IPL 2023:গুজরাত টাইটান্সের রিটেনশন লিস্টে বিজয় শঙ্কর !! এও কি সম্ভব ? ট্রলের ফোয়ারা ট্যুইটারভার্সে !! 1

IPL 2023: আইপিএলের আসন্ন ‘মিনি অকশন’ ঘিরে সরগরম ভারতের ক্রিকেটমহল। তার আগে ১৫ নভেম্বর ভারতের ক্রিকেট বোর্ডের কাছে তালিকা দিয়ে দলগুলোকে জানাতে হত কাদের ধরে রাখতে চলেছেন তারা আর কাদের পাঠাতে চলেছেন নিলামের হাতুড়ির তলায়। নতুন দল হিসেবে নিজেদের প্রথম বছরেই ট্রফির স্বাদ পেয়েছিলো গুজরাত টাইটান্স। ২০২৩-এ সাফল্য ধরে রাখা’ই এখন লক্ষ্য তাদের। হার্দিক পান্ডিয়া’র নেতৃত্বে নিজেদের দ্বিতীয় বছরে দ্বিতীয় ট্রফি’র লক্ষ্যে ঝাঁপানোর আগে নিজেদের গতবারের দলের অনেক’কে ধরে রাখার সিদ্ধান্ত নিলো তারা। কথায় আছে কোনোকিছু যখন ঠিকঠাক কাজ করছে তখন বদলের কি দরকার? সেই পন্থায় আস্থা রাখলেন গুজরাত ফ্র্যাঞ্চাইজি’র থিঙ্ক ট্যাঙ্ক। মোট ১৭ জন ক্রিকেটার’কে ‘রিটেন’ করেছে তারা। চ্যাম্পিয়ন দল যখন, এতজন খেলোয়াড়’কে ধরে রাখাই তাদের লক্ষ্য হবে, সেটাই স্বাভাবিক, তবে ‘রিটেনশন’ লিস্টের একটি নাম অবাক করেছে সমাজমাধ্যম ব্যাবহারকারীদের। হতশ্রী প্রদর্শনের পরেও কি করে টিকে গেলেন তিনি তা বুঝে পাচ্ছেন না কেউ। যে ক্রিকেটার’কে নিয়ে এত আলোচনা, তিনি আর কেউ নন,অলরাউন্ডার বিজয় শঙ্কর।

 কোন জাদুবলে টিকে গেলেন শঙ্কর? বুঝছেন না কেউ-

Vijay Shankar | image: Twitter
Twitter trolls Vijay Shankar after Gujarat Titans decide to retain him.

ভারতীয় দলে রবীন্দ্র জাদেজা’র উত্তরসূরী ভাবা হয়েছিলো তাঁকে একসময়। তামিলনাড়ুর বিজয় শঙ্কর জায়গা করে নিয়েছিলেন ভারতের ২০১৯ সালের একদিনের বিশ্বকাপ দলে। তাঁকে নিয়ে তৎকালীন নির্বাচক প্রধান এম এস কে প্রসাদের করা সেই ‘থ্রি ডি প্লেয়ার’ উক্তি এখনো ভারতীয় ক্রিকেটমহলে কান পাতলে শোনা যায়। তবে ব্যাটিং, বোলিং বা ফিল্ডিং, ক্রিকেট খেলা’র কোনো দিকেই সময়টা বিশেষ ভালো কাটছে না বিজয় শঙ্করের। ভারতীয় দল থেকে বাদ পড়েছিলেন আগেই। ২০২২ মেগা নিলামের আগে তাঁকে রাখে নি তাঁর পুরনো দল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ’ও। নিলামে তাঁর জন্য ঝাঁপায় নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি গুজরাত টাইটান্স। ১কোটি ৪০ লক্ষের বিনিময়ে নতুন দলে গিয়ে ফর্মে বদল আসবে বিজয়ের, এমনটাই আশা করেছিলেন সবাই। কিন্তু বাস্তবে তা দেখা যায় নি। শুরুতে নিয়মিত প্রথম একাদশে সুযোগ পেলেও খারাপ পারফর্ম্যান্স করে মাত্র ৪ ম্যাচ পরেই দল থেকে বাদ পড়েন শঙ্কর। করেন মাত্র ১৯ রান। গড় ৪.৭৫। বোলিং-এ আরও করুণ দশা তাঁর। চারটি ম্যাচ খেলে পান নি একটিও উইকেট। এই রকম হতশ্রী পারফর্ম্যান্সের পর মনে করা হয়েছিলো তাঁকে বাতিল করে দেবে গুজরাত, কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে তাঁকে ধরে রাখার দিকেই এগিয়েছে গুজরাত থিঙ্কট্যাঙ্ক। তাদের এই আজব সিদ্ধান্ত দেখে হেসে গড়াগড়ি ট্যুইটারের জনতা। এত খারাপ খেলেও কি করে কোটিপতি লীগে দল পাওয়া যায়? প্রশ্ন তাঁদের। দেখে নিন ট্যুইটার চিত্র-

Leave a comment

Your email address will not be published.