ম্যান অফ দ্য ম্যাচ নিয়ে অ্যাডাম জম্পা এই ভারতীয় খেলোয়াড়ের উইকেটকে বললেন ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট

ভারত আর অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে গতকাল টি-২০সিরিজের প্রথম ম্যাচ খেলা হয়েছে।এই ম্যাচে ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি টসে জেতেন আর প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেন। বিরাট কোহলি সকলকে অবাক করে চহেলকে এই ম্যাচে শামিল করেননি। অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়াও গতকাল অ্যাডাম জম্পাকে দলে শামিল করেছিল।

এমন দু-দেশের প্লেয়িং ইলেভেন

ভারত: বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), শিখর ধবন,রোহিত শর্মা, কেএল রাহুল, দীনেশ কার্তিক, ঋষভ পন্থ, ক্রুণাল পাণ্ডিয়া, জসপ্রীত বুমরাহ, ভুবনেশ্বর কুমার, খলিল আহমেদ

অস্ট্রেলিয়া: অ্যারণ ফিঞ্চ (অধিনায়ক), ডিআর্সি শর্ট, ক্রিস লিন,গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মার্কস স্টোইনিস, বেন ম্যাকডারমোট, অ্যালেক্স কোরে, অ্যাণ্ড্রু টাই, অ্যাডাম জাম্পা, জেসন বেহরনডোর্ফ, বিলি স্টেনলেক

ভারতকে হতে হল হারের মুখোমুখী

রোমাঞ্চকর ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া দল চার রানের জয় হাসিল করে আর সিরিজে ১-০ লীড নিয়ে ফেলেছে। গাব্বা মাঠে ভারতের আমন্ত্রণে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে অস্ট্রেলিয়া নির্ধারিত ১৭ ওভারে ৪উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রানের স্কোর তোলে। ঘরের দলের হয়ে আক্রামণাত্মক ব্যাটসম্যান গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (৪৬), ক্রিস লিন (৩৭) আরলরাউন্ডার মার্কস স্টোইনিস (অপরাজিত ৩৩) সবচেয়ে বেশি রান করেন।

অস্ট্রেলিয়া ইনিংস চলাকালণ বৃষ্টির কারণে ম্যাচ বন্ধ হয়ে যায়, এই কারণে ডার্কওয়ার্থ লুইস নিয়মের মাধ্যমে ভারতের লক্ষ্য আঁড়ায় ১৭ ওভারে ১৭৪রান। জবাবে ভারতীয় দল মাত্র ১৬৯ রানই করতে পারে। অস্ট্রেলিয়ার স্কোর তাড়া করতে নেমে ভারতের হয়ে শিখর ধবন ৭৬ রান (৪২ বল, ১০টি চার,দুটি ছক্কা) করে স্কোরকে গতি দেন।শিখরের প্যাভিলিয়নে ফেরার পর দীনেশ কার্তিক ৩০ রান (১৩ বল চারটি চার ১টি ছক্কা) আর ঋষভ পন্থ ২০ রান (১৫ বল একটি চার, একটি ছক্কা) করে জয়ের আশা তৈরি করেন।

শেষ ওভারে ভারতের জয়ের জন্য ১৩ রানের প্রয়োজন ছিল। কিন্তু এই ওভারে ক্রুণাল পাণ্ডিয়া আর দীনেশ কার্তিক আউট হতেই টিম ইন্ডিয়ার লড়াই শেষ হয়ে যায়। ভারত ১৭ ওভারে ৮ উইকেটে ১৬৯ রানই করতে পারে আর ম্যাচ চার রানে হেরে যায়। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ আগামি ২৩ নভেম্বর খেলা হবে। গতকালের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে চার ওভারে ২২ রান দিয়ে ২ উইকেট নেওয়া অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডাম জাম্পা ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হন।

বিরাটের উইকেট ছিল স্পেশাল

ম্যান অফ দ্য ম্যাচের পুরস্কার নিয়ে জাম্পা বলেন,

“ আমার বেশ ভালো লাগছে।আমরা বিরাটের উইকেটের সন্ধান করছিলামার সেই সময় আমাদের ওর উইকেটের প্রয়োজন ছিল। আর আমরা ওর উইকেট পাই”।

ডিআরএস নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন যে

“এমনিতে তো আমি উইকেটের পেছনে ক্যারির নির্নয়ে ভরসা করি না, কিন্তু আজ ওর এই সিদ্ধান্ত সঠিক প্রমানিত হয়েছে”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *