অবসর ঘোষণা করে যুবি বললেন শচীনের এই কথায় সবসময়ই হয়ে যেতেন লজ্জিত 1

ভারতীয় ক্রিকেট দলের এক সময়ের সবচেয়ে বড়ো সুপারস্টার হিসেবে স্মরণীয় যুবরাজ সিং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে দিয়েছেন। গত দীর্ঘ সময় ধরে ভারতীয় ক্রিকেট দল থেকে দূর থাকার পর শেষমেশ যুবরাজ সিং আজ ১০ জুন সোমবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে দিয়েছেন।

যুবরাজ সিং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে জানালেন বিদায়

ভারতীয় ক্রিকেটে যুবরাজের নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা হয়ে গিয়েছে যিনি বেশ কয়েকবার দলের হয় সঙ্কটমোচনের ভূমিকায় নিজেকে প্রমান করেছেন। সিক্সার কিং নামে পরিচিত যুবরা সিং নিজের পুরো কেরিয়ারে একট ভীষণই গভীর ছাপ ফেলেছেন।

অবসর ঘোষণা করে যুবি বললেন শচীনের এই কথায় সবসময়ই হয়ে যেতেন লজ্জিত 2

যুবরাজ সিং মুম্বাইয়ের একটি হোটেলে রীতিমতো প্রেস কনফারেন্স করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। যুবি ভারতীয় দলে খেলার সময় মাস্টার ব্লাস্টার শচীন তেন্ডুলকরের সঞগে ভীষণই ঘনিষ্ঠভাবে যুক্ত ছিলেন।

৩০ বছরের পর ফিটনেস নিয়ে হয় অতিরিক্ত প্রয়োজন

যুবরাজ সিং সবসময়ই কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান শচীন তেন্ডুলকরকে একজন বাবার মতই সম্মান দিয়েছেন আর তার কেরিয়ারের শচীনের এক বড়ো যোগদান থেকেছে।

অবসর ঘোষণা করে যুবি বললেন শচীনের এই কথায় সবসময়ই হয়ে যেতেন লজ্জিত 3

যুবরাজ সিং শচীন তেন্ডুলকরকে নিয়ে বলেন যে,

“এটা মুশকিল হয়ে যায় যখন আপনি নিজের জীবনের এই ধরণের সময়ের মধ্যে দিয়ে যান আর ফের যেখানে আপনি রয়েছেন সেখানে আসার চেষ্টা করতে থাকেন। ৩০ বছর বয়সে খেলোয়াড়কে নিজের ফিটনেস আবারো হাসিল করার জন্য একটা অতিরিক্ট বিটের প্রয়োজন হয়”।

শচীন আমাকে সবসময়ই বলতেন সুপারস্টার, ভালো লাগত না

যুবরাজ আগে শচীন তেন্ডুলকরের গুণগান করে বলেন যে,

“উনি সবসময়ই আমাকে একজন সুপারস্টার বলেন, যা ওনার সামনে আমার জন্য সামান্য লজ্জাজনক,কিনু আমি সবসময়ই ওনার ইচ্ছেকেই নিই। যখনই কখনো আমি নিজের আন্তর্জাতিক কেরিয়ার আবারো শুরু করি তো শচীন তেন্ডুলকরের শুভকামনার জন্য তাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ”।

অবসর ঘোষণা করে যুবি বললেন শচীনের এই কথায় সবসময়ই হয়ে যেতেন লজ্জিত 4

মহেন্দ্র সিং ধোনির সঙ্গে ইংল্যাণ্ডের ব্রুদ্ধে ২০১৭য় খেলা ওয়ানডে ম্যাচে হওয়া পার্টনারশিপ নিয়ে যুবরাজ সিং বলেন যে,

“এমএস আর আমি দীর্ঘ সময় এক সঙ্গে ব্য্যাটিং করেছি। ও একটা চাঞ্চল্যকর ইনিংস খেলেছিল। উইকেটের মাঝে আমাদের বোঝাপড়া দুর্দান্ত ছিল আর ওইদিন এই বিষয়ে চর্চা হচ্ছিল যে মাঠে কি হচ্ছে আর এটা আমাদের মধ্যে দুর্দান্ত থেকেছে”।

১৫০ রানের ইনিংস থেকেছে কেরিয়ায়রের বেস্ট

তিনি নিজের কেরিয়ারের শেষ ধাপ নিয়ে বলেন,

“আবেগকে বর্ণনা করা ভীষণই মুশকিল। কারণ কিছু সময় হয়ে গিয়েছে আর আমি বোর্ডের কোনো ১০০ রান করতে পারছিলাম না। আমি অনেক বছর ধরে কড়া মেহনত করেছি, নিজের ফিটনেসের উপর, নিজের ডায়েট নিয়ে কাজ করেছি। আমার প্রত্যাবর্তন করার আর দেখাতে যথেষ্ট সময় লেগেছে আর আমার মনে হয়ছে যে আমি এখনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পারি। এটা ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ ছিল আমি নিজেকে প্রমান করেছি কারণ আমার মধ্যে ভীষণই কম আত্মবিশ্বাস ছিল”।

অবসর ঘোষণা করে যুবি বললেন শচীনের এই কথায় সবসময়ই হয়ে যেতেন লজ্জিত 5

যুবরাজ সিং ইংল্যাণ্ডের বিরুদ্ধে যে ১৫০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তাকে নিজের কেরিয়ারের সর্বশ্রেষ্ঠ ইনিংস জানিয়ে তিনি বলেন,

“ওয়ানডে ক্রিকেটে ওটা আমার সবচেয়ে ভালো ইনিংস থেকেছে। ১৫০ রান যে কোনো ব্যাটসম্যানের জন্য বড়ো স্কোর আর আমার এই বিষয়ে গর্বর রয়েছে। আশা রয়েছে আমি যা কিছুই ছেড়ে যাচ্ছি তার সঙ্গে আমি ভাল করতে পারি”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *