গত দু বছর ধরে চার নম্বর ব্যাটসম্যান না পাওয়ার জন্য যুবরাজ সিং করলেন একে দায়ী

ভারতীয় দল গত ২ বছর ধরে চার নম্বর ব্যাটসম্যানের সন্ধান করছে। এই নম্বরে অনেক খেলোয়াড়কেই পরীক্ষা করা হয়েছে, কিন্তু এখনো পর্যন্ত কোনো খেলোয়াড়ই এই নম্বরে নিজেকে প্রমান করতে পারেননি। যুবরাজ সিংহের যাওয়ার পর ভারতীয় দল এই জায়গায় মনীষ পাণ্ডে, কেএল রাহুল, আম্বাতি রায়ডু, কেধার জাধব, সুরেশ রায়না, হার্দিক পাণ্ডিয়া, দীনেশ কার্তিক, ঋষভ পন্থের মত বেশ কিছু খেলোয়াড়কে পরীক্ষা করে ফেলেছে, কিন্তু কোনো ব্যাটসম্যানই এখনো পর্যন্ত আশানুরূপ ফল দিতে পারেননি।

যুবরাজ সিং টিম ম্যানেজমেন্টকে মানলেন চার নম্বর না পাওয়ার দায়ী

গত দু বছর ধরে চার নম্বর ব্যাটসম্যান না পাওয়ার জন্য যুবরাজ সিং করলেন একে দায়ী 1

ভারতীয় দলের প্রাক্তন ব্যাটসম্যান যুবরাজ সিং গত ২ বছর ধরে চার নম্বর না পাওয়ার দায়ী টিম ম্যানেজমেন্টকে মানলেন। তিনি স্পোর্টসতককে দেওয়া নিজের একটি ইন্টারভিউতে বলেছেন,

“আপনার চার নম্বরের জন্য একজন খেলোয়াড়কে ঠিক করা উচিৎ ছিল আর তাকে দীর্ঘ সুযোগ দেওয়া উচিৎ ছিল, কিন্তু যে খেলোয়াড়কেই সুযোগ দেওয়া হয়েছে, তাকে খুবই কম সময়ের মধ্যেই সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রথমে আমি ছিলাম, তারপর মনীষ পাণ্ডে এল, তারপর কেএল রাহুল এল, সুরেশ রায়না ফিরে এল আর তারপর আপনি রায়ডুর কাছে গেলেন আর ওকেও নিউজিল্যান্ডে ভাল প্রদর্শন সত্ত্বেও অস্ট্রেলিয়ার একটা সিরিজ খারাপ যাওয়ায় বাদ দিয়ে দেওয়া হয়। আমার মনে হয় যে রায়ডু পর্যন্ত দলের সেট হয়ে যাওয়া উচিৎ ছিল, কিন্তু এমনটা হয়নি”।

খেলোয়াড়দের সমর্থন করার প্রয়োজন ছিল

গত দু বছর ধরে চার নম্বর ব্যাটসম্যান না পাওয়ার জন্য যুবরাজ সিং করলেন একে দায়ী 2

যুবরাজ সিং আগে নিজের বয়ানে বলেন,

“বিশ্বকাপে ঋষভ পন্থকে পাঠানো হয়েছিল, আর ওখানেও বেশ কিছু খেলোয়াড় চার নম্বরে খেলেছে। ওখানে আমাদের চার নম্বরের সবচেয়ে বড় স্কোর মাত্র ৪৮ রান ছিল, এই কারণে টিম ম্যানেজমেন্ট চার নম্বরের পজিশনের জন্য কোনো খেলোয়াড়কেই নিশ্চিত করতে পারেনি। ইংল্যাণ্ডের মত কন্ডিশন যেখানে বল এত সুইং করে সেখানে আপনার চার নম্বরে একজন ভালো খেলোয়াড়ের প্রয়োজন ছিল, কিন্তু আপনি খেলোয়াড়দের সমর্থন করার বদলে তাদের আত্মিবিশ্বাস শেষ করে গেলে আর কোনো খেলোয়াড়কেই সেটল হওয়ার পুরো সুযোগ দেননি। দীনেশ কার্তিকেও নিজের প্রথম বিশ্বকাপে বেঞ্চে বসিয়ে রাখ হল আর তারপর হঠাত করে ওকে সেমিফাইনালে মুশকিল সময় ব্যাটিং করার জন্য পাঠিয়ে দেওয়া হল”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *