PAK vs ENG: ফাইনালে হেরেও দমছেন না বাবর আজম, "দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলেছি আমরা" বিদায়ের ক্ষণে জানালেন পাক অধিনায়ক!! 1

PAK vs ENG: ২০২২ টি-২০ বিশ্বকাপের যবনিকা পতন হলো আজ। ইংল্যান্ড না পাকিস্তান? কার হাতে উঠতে চলেছে মহামূল্যবান শিরোপা? আগ্রহ নিয়ে তাকিয়ে ছিলো গোটা ক্রিকেটবিশ্ব। ২০০৯ সালের চ্যাম্পিয়ন বনাম ২০১০ সালের খেতাবজয়ী’র লড়াই দেখতে মুখিয়ে ছিলো মেলবোর্ন। গ্রুপ পর্বে প্রথম দুই ম্যাচে হেরে বাইরে বিশ্বকাপের বাইরে চলে গিয়েছিলো পাকিস্তান। সেখান থেকে অবিশ্বাস্য কামব্যাক করেছে তারা। নেদারল্যান্ডস দক্ষিণ আফ্রিকা’কে হারানোয় যে লাইফলাইন পেয়েছিলেন শাহীন শাহ আফ্রিদি’রা, তা কাজে লাগিয়ে শিরোপা জিততে নিজেদের সর্বস্ব দিলেন বাবর আজম’রা। এই মেলবোর্নেই ইংল্যান্ড’কে হারিয়ে একদিনের বিশ্বকাপ ঘরে তুলেছিলেন ইমরান খান, ওয়াসিম আক্রম’রা। বাবর আজম, মহম্মদ রিজওয়ান’রা চেয়েছিলেন সেই সুদিন ফেরাতে। কিন্তু পারলেন না তাঁরা। এক ধাপ দূরেই থেমে গেলো স্বপ্নের দৌড়। পাকিস্তান’কে হারিয়ে টি-২০ বিশ্বকাপ জিতলো ইংল্যান্ড। ম্যাচ শেষে সাক্ষাৎকারে মনের ভাব ব্যক্ত করলেন বিজিত দলের অধিনায়ক বাবর আজম।

হারের হতাশার মাঝেও আলোর খোঁজে বাবর-

Babar Azam | image: twitter
Pakistan captain Babar Azam hailed his team’s ‘incredible’ performances in 2022 T20 World Cup

ফাইনাল হারার বেদনা শজেই অনুমেয়। তবু তিনি যে অধিনায়ক। ক্লান্ত, অবসন্ন দেহেও আসতে হয়েছিলো নিয়মরক্ষার সাক্ষাৎকার দিতে। ম্যাচ শেষে বিশ্বকাপের ‘রানার্স-আপ’ দলের অধিনায়ক বাবর আজমের গলায় আক্ষেপের সাথে সাথে আশার কথাও শুনতে পেলেন ক্রিকেটপ্রেমী’রা। শুরুতেই বাবর শুভেচ্ছা জানান জয়ী দল ইংল্যান্ড’কে। বলেন,“আমার অনেক শুভেচ্ছা ইংল্যান্ড’কে। যোগ্য দল হিসেবে ট্রফি জিতেছে ওরা।” হতাশা নিয়েও নিজেদের সমর্থকদের কথা ভোলেন নি পাকিস্তান অধিনায়ক, বলেন, “যেখানেই খেলতে গিয়েছি, মনে হয়েছে যেন ঘরের মাঠে খেলছি। মাঠে আসা সকল সমর্থকদের আমরা ধন্যবাদ জানাতে চাই।” পাকিস্তানের বিশ্বকাপ অভিযান নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে জানান, “হ্যাঁ আমরা প্রথম দুই ম্যাচে হেরে গেছিলাম, তবে তার পরের চার ম্যাচে আমরা যে  ক্রিকেট খেলেছি তা অনবদ্য” গর্বিত নেতার স্বর স্পষ্ট বাবরের বক্তব্যে। ফাইনালে স্ট্র্যাটেজি কি ছিল? সঞ্চালক জিজ্ঞাসা করেন বাবর’কে। উত্তরে তিনি জানান,“আমরা আমাদের স্বাভাবিক ক্রিকেট থেকে সরতে চাই নি। তবে দিনের শেষে বোর্ডে অন্তত ২০ রান কম তুলতে পেরেছিলো আমাদের দল।” পাকিস্তান বোলারদের লড়াইকে সন্মান জানিয়েছেন বাবর’ও। ” বল হাতে দারুণ লড়াই করে আমরা দেখালাম কেনো আমরা বিশ্বে অন্যতম সেরা বোলিং শক্তি!” যোগ করেছেন তিনি। “শাহীনের চোট পাওয়াটাই আমাদের বিরুদ্ধে গেলো, ওখানেই ম্যাচ থেকে ছিটকে গেলাম আমরা।” পরিশেষে আক্ষেপের সুর বাজলো বাবর আজমের গলায়।

Leave a comment

Your email address will not be published.