ganguly-want-hardik-pandya-test-return

চোটের কারণে বেশ অনেকটা সময় ক্রিকেট থেকে দূরে থাকতে হয়েছিলো হার্দিক পান্ডিয়াকে (Hardik Pandya)। গত বছর আইপিএলে (IPL) চোট সারিয়ে মাঠে ফেরেন ভারতীয় অলরাউন্ডার। তারপর থেকে যেন এক নতুন হার্দিক’কে দেখছে ক্রিকেটবিশ্ব। আগ্রাসন একই রকম রয়েছে, কিন্তু সাথে এসেছে পরিণতিবোধ’ও। কঠিন সময়ে ব্যাট বা বল হাতে দলের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। অধিনায়ক হিসেবে প্রথম সুযোগেই গুজরাত টাইটান্সকে চ্যাম্পিয়ন করেন তিনি। যা মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে হার্দিকের কেরিয়ারের।

হার্দিকের অবর্তমানে পেস বোলিং অলরাউন্ডার হিসেবে বিজয় শঙ্কর (Vijay Shankar), শিবম দুবে (Shivam Dube), ভেঙ্কটেশ আইয়ারদের (Venkatesh Iyer) সুযোগ দিয়ে দেখেছিলো ভারতীয় দল। কিন্তু কেউই তাঁর অভাব ঢাকতে পারেন নি। চোট সারিয়ে দলে নিজের জায়গা ফিরে পেতে বিশেষ সমস্যায় পরতে হয় নি তাঁকে। একই সাথে আইপিএলের সাফল্য ভবিষ্যতের অধিনায়ক হিসেবেও নির্বাচকদের রেডারে এনে দিয়েছে হার্দিককে (Hardik Pandya)। ইতিমধ্যেই নিউজিল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি-২০তে জাতীয় দলের অধিনায়ক করা হয়েছে তাঁকে। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে একটি একদিনের ম্যাচেও নেতৃত্ব দিয়েছেন হার্দিক।

একদিনের ক্রিকেট এবং টি-২০তে হার্দিক (Hardik Pandya) নিয়মিত হার্দিক। আইপিএলেও গুজরাত দলের অধিনায়কত্ব করছেন চুটিয়ে। কিন্তু ২০১৮ সালের পর টেস্ট ক্রিকট খেলেন নি তিনি। ফর্মের শিখরে থাকা সত্ত্বেও ক্রিকেটের দীর্ঘতম ফর্ম্যাটে খেলছেন না তিনি। সম্প্রতি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরেছে ভারত। ইংল্যান্ডের পরিস্থিতিতে একজন পেস বোলিং অলরাউন্ডারের না থাকা ভারতীয় দলের ভারসাম্য বিঘ্নিত করেছিলো বলে মতামত জানিয়েছেন অনেক বিশেষজ্ঞ। বাধ্য হয়েই চার পেসার খেলাতে গিয়ে মাঠের লড়াইতে পিছিয়ে গিয়েছিলো ভারতীয় দল। টেস্ট না খেলার অবস্থান থেকে হার্দিক’কে (Hardik Pandya) সরে আসার অনুরোধ জানালেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক এবং প্রাক্তন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly)।

Read More: ভারতের জার্সিতে ঋষভ পন্থের কামব্যাক কেবল সময়ের অপেক্ষা, স্বস্তির হাওয়া ক্রিকেটমহলে !!

এখনি টেস্ট খেলতে রাজী নন হার্দিক পান্ডিয়া-

Hardik Pandya | Image: Getty Images
Hardik Pandya | Image: Getty Images

২০১৮ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে শেষবার টেস্ট দলের সাদা জার্সি গায়ে চাপিয়েছিলেন হার্দিক পান্ডিয়া (Hardik Pandya)। এরপর লাল বলের লড়াইয়ের ময়দানে দেখা যায় নি তাঁকে। ১১ টেস্ট  ম্যাচে ১টি শতরান-সহ তিনি করেছেন ৫৩২ রান। নিয়েছেন ১৭ উইকেট। চোটের কারণে লম্বা স্পেলে বোলিং করতে পারছিলেন না পান্ডিয়া। যা তাঁকে টেস্ট থেকে দূরে সরিয়ে দিয়েছিলো। বর্তমানে অবশ্য চোট সারিয়ে সম্পূর্ন ফিট তিনি। সীমিত ওভারের খেলায় চুটিয়ে বোলিং করছেন। তবুও টেস্ট দলে দেখা যায় নি তাঁকে।

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের আগে হার্দিককে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিলো কেনিংটন ওভালে ভারতীয় দলের সাদা জার্সি গায়ে চাপিয়ে তিনি মাঠে নামতে চান কিনা, উত্তরে সরাসরি ‘না’ বলেছিলেন তিনি। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হার্দিক (Hardik Pandya) জানান, “যদি আমি টেস্ট ক্রিকেট খেলতে চাই, তাহলে আমি পরিশ্রম করেই দলে নিজের জায়গা অর্জন করে নেবো। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল বা তার পরেও অন্য টেস্ট ম্যাচে আমি ততক্ষণ খেলতে চাই না, যতক্ষণ না আমার মনে হয় যে আমি দলে আমার জায়গা অর্জন করে নিয়েছি।”

টেস্ট ক্রিকেটে হার্দিককে দেখতে চান সৌরভ-

Sourav Ganguly | Hardik Pandya | Image: Twitter
Sourav Ganguly | Image: Twitter

ইংল্যান্ডের পরিবেশে পেস বোলিং অলরাউন্ডার হিসেবে ক্যামেরন গ্রিন (Cameron Green) থাকায় অস্ট্রেলিয়া যেখানে বাড়তি সুবিধা পেয়েছে সেখানে ভারতকে ভরসা করতে হয়েছে চার পেসারের উপর। ফলে বাদ দিতে হয়েছে রবিচন্দ্রণ অশ্বিনকে (Ravichandran Ashwin)। যা আদপে দলের বিপক্ষেই গেছে। ওভালের ফাইনাল চলাকালীন বারবারই বিপক্ষের মুখে উঠে এসেছে হার্দিকের নাম। প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly) এর আগেও হার্দিক পান্ডিয়াকে (Hardik Pandya) টেস্ট না খেলার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আবেদন জানিয়েছিলেন। টেস্ট বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের দিনকয়েক আগে তিনি বলেছিলেন, টি২০ স্পেশ্যালিস্ট অনেকে আসবেহার্দিক পান্ডিয়া রয়েছেযদিও আমি মনে করি যে হার্দিক টেস্ট ক্রিকেটে দলের সম্পদ এবং ওর উচিৎ টেস্টে প্রত্যাবর্তন ঘটানোকারণ সেইটার জন্যই ওকে মনে রাখবে লোকেও একদিনের ক্রিকেট এবং টি২০র স্পেশ্যালিস্টকিন্তু আমার কাছে ও একজন স্পেশ্যাল ক্রিকেটার

ওভালে ভারতের হারের পর আবার হার্দিকের কাছে টেস্টে প্রত্যাবর্তনের আর্জি রেখেছেন সৌরভ (Sourav Ganguly)। ম্যাচের ময়নাতদন্ত করতে বসে বাংলার মহারাজ বলেন, “একটা হারেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে উপনীত হলে চলবে না। ভারতে প্রতিভার অভাব নেই। পারফর্ম্যান্স বিচার করলে বুঝবেন আমাদের ভাঁড়ারে প্রচুর প্রতিভা রয়েছে। আইপিএল পারফর্ম্যান্স দিয়ে আমি টেস্টের বিচার করছি না। ঘরোয়া ক্রিকেটেও প্রচুর উঠতি প্রতিভা রয়েছে, একমাত্র যথাযথ সুযোগ দিলেই তাঁদের সন্ধান পাওয়া যাবে। (যশস্বী) জয়সওয়াল হোক বা (রজত) পতিদার। বাংলার অভিমণ্যু ঈশ্বরণ প্রচুর রান করছে। শুভমান গিল, ঋতুরাজ গায়কোয়াড়রা তরুণ। আর আমি আশা করি হার্দিক আমার কথা শুনছে…আমি চাই ও টেস্ট ক্রিকেট খেলুক। বিশেষ করে এই রকম (ইংল্যান্ডের) পরিবেশে।” এর আগে সৌরভের (Sourav Ganguly) প্রস্তাব ফিরিয়েছেন হার্দিক, প্রাক্তন অধিনায়কের দ্বিতীয় আর্জি কি শুনবেন তিনি? উত্তরের অপেক্ষায় অনুরাগীরা।

Also Read: WC 2023: ২০২৩ বিশ্বকাপের জন্য বেছে নেওয়া হলো টিম ইন্ডিয়ার স্কোয়াড, ধাওয়ান-সঞ্জু সহ এই চারজন ফিরলো দলে !!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *