Asia Cup 2022: এশিয়া কাপ হারের যাবতীয় দায় নিজের কাঁধে নিলেন এই পাক তারকা, জানালেন তার জন্যই হেরেছে দল !! 1

Asia Cup 2022: আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে হার দিয়ে এবারের এশিয়া কাপ যাত্রা শুরু করেছিল শ্রীলঙ্কা। তবে  শেষ পর্যন্ত শেষ হাসি হাসলো তারাই। দুবাইয়ে রবিবাসরীয় ফাইনালে পাকিস্তানকে ২৩ রানে হারিয়ে এশিয়া কাপে নিজেদের ছয় নম্বর এশিয়া কাপ ট্রফি জিতে নিল দাসুন শানাকার দেশ। ফাইনাল ম্যাচে একটা সময় জয়ের পাল্লা পাকিস্তানের দিকেও ঝুঁকেছিল। কিন্তু বেশ কয়েকটি ক্যাচ মিসে ম্যাচটাই হাতছাড়া হয়ে গেল বাবর আজমদের।

Asia Cup 2022: এশিয়া কাপ হারের যাবতীয় দায় নিজের কাঁধে নিলেন এই পাক তারকা, জানালেন তার জন্যই হেরেছে দল !! 2

টুর্নামেন্টের ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে দুটি ক্যাচ মিস করেন শাদাব খান। দুটি ক্ষেত্রেই ভানুকা রাজাপাকসেকে জীবনদান করেন তিনি। আর সেই রাজাপাকসে শেষ পর্যন্ত ৪৫ বলে ৭১ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন। ৫৮ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যাওয়া শ্রীলঙ্কার রাজাপাকসের ব্যাটেই ১৭০ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ পায়। যে লক্ষ্য তাড়া করা কঠিন হয়ে যায় পাকিস্তানের জন্য।

এখন মনে করা হচ্ছে, শাদাবের সেই দুটি ক্যাচ মিসেই ফাইনাল হেরে গেছে পাকিস্তান। বিষয়টি ম্যাচ শেষে নিজেই স্বীকার করে নেন এই পাক ক্রিকেটার। তিনিও মনে করেন, তার জন্যই ম্যাচটি জিততে পারেনি পাকিস্তান। সে জন্য দেশবাসীর কাছে ক্ষমাও চান তিনি। টুইটারে সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে শাদাব লিখেছেন, ‘ক্যাচ ম্যাচ জেতায়। ক্ষমা চাইছি— আমি এই হারের দায় মাথা পেতে নিলাম। আমি আমার দলকে বিপদে ফেলেছি।’

এ স্পিন অলরাউন্ডার আরও বলেন, “তার পরও নাসিম শাহ, হারিস রউফ, মোহাম্মদ নওয়াজসহ পুরো দলের বোলিং আক্রমণ দারুণ ছিল। দলের জন্য এটি ইতিবাচক। মোহাম্মদ রিজওয়ানও লড়াই করেছেন। পুরো দল তাদের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করেছে। শ্রীলঙ্কাকে অভিনন্দন।” পাকিস্তানের অন্যতম সেরা ফিল্ডার হিসেবে বিবেচনা করা হয় শাদাবকে। সেই তিনিই রাজাপাকসের ক্যাচ ছাড়েন। ওভারটি ছিল মোহাম্মদ হাসনাইনের। রাজাপক্ষের রান তখন ৫১। তুলে মেরেছিলেন রাজাপাকসে। লং অন থেকে ছুটে এসেছিলেন আসিফ আলী, ডিপ মিডউইকেট থেকে ডান দিকে শাদাব। ক্যাচটি ছিল আসিফেরই, কিন্তু শাদাব ছুটে এসে ধাক্কা লাগে আসিফের সঙ্গে। আসিফের হাতে ধাক্কা লাগে শাদাবের মাথা। আসিফের হাতে লেগে বল চলে যায় বাউন্ডারির বাইরে।

Leave a comment

Your email address will not be published.