IND vs NZ: ম্যাচ জিতে তৃপ্ত অধিনায়ক হার্দিক শুভেচ্ছা জানালেন সূর্য’কে, তবে জয়ের মূলমন্ত্র হিসেবে পান্ডিয়ার পছন্দ দলীয় সংহতি !! 1

IND vs NZ: টি-২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ১০ উইকেটে হারের পর ঘরে-বাইরে তীব্র সমালোচনার মধ্যে পড়তে হয়েছিলো ভারতীয় দল’কে। ব্যর্থতা ভুলতে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজ’কে হাতিয়ার করতে চেয়েছিলো ‘টিম ইন্ডিয়া।’ ৩ ম্যাচের সিরিজের প্রথমটি ভেস্তে গিয়েছিলো বৃষ্টি’তে। ওয়েলিংটনে ম্যাচ না হওয়ায় দীর্ঘায়িত হয়েছিলো মাঠে ফেরার অপেক্ষা। বরুণদেব রুষ্ট হলেন না আজ। মাউন্ট মাউঙ্গানুয়ার বে ওভালে পুরো খেলা দেখা গেলো আজ। আর বেদনাদায়ক বিশ্বকাপের স্মৃতি ঝেড়ে ফেলে আরও একবার পূর্ণ বিক্রমে মাঠে ফিরলো ‘মেন ইন ব্লু।’ নিউজিল্যান্ড সিরিজে দলে নেই রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি। মহম্মদ শামি’র মত বড় নামেরা। পরিবর্তে নীল জার্সি পরে মাঠে নামবেন এক ঝাঁক তরুণ ক্রিকেটার। আজ তারুণ্যের স্পর্ধা দিয়েই নিউজিল্যান্ডের অভিজ্ঞতা’কে মাত করে দিলেন ঈশান কিষণ, অর্শদীপ সিং’রা। ব্যাট হাতে হিরো অবশ্যই মিস্টার ৩৬০ সূর্যকুমার যাদব। দুর্দান্ত শতরানে ম্যাচ কিউইদের থেকে অনেক দূরে নিয়ে চলে যান তিনি। বোলিং-এ ভালো করলেন যজুবেন্দ্র চাহাল, দীপক হুডা’রা। আজকের জয় তৃপ্তিদায়ক নিউজিল্যান্ড সিরিজে ভারতের অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া’র( Hardik Pandya) কাছেও। এর আগেও আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ জিতেছিলেন তিনি। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের মত প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বীর বিপক্ষে তাদের ঘরের মাঠে ম্যাচ জিতে দলগত প্রচেষ্টাকেই ধন্যবাদ দিলেন নেতা হার্দিক( Hardik Pandya)।

“১৭০ থেকে ১৭৫ এর লক্ষ্য ছিলো,” জানালেন পান্ডিয়া-

Team India | image: twitter
Team India captain Hardik Pandya gave special credit to bowlers after win against New Zealand.

নিউজিল্যান্ডের বে ওভালে টি-২০ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ ভারত জিতে নিলো ৬৫ রানে। প্রথমে ব্যাট করে সূর্যকুমার যাদবের(Suryakumar Yadav)  শতরানের সৌজন্যে ভারত তোলে ১৯১ রান। শেষ ওভারে টিম সাউদী(Tim Southee) হ্যাট্রিক করলেও তা ভারতের বড় রান তোলার পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায় নি। নিউজিল্যান্ডের ইনিংসে শুরু থেকেই নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট হারিয়ে চাপে ছিলো আয়োজক দেশ। ভারতের স্পিন আক্রমণের মোকাবিলা করতে না পেরে শেষ অব্দি তাসের ঘরের মত ভেঙে পরে ‘ব্ল্যাক ক্যাপস’রা। ১২৬ রানে গুটিয়ে গিয়ে ৬৫ রানে ম্যাচ হারেন কেন উইলিয়ামসন, গ্লেন ফিলিপস’রা। মাঠে আগ্রাসী মনোভাব থেকে বোলিং পরিবর্তন, সবদিকেই নজর কেড়েছেন হার্দিক পান্ডিয়া( Hardik Pandya)। পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসে তাঁর সাক্ষাৎকারেও ধরা পড়লো এক আত্মবিশ্বাসী নেতার প্রতিচ্ছবি। “এর থেকে ভালো তো কিছু হয় না, দলের সবাই কোনো না কোনো ভাবে জয়ে যোগদান করেছে, আলাদা করে বলতেই হবে সূর্যের কথা। একটা স্পেশ্যাল ইনিংস খেললো ও।” কত স্কোর চেয়েছিলো দল? উত্তর পান্ডিয়া জানান, “১৭০ থেকে ১৭৫ রানের লক্ষ্য ছিলো আমাদের।” দলের বোলারদের লড়াইকে বিশেষ করে কুর্ণিশ জানিয়েছেন নেতা। “মাঠ বেশ ভিজে ছিলো। তারমধ্যে যেভাবে বোলার’রা বল করেছে আলাদা করে সাধুবাদ প্রাপ্য ওদের। এই আগ্রাসী বোলিং’টা আমি চেয়েছিলাম। আগ্রাসী বোলিং মানে প্রত্যেক বলে উইকেট তুলতে যাওয়া নয়। তবে আক্রমণ থেকে সরে আসা চলবে না।” দীপক হুডা মূলত ব্যাটার হয়েও ৪ উইকেট নিয়েছেন আজ। বোলিং পরিবর্তন নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে জানান, “আমি নিজে অনেক বোলিং করেছি। আমি চাই আরও ক্রিকেটার’রা কয়েক ওভার করে বল করুক। তাতে বৈচিত্র বাড়ে। সবসময় হয়ত সবার বোলিং কার্যকরী হবে না, তাও আমি চাই ব্যাটার’রা আরও বেশী বল করুক।”

“সবাইকে জায়গা দিতে চাই” বলছেন অধিনায়ক-

Hardik Pandya | image: Twitter
Indian captain Hardik Pandya talked about the players’ happy spaces after India’s massive win against New Zealand.

ম্যাচ জিতে দলীয় সংহতি কথা হার্দিক পান্ডিয়ার( Hardik Pandya) মুখে। তিনি বলেন “আমাদের দলের খেলোয়াড়’রা পেশাদার।  এমন একটা পরিবেশ দলের মধ্যে তৈরি করতে হয় সেখানে মানসিকভাবে সবাই সুখী থাকে। এই দলটায় আমি বহুবার দেখেছি একজন’কে অন্য ক্রিকেটারের সাফল্যে খুশি হতে। সাফল্য লাভের জন্য এই একাত্মতা’টা খুব জরুরী।” পরের ম্যাচে কি দলে কোনো পরিবর্তন দেখা যাবে? হার্দিক জানান, “ এখনই বলতে পারছি না। আমি তো চাই দলের সকলকে সুযোগ দিতে। কিন্তু হাতে রয়েছে তো মোটে একটা ম্যাচ। ব্যাপারটা তাই একটু কঠিন।”

Leave a comment

Your email address will not be published.