শুরু করেন হাসারাঙ্গা ডি সিলভা আর ভানুকা রাজাপাকসে। ৬ষ্ঠ উইকেট জুটিতে আসে ৩৫ বলে ৫৮ রান। হাসারাঙ্গা ২১ বলে ৫ চার ১ ছক্কায় ৩৬ রানে আউট হলেও ৩৫ বলে কেরিয়ারের তৃতীয় অর্ধশতরান তুলে নেন ভানুকা। নাসিম শাহর করা শেষ ওভারে আসে ১৫ রান। ৪৫ বলে ৬ চার ৩ ছক্কায় ৭১* রানে অপরাজিত থাকেন রাজাপাকসে। তার সঙ্গী চামিকা করুনারত্নে ১৪ বলে ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন। অবিচ্ছিন্ন সপ্তম উইকেট জুটিতে আসে ৩১ বলে ৫৪* রান। ২৯ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন হারিস রউফ। ১টি করে নেন নাসিম-শাদাব আর ইফতেখার।

Leave a comment

Your email address will not be published.