আবারও সৌরভ গাঙ্গুলীকে নিয়ে এই বিতর্কিত বড়ো বয়ান দিলেন গ্রেগ চ্যাপেল 1

ভারতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী ভারতের সবচেয়ে সফলতম অধিনায়ক হিসেবে পরিচিত। তার ক্রিকেট কেরিয়ারে বেশকিছু চড়াই উৎরাইও এসেছে আর তিনি বেশ কয়েকবার ভারতীয় দলে প্রত্যাবর্তনও করেছিলেন। তার ক্রিকেট কেরিয়ারও যথেষ্ট বিতর্কিত থেকেছে, আর তার সঙ্গে কোচ গ্রেগ চ্যাপেলেরও একটি বড়ো ঝামেলা তৈরি হয়েছিল।

গ্রেগ চ্যাপেল আরও একবার গাঙ্গুলীকে নিয়ে দিয়েছেন বিতর্কিত বয়ান

আবারও সৌরভ গাঙ্গুলীকে নিয়ে এই বিতর্কিত বড়ো বয়ান দিলেন গ্রেগ চ্যাপেল 2

গ্রেগ চ্যাপেল ২০০৫ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত টিম ইন্ডিয়ার কোচ ছিলেন। তখন তার আর সৌরভের মধ্যে সম্পর্ক তিক্ত হয়েছিল। চ্যাপেল অধিনায়ক হওয়া সত্ত্বেও গাঙ্গুলীকে দল থেকে বাদ দিয়েছিলেন। ভারত যখন ২০০৭ এ বিশ্বকাপের প্রথম রাউড থেকেই ছিটকে গিয়েছিল তখনও দলের কোচ ছিলেন গ্রেগ চ্যাপেলই। আরও একবার চ্যাপেল গাঙ্গুলীকে নিয়ে একটি বিতর্কিত বয়ান দিয়েছেন। যে সৌরভ গাঙ্গুলী তাকে দলে নিয়ে এসেছিলেন সেই চ্যাপেলই তাকে দল থেকে বাদ দিয়েছিলেন।

গাঙ্গুলী নিজের খেলায় উন্নতি করতে চাইতেন না

আবারও সৌরভ গাঙ্গুলীকে নিয়ে এই বিতর্কিত বড়ো বয়ান দিলেন গ্রেগ চ্যাপেল 3

ক্রিকেট লাইফ স্টোরিজ পোডকাস্টে কথাবার্তা বলতে গিয়ে গ্রেগ চ্যাপেল নিজের বয়ানে বলেন, “আমাকে টিম ইন্ডিয়ার কোচ করার জন্য গাঙ্গুলীই যোগাযোগ করেছিল, কিন্তু সৌরভ গাঙ্গুলীর অধিনায়ক থাকার কারণে কিছু সমস্যা ছিল। ও কড়া মেহনত করতে চাইত না। ও নিজের খেলাকে শুধরোতে চাইত না। ও খালি দলে অধিনায়ক হয়ে থাকতে চাইত যাতে ব্যাপারগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে”।

দ্রাবিড় বানাতে চাইত ভারতকে সর্বশ্রেষ্ঠ দল

আবারও সৌরভ গাঙ্গুলীকে নিয়ে এই বিতর্কিত বড়ো বয়ান দিলেন গ্রেগ চ্যাপেল 4

গ্রেগ চ্যাপেল আগে নিজের বয়ানে রাহুল দ্রাবিড়কে নিয়ে বলেন, “দ্রাবিড় ভারতকে বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ দল তৈরির জন্য নিজের অধিনায়কত্বেরস সময় যথেষ্ট সময় দিয়েছিল। তবে দলে সকলের ভাবনা এমন ছিল না। যখন সৌরভ গাঙ্গুলী দল থেকে বাদ পড়ে, তো আমরা খেলোয়াড়দের দিকে যথেষ্ট মনোযোগ দিই কারণ ওরা বুঝতে পেরেছিল যে যদি গাঙ্গুলী যেতে পারে তো যে কেউই বাদ যেতে পারে”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *