IND vs WI: হোয়াইটওয়াশেই শেষ হল ওয়ানডে সিরিজ, বৃষ্টি বিঘ্নিত তৃতীয় ম্যাচেও ব্যাটে-বলে পর্যুদস্ত ক্যারিবিয়ানরা 1

IND vs WI: কোন অঘটন ছাড়াই ত্রিনিদাদের কুইন্স পার্ক ওভালে খেলা তৃতীয় একদিনের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১১৯ রানে হারিয়ে দিল  টিম ইন্ডিয়া। ফলে ভারত ৩-০ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ জিতে নিল। প্রথমবারের মতো ওয়ানডে সিরিজে নিজেদের ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ক্লিন সুইপ করেছে টিম ইন্ডিয়া। বুধবার, বৃষ্টি বিঘ্নিত এই ম্যাচে টিম ইন্ডিয়া প্রথমে খেলে ৩৬ ওভারে তিন উইকেটে ২২৫ রান করে। তবে ডাকওয়ার্থ-লুইস নিয়মের কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩৫ ওভারে ২৫৭ রানের লক্ষ্য পায়। জবাবে ক্যারিবিয়ান দল ২৬ ওভারে ১৩৭ রানে গুটিয়ে যায়।

IND vs WI: হোয়াইটওয়াশেই শেষ হল ওয়ানডে সিরিজ, বৃষ্টি বিঘ্নিত তৃতীয় ম্যাচেও ব্যাটে-বলে পর্যুদস্ত ক্যারিবিয়ানরা 2

ভারতের ২৫৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের শুরুটা খুব খারাপ হয়েছিল। ওপেনার কাইল মেয়ার্স ও তিন নম্বরে ব্যাট করতে আসা শামরাহ ব্রুকস খাতা না খুলেই প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। দুজনকেই আউট করেন মোহাম্মদ সিরাজ। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংসের হাল ধরেন ব্রেন্ডন কিং ও শাই হোম। কিন্তু বেশিক্ষণ ভারতীয় বোলারদের মুখোমুখি হতে পারেননি। হোপ ৩৩ বলে ২২ রান করেন এবং চাহালের বলে স্টাম্পড হন। এরপর ব্র্যান্ডন কিং’কে নিয়ে নেতৃত্ব দেন ক্যাপ্টেন নিকোলাস পুরান। দুজনেই বড় জুটির দিকে এগোচ্ছিলেন যে অক্ষর প্যাটেল কিংকে বোল্ড করলেন। কিং ৩৭ বলে ৪২ রান করেন। তার ব্যাট থেকে এসেছে পাঁচটি চার ও একটি ছক্কা।

কিং ফিরে যাওয়ায় এই ম্যাচ জিততে ওয়েস্ট ইন্ডিজের শেষ ভরসা ছিলেন অধিনায়ক নিকোলাস পুরান। কিন্তু বড় শট খেলার প্রক্রিয়ায় প্রসিদ্ধ কৃষ্ণার বলে ক্যাচ আউট হন তিনি। এছাড়াও তিনি পাঁচটি চার ও একটি ছক্কার সাহায্যে ৪২ রানের ইনিংস খেলেন। পুরান আউট হওয়ার সাথে সাথে ম্যাচ শেষ করতে ভারতীয় বোলারদের বেশি সময় লাগেনি। এই সময়ে কেসি কার্টি ৫, আকিল হোসেন ১, কিমো পল ০, হেইডেন ওয়ালশ ১০ এবং জ্যাডেন সিলস কোন রান না করেই আউট হন। একই সঙ্গে ৯ রানে অপরাজিত ফিরেন অলরাউন্ডার জেসন হোল্ডার।

IND vs WI: হোয়াইটওয়াশেই শেষ হল ওয়ানডে সিরিজ, বৃষ্টি বিঘ্নিত তৃতীয় ম্যাচেও ব্যাটে-বলে পর্যুদস্ত ক্যারিবিয়ানরা 3

বুধাবারের সিরিজের এই শেষ ম্যাচে ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ চার উইকেট নেন যুজবেন্দ্র চাহাল। এছাড়া শার্দুল ঠাকুর ও মোহাম্মদ সিরাজ নেন দুটি করে উইকেট। একই সময়ে একটি করে উইকেট পান প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা ও অক্ষর প্যাটেল। এর আগে, শুভমান গিলের অপরাজিত ৯৮ রানের সাহায্যে ভারতীয় দল ৩৬ ওভারে তিন উইকেটে ২২৫ রান করে। ভারতের হয়ে হাফ সেঞ্চুরি করেন অধিনায়ক শিখর ধাওয়ানও। তিনি ৫৮ রান করেন। তিন নম্বরে নেমে শ্রেয়াস আইয়ার খেলেন ৪৪ রানের ইনিংস।

Leave a comment

Your email address will not be published.