২২০ রানেই শেষে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস 1

মিরপুর, ২৮ অক্টোবর:  তামিম ইকবালের সেঞ্চুরি ও মুমিনুল হক সৌরভের হাফসেঞ্চুরিতে মিরপুর টেস্টে বড় রানের স্বপ্নই দেখছিল বাংলাদেশ। একটা সময় মনে হয়েছিল শেষ পর্যন্ত ৪০০ রানে গিয়ে থাকবে সাকিব আল হাসানদের ইনিংস। তবে হঠাৎ ছন্দপতন ও ইংল্যান্ডের বোলারদের দাপুটে বোলিংয়ে মাত্র ২২০ রানেই গুটিয়ে গেল বাংলাদেশের ইনিংস। দলের রান যখন ১৭১, তখনও ক্রিজে ছিলেন তামিম-মুমিনুল। এরপরই শুরু হয় উইকেট পতন। তার মধ্যে আর মাত্র ৪৯ রান যোগ করেই আট ব্যাটসম্যান ফিরে গেলেন প্যাভিলিয়নে। ৬৩.৫ ওভার খেলে ২২০ রানে সবকটি উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

শুক্রবার মিরপুরের শের ই বাংলা  ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলেই ইমরুল কায়েসকে হারায় বাংলাদেশ। ব্যক্তিগত এক রানে ক্রিস ওকসের বলে ক্যাচ আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন এই বাংলাদেশি ওপেনার। এরপর দু’নম্বরে নামা মুমিনুল হককে সঙ্গে নিয়ে রান তুলতে থাকেন দলের অন্য ওপেনার তামিম। দুজনে মিলে গড়েন ১৭০ রানের দুর্দান্ত একটি জুটি। তামিম তুলে নেন কেরিয়ারের অষ্টম সেঞ্চুরি। অন্যদিকে মুমিনুলের ব্যাট থেকে আসে তাঁর কেরিয়ারের দশম হাফসেঞ্চুরি।

এরপরই ম্যাচের চালচিত্রে পরিবর্তন ঘটতে শুরু করে। তামিম ও মুমিনুল আউট হতেই ভেঙে পড়ে বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনআপ। এই দু’জন ছাড়া আর কোন ব্যাটসম্যানই এ দিন বিশেষ সুবিধা করতে পারেনি। মাহমুদুল্লাহ ১৩, সাকিব ১০, মুশফিক ৪, সাব্বির ০, সুভাগত ৬, মিরাজ ১ রান করে। রাব্বি ০ ও তাইজুল ৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। ইংলিশদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫ উইকেট নেন মঈন আলি। এছাড়াও ওকস ৩টি ও স্টোকস নেন ২টি উইকেট।

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহীম (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, শুভাগত হোম ও কামরুল ইসলাম রাব্বি।

 ইংল্যান্ড দল: অ্যালিস্টার কুক, বেন ডাকেট, জো রুট, গ্যারি ব্যালান্স, বেন স্টোকস, জনি বেয়ারস্টো, মঈন আলী, ক্রিস ওকস, আদিল রশিদ, জাফর আনসারি ও স্টিভেন ফিন।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.