Dinesh Karthik

দীনেশ কার্তিক (Dinesh Karthik) তার দুর্দান্ত ফর্মে ধারাবাহিকভাবে টিম ইন্ডিয়ার নির্ভরযোগ্য ফিনিশার হয়ে উঠছেন। যে বয়সে বাকি খেলোয়াড়রা অবসরের পরিকল্পনা করেন, সেই বয়সেই এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান টিম ইন্ডিয়াতে নিজের জায়গা করে নিয়েছেন। এবার কার্তিক নিজেই তার দলে ফিরে আসার পুরো ঘটনাটি বর্ণনা করেছেন। আর পুরো চিত্রটি বিসিসিআই তার অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলে শেয়ার করেছে।

ডানহাতি ব্যাটসম্যান এই সাক্ষাত্কারে বলেছেন যে তিনি কীভাবে দলে ফেরার জন্য তিন বছর ধরেন অপেক্ষা করেন এবং প্রতিদিন টিম ইন্ডিয়ার জার্সিতে খেলার স্বপ্ন দেখতেন। রাজকোটে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টিম ইন্ডিয়ার ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচের আগে তিনি এই সাক্ষাৎকারটি দেন তিনি।

কী বললেন দীনেশ কার্তিক?

জাতীয় দলে কামব্যাক নিয়ে বড় রহস্য খোলসা করলেন Dinesh Karthik ! জানিয়ে দিলেন কেমন ছিল 'অন্ধকার' দিনগুলো 1

তিনি বলেছেন, “আমি অনেকবার দল থেকে বাদ পড়েছি। কিন্তু আমি সবসময় টিম ইন্ডিয়াতে ফিরতে চেয়েছিলাম। ঘরোয়া ক্রিকেট হোক বা আইপিএল খেলা হোক, এটাই আমার সবচেয়ে বড় স্বপ্ন। ৩৭ বছর বয়সী এই অভিজ্ঞ আরও বলেছেন, “আমার ভিতরে সবসময় আগুন জ্বলতো। আমি আবারও টিম ইন্ডিয়ার জার্সি পরে আমার দেশের হয়ে খেলতে চেয়েছিলাম এবং প্রতিদিন একই স্বপ্ন দেখতাম।”

কার্তিকও স্বীকার করেছেন যে সাম্প্রতিক সময়ে ক্রিকেট খেলার অনেক পরিবর্তন হয়েছে। তিনি বলেছিলেন, “গত ১৫ বছরে ক্রিকেটে অনেক পরিবর্তন হয়েছে বিশেষ করে টি-২০ ক্রিকেট। আমি এই পরিবর্তনগুলির সাথে আমার খেলার উন্নতি করেছি এবং টিম ইন্ডিয়াতে আমার জায়গা তৈরি করেছি।”

টি-২০’তে সবচেয়ে বেশি বয়েসে হাফ সেঞ্চুরি করা ভারতীয়

Dinesh Karthik

কার্তিক ৩৭ বছর ১৬ দিন বয়সে এই অর্ধশতরান করেছেন। এই ইনিংসের মাধ্যমে, তিনি ভারতের হয়ে টি-২০’তে পঞ্চাশ হাঁকানো সবচেয়ে বয়স্ক খেলোয়াড় হয়ে গেছেন। শুক্রবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চতুর্থ টি-২০ ম্যাচে কার্তিক দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন এবং সমস্যায় পড়া দল ভারতকে চ্যালেঞ্জিং স্কোরে নিয়ে যান। কার্তিক ২৭ বলে ৫৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে ভারতের স্কোর ১৬৯-এ নিয়ে যান। এই ইনিংসে কার্তিক মারেন ৯টি চার ও ২টি ছক্কা। একটা সময়ে ভারতের পক্ষে বড় স্কোর করা খুবই কঠিন ছিল। কিন্তু, হার্দিক এবং কার্তিক দ্রুত স্ট্রাইক রেটে ব্যাট করেন। এর ফলে টিম ইন্ডিয়া ১৬৯ রান করতে সক্ষম হয়েছিল। হার্দিকও কার্তিককে এই খুব ভালো সঙ্গত দেন এবং ৩১ বলে ৪৬ রানের মারকুটে ইনিংস খেলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.