বিশ্বকাপের হারেই কাল হচ্ছে ভারতীয় সিনিয়ার ক্রিকেটারদের, হবেন দল থেকে ছাটাই !! 1

দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে টি-২০ সিরিজ জয়ের পর যখন অস্ট্রেলিয়ায় টি-২০ বিশ্বকাপ খেলতে গিয়েছিলো ভারতীয় দল, আশায় বুক বেঁধেছিলেন সমর্থকেরা। ২০০৭ সালে টি-২০ বিশ্বকাপ এসেছিলো ভারতে। তারপর গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেক জল। দেড় দশকেও ট্রফি ধরা দেয় নি ভারতের হাতে। ২০২১ টি-২০ বিশ্বকাপে চূড়ান্ত ব্যর্থ হওয়ার পর অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিলো বিরাট কোহলি। বদলে নেতা করা হয় রোহিত শর্মা। নতুন অধিনায়কের হাত ধরে কাপভাগ্য ফিরবে, আশা করেছিলেন সকলে। কিন্তু বিধি বাম। আরও একবার আইসিসি টুর্নামেন্টের নক-আউট পর্যায় থেকে হেরে বিদায় নিলো ভারতীয় দল। অ্যাডিলেডের মাঠে লজ্জার ইতিহাস লিখে ১০ উইকেটে হারলো রোহিত বাহিনী। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং-ক্রিকেটের কোনও ডিপার্টমেন্টেই সমানে সমানে পাল্লা দিতে পারে নি ভারত। এই চূড়ান্ত ব্যর্থতা‘র পর কি হবে বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মাদের ভবিষ্যৎ? উঠছে প্রশ্ন।

দ্বিতীয় বার হার ১০ উইকেটে, কি ভাবছে BCCI?

India vs England | image: twitter
ADELAIDE, AUSTRALIA – NOVEMBER 10: Jos Buttler is congratulated by Virat Kohli after England won the ICC Men’s T20 World Cup Semi Final match between India and England by ten wickets at Adelaide Oval on November 10, 2022 in Adelaide, Australia. (Photo by Philip Brown/Popperfoto/Popperfoto via Getty Images)

এর আগেও ১০ উইকেটে হেরেছে ভারত। আর সেটাও এসেছিলো টি-২০ বিশ্বকাপেই। ২০২১ সালের টি-২০ বিশ্বকাপে সংযুক্ত আরব আমিরশাহী’তে পাকিস্তানের বিপক্ষে আগে ব্যাট করতে নেমে ১৫১ রান করে ভারত। জবাবে কোনো উইকেট না হারিয়ে সেই রান তুলে দেয় পাকিস্তান। অপরাজিত থাকেন বাবর আজম এবং মহম্মদ রিজওয়ান। সেই ঘটনার পরও বিশেষ যে বদলায় নি ছবিটা তা প্রমাণ হলো গতকাল। অ্যাডিলেডে আগে ব্যাট করে ভারত তোলে ১৬৮ রান। টপ অর্ডারের ব্যর্থ হওয়ার দিকে রান পান কেবল বিরাট কোহলি (৪০ বলে ৫০) এবং হার্দিক পান্ডিয়া (৩৩ বলে ৬৩)। লড়াই করবে ভারতীয় বোলিং, মনে করা হচ্ছিলো। কিন্তু বাটলার আর হেলসের তাণ্ডবের সামনে ধুয়ে যায় অর্শদীপ, ভুবনেশ্বর, শামিদের প্রতিরোধ। যথাক্রমে ৮৬* এবং ৮০* করেন হেলস এবং বাটলার। দশ উইকেটে হেরে ছিটকে যায় ভারত। পরবর্তী টি-২০ বিশ্বকাপ ২০২৪ সালে। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র এবং ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে। আগামী দুই বছর ভারতীয় বোর্ডের(BCCI) কাছে সুযোগ আগামী প্রতিযোগিতার জন্য এক শক্তিশালী দল গঠনের। এই অবস্থায় এখন যে সকল সিনিয়র খেলোয়াড়ের বয়স প্রায় ৩৫ এর কাছাকাছি, পরের বিশ্বকাপে তাঁদের জায়গা হবে কিনা সে নিয়ে দেখা গিয়েছে সংশয়।

কি হতে চলেছে বিরাট এবং রোহিতের টি-২০ ভবিষ্যত-

Virat Kohli and Rohit Sharma | image: Gettyimages
India’s Virat Kohli (R) and India’s captain Rohit Sharma shake hands after their victory during the ICC men’s Twenty20 World Cup 2022 cricket match between India and Netherlands at the Sydney Cricket Ground in Sydney on October 27, 2022. – — IMAGE RESTRICTED TO EDITORIAL USE – STRICTLY NO COMMERCIAL USE — (Photo by Saeed KHAN / AFP) / — IMAGE RESTRICTED TO EDITORIAL USE – STRICTLY NO COMMERCIAL USE — (Photo by SAEED KHAN/AFP via Getty Images)

ভারতের ক্রিকেটের দুই নক্ষত্র বিরাট কোহলি (Virat Kohli) এবং রোহিত শর্মা (Rohit Sharma)। বিরাট গতকাল’ই টি-২০ ক্রিকেটে ৪০০০ রান সম্পূর্ণ করেছেন, রোহিত’ও রয়েছেন ৪০০০ এর দোরগোড়ায়। দলে তাঁদের গুরুত্ব নিয়ে দ্বিমত নেই কারও। তবে তাঁদের বিরুদ্ধে যাচ্ছে তাঁদের বয়স। বিরাট সদ্য ৩৪ বছর পূর্ণ করলেন। রোহিতের বয়স ৩৫ পেরিয়েছে। সেক্ষেত্রে পরবর্তী টি-২০ বিশ্বকাপের সময় তাঁদের বয়স দাঁড়াবে যথাক্রমে ৩৬ আর ৩৭। ততদিন কি ভারতীয় দলে দেখা যাবে তাঁদের? অস্ট্রেলিয়ার ব্যর্থতা’র পর বিভিন্ন মহলে হাওয়া উঠেছে রোহিত’কে সরিয়ে হার্দিক পান্ডিয়া’কে (Hardik Pandya) টি-২০ দলের নেতৃত্ব তুলে দিতে। ইতিমধ্যে নিউজিল্যান্ডগামী টি-২০ দলের নেতৃত্ব হার্দিক’কে দিয়ে বোর্ড’ও বুঝিয়েছে তাদের রেডারে রয়েছেন পান্ডিয়া। সিনিয়র খেলোয়াড়দের ভবিষ্যত নিয়ে বড় মন্তব্য পাওয়া গিয়েছে বিসিসিআই অন্দর থেকেই। নাম গোপন রাখার শর্তে সংবাদসংস্থা পিটিআই’কে এক আধিকারিক জানিয়েছেন, “কাউকেই অবসর নিতে বাধ্য করা হবে না। বিসিসিআই কাউকেই বলে না অবসর নিয়ে নাও। তবে যেহেতু ২০২৩ সালে টি-২০ ম্যাচের তেমন গুরুত্ব নেই। সামনে একদিনের বিশ্বকাপ, তাই সিনিয়র প্লেয়ারদের আপনারা দেখবেন টেস্ট আর একদিনের ম্যাচেই বেশী মনোনিবেশ করতে।” “কেউ সরকারীভাবে অবসর নিতে না চাইলে নেওয়ার দরকার নেই। তবে টি-২০ তে সিনিয়রদের আগামী বছর বেশী ম্যাচে দেখবেন না।” ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য ঐ আধিকারিকের। কোচ রাহুল দ্রাবিড় গতকালের হারের পর জানিয়েছেন, “এক্ষুণি বড়সড় রদবদল করতে গেলে বড় তাড়াহুড়ো হয়ে যাবে। যে খেলোয়াড়’রা দলের সঙ্গে রয়েছে, তাঁরা যথেষ্ট ভালো খেলেছে বলেই রয়েছে।” সূত্র মারফৎ শোনা যাচ্ছে দলে বিরাট এবং রোহিতের গুরুত্ব মাথায় থেকে তাঁদের নিজের ভবিষ্যত নিজেদেরই ঠিক করার সুযোগ করে দেবে ভারতীয় বোর্ড। তবে বিসিসিআই নির্বাচক কমিটি’তে বড়সড় বদল আসতে চলেছে। নতুন কমিটি এলে বাদ পড়তে চলেছেন দীনেশ কার্তিক, রবিচন্দ্রণ অশ্বিনের মত অনেকে সে বিষয়ে নিশ্চিত সকলে।

Leave a comment

Your email address will not be published.