এই দ্বন্দ্বের লড়াইয়ে কোহলি দোষী নন, সৌরভ গাঙ্গুলিকে অভিযুক্ত করে ফের ঝামেলা বাড়িয়ে দিলেন রবি শাস্ত্রী 1

ভারতীয় দলের (Indian Team) অভ্যন্তরীণ বিবাদ এখনও থামছে বলে মনে হচ্ছে না। বিরাট কোহলির (Virat Kohli) অধিনায়কত্ব ছাড়ার পরে, রবি শাস্ত্রী (Ravi Shastri) কোনও না কোনও বিষয়ে সৌরভ গাঙ্গুলিকে (Sourav Ganguly) টার্গেট করে চলেছেন। তিনি আবারও সৌরভ গাঙ্গুলী এবং বিসিসিআই (BCCI)-কে নিয়েছিলেন। বিরাট কোহলির সমর্থনে সৌরভ গাঙ্গুলিকে নিশানা করলেন প্রাক্তন প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী। তিনি স্পষ্ট সুরে তার দায়িত্ব ঠিক করার দাবি জানান। শাস্ত্রী যখন কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ান, তখন থেকেই তিনি বড়সড় প্রকাশ করে চলেছেন। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের (T20 World Cup) পর দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। রবি শাস্ত্রীর কোচের অধীনে টিম ইন্ডিয়া একটিও আইসিসি টুর্নামেন্ট জিততে পারেনি।

সৌরভ গাঙ্গুলির স্পষ্ট করা উচিত

Sourav Ganguly feels Virat Kohli has every right to share his opinion on  coach selection | CricketTimes.com

শাস্ত্রীর মতে, শুধুমাত্র বিরাট কোহলিকে প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দিতে বাধ্য করা যাবে না। এর জন্য দায়ী সৌরভ গাঙ্গুলী ও ব্যবস্থাপনাও। ভালো সংলাপের মাধ্যমে বিতর্কের অবসান ঘটানো যেত কিন্তু তিনি তা করেননি। রবি শাস্ত্রী একটি ভিডিও সাক্ষাত্কারে বলেছিলেন যে বিষয়টি আরও ভাল যোগাযোগের মাধ্যমে পরিচালনা করা যেত। পাবলিক ডোমেইনে না এসে যোগাযোগ থাকলে ভালো হতো। বিরাট কোহলি জানিয়েছেন নিজের পক্ষের গল্প। এখন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলীর উচিত এ বিষয়ে স্পষ্ট করে তার পক্ষ জানানো।প্রশ্নটা নয় কে মিথ্যা বলছে, প্রশ্ন হচ্ছে সত্যটা কী। আমরা সত্য জানতে চাই।

কোহলির হ্যাঁ পেয়েও শাস্ত্রী বললেন

ICC Test Championship: Virat Kohli And Ravi Shastri Ready Or Not, Sourav  Ganguly Ready To Change India's Stand On Massive Issue

কোচিংয়ের সময় রবি শাস্ত্রীর বিরুদ্ধে কোহলির সঙ্গে হ্যাঁ মেশানোর অভিযোগ ওঠে। এ প্রসঙ্গে রবি শাস্ত্রী বলেন, “আমি এ ধরনের বিষয়কে গুরুত্ব দেই না। মানুষের কথা বলার, লেখার এবং অনুমান করার অধিকার আছে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে আমিও এতে অংশ নেব। বিরাট আর আমার একটা দারুণ সম্পর্ক ছিল। দুই সমমনা ব্যক্তি পেশাদার পদ্ধতিতে তাদের কাজ করছিল।” রবি শাস্ত্রী তার কোচিংকালে বহুবার ভুল দল নির্বাচনের অভিযোগের সম্মুখীন হয়েছেন। সিরিজের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ থেকে সিনিয়র খেলোয়াড়দের বাদ দেওয়া থেকে শুরু করে ফর্মে থাকা এই খেলোয়াড়দের উপেক্ষা করার মতো অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে তিনি বলেন, “একজন কোচ হিসেবে সবচেয়ে কঠিন কাজ হলো দল নির্বাচন, কিন্তু সাত বছরে আমি এই কাজে জড়িত ছিলাম, দলে খেলোয়াড় বাছাই করার কোনো এজেন্ডা আমার ছিল না। একেবারে শূন্য এজেন্ডা। আমার যদি মনে হয় কোনো খেলোয়াড় ফর্মে আছে, সে দলের জন্য ভালো, তাহলে অতীতের দিকে তাকালে আমি অধিনায়ক বা ম্যানেজমেন্টকে বলতাম।”

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *