দুরন্ত খেলে গোয়া'কে ম্যাচ জিতিয়ে নিজের জাত চেনালেন অর্জুন তেন্ডুলকর, নির্বাচকদের নজরে শচীন পুত্র !! 1

তাঁর বাবা’র নাম শচীন তেন্ডুলকর, যাঁকে গোটা ভারতবর্ষ প্রায় দেবতাজ্ঞানে পুজো করে। তাই পুত্র অর্জুনের ক্রিকেট কেরিয়ারে প্রতিটি পদক্ষেপে তাঁকে তাড়া করে বেড়ায় পিতা শচীনের সাথে তাঁর তুলনা। বাবার মত ব্যাটসম্যান নন অর্জুন। তিনি মূলত ক্রিকেট খেলেন একজন বোলিং অলরাউন্ডার হিসেবে। সম্প্রতি মুম্বইয়ের হয়ে যথেষ্ঠ সুযোগ না পাওয়ায় সেখান থেকে রিলিজ নিয়ে অর্জুন পাড়ি জমিয়েছেন গোয়ায়। আর সেখানে নিয়মিত সুযোগ পেয়েই অর্জুন বোঝাচ্ছেন তিনি ‘বাপ কা বেটা’ই বটে। সম্প্রতি বিজয় হাজারে ট্রফিতে দুর্দান্ত বোলিং করে নিজের দল গোয়া’কে জয় এনে দিলেন অর্জুন।

অর্জুনের বোলিং-এ বিহার বধ গোয়া’র-

Arjun Tendulkar | image: Twitter

বিজয় হাজারে ট্রফি’র এলিট গ্রুপ-সি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিলো গোয়া এবং বিহার। সেখানেই বল হাতে জ্বলে উঠতে দেখা গেলো ২৩ বছরের অর্জুন’কে। মহাভারতের অর্জুনের মতই নিখুঁত নিশানায় বোলিং করে ৭ ওভারে মাত্র ৩২ রানের বিনিময়ে বিহারের ২ টি উইকেট তুলে নেন তিনি। ইকোনমি রেট’ও ছিলো মাত্র ৪.৫৭। অর্জুনদের বোলিং দাপটে মাত্র ২৪১ রানে গুটিয়ে যায় বিহারের ইনিংস। জয় পায় গোয়া। এর আগের ম্যাচে অন্ধ্রপ্রদেশের বিপক্ষে উইকেট না পেলেও ৩ ওভার বল করে মাত্র ১৫ রান দিয়েছিলেন অর্জুন। সেই ম্যাচেও বেশ ভালো এবং নিয়ন্ত্রিত বোলিং করেছিলেন বাঁ-হাতি পেসার। ইকোনমি ছিলো মাত্র ৫ রান প্রতি ওভার।

এখনও আসে নি জাতীয় দলের ডাক-

Arjun Tendulkar | image: Gettyimages
Indian under-19 cricketer Arjun Tendulkar, son of the Indian former cricket superstar Sachin Tendulkar, holds a ball during a practice session before the start of the warm-up match between the Indian under-19 and Sri Lankan under-19 teams at the Nondescripts Cricket Club (NCC) Cricket Stadium in Colombo on July 13, 2018. (Photo by Ishara S. KODIKARA / AFP) (Photo credit should read ISHARA S. KODIKARA/AFP/Getty Images)

পিতা শচীন মাত্র ১৬ বছর বয়সে খেলেছিলেন ভারতের হয়ে। ২৪ বছরের দীর্ঘ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কেরিয়ারে খেলেছিলেন ২০০ টেস্ট। তবে পুত্র অর্জুনের কাছে অবশ্য এখনও আসে নি সিনিয়র জাতীয় দলের ডাক। ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় ভালো খেলে জাতীয় দলের নীল জার্সি পরাই এখন তাঁর লক্ষ্য। ঘরোয় টি-২০ প্রতিযোগিতায় এখনো অব্দি ৯ ম্যাচে ১২ উইকেট নিয়েছেন অর্জুন। ইকোনমি রেট ৬.৬০, যা কুড়ি-বিশের ক্রিকেটে বেশ ভালো বলা যায়। এর মধ্যে একটি ম্যাচে ৪ উইকেট  নেওয়ার কৃতিত্ব’ও অর্জন করেন জুনিয়র তেন্ডুলকর। গোটা দুনিয়া জুড়ে বাঁ-হাতি পেস বোলারদের কদর বাড়ছে  দিন দিন। নিজের ফর্ম আর অধ্যবসায় ধরে রাখতে পারলে নির্বাচকদের নজরে চলে আসতেই পারেন তিনি। তখন জাতীয় দলে দেখা যাবে আরেকজন তেন্ডুলকর’কে।

Leave a comment

Your email address will not be published.