টিম পেইন এই ভারতীয়কে বললেন বিশ্বর সেরা ক্রিকেটার! 1

বুধবার অ্যামাজন প্রাইম ডকুমেন্টারি সিরিজে, টেস্ট ভিডিওটি প্রকাশ পেয়েছে। এই সিরিজটি কেপটাউন টেস্ট, ২০১৮ সালে সংঘটিত বল-টেম্পারিং কেলেঙ্কারির পরে অস্ট্রেলিয়ান দলের যাত্রার চিত্র তুলে ধরেছে।এই কাণ্ডের পরে দলের রূপান্তর দেখাতে ডকুমেন্টারিটি তৈরি করা হয়েছে যা পুরো ক্রিকেট বিশ্বকে হতবাক করে দিয়েছে এবং এটি অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট এবং দলটি যেভাবে নিজেদেরকে তৈরী করেছে তা দেখানো হয়েছে ।

টিম পেইন এই ভারতীয়কে বললেন বিশ্বর সেরা ক্রিকেটার! 2

সিরিজের তৃতীয় পর্বে অস্ট্রেলিয়ান টেস্ট অধিনায়ক টিম পেইন,বিরাট কোহলি এবং অস্ট্রেলিয়ার ঐতিহাসিক টেস্ট সিরিজ সম্পর্কে কথা বলেছেন ,যে টেস্টটি ভারত ২০১৮-১৯ সালে ২-১ জিতেছিল। সেই মুহূর্তে পেইন ভারতীয় অধিনায়ককে অসামান্য এবং বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় হিসাবে প্রশংসিত করেছিলেন।

টিম পেইন এই ভারতীয়কে বললেন বিশ্বর সেরা ক্রিকেটার! 3

টিম পেইন জানিয়েছেন,“ভারত একটি বৃহৎ দেশ। বিরাট কোহলি ওখানে এতটাই জনপ্রিয় যে তিনি এক ধরণের গ্লোবাল সুপারস্টার হয়ে উঠেছেন। তিনি যেখানেই যান, সেখানে কেবল তার ফ্যানেদের আগমন হয়ে যায়। তারা ঠিক তার চারপাশে ঘিরে থাকে।এই মুহূর্তে সম্ভবত বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় তিনি। আমি তাকে নেটে প্রাকটিস করতে দেখেছি। এবং নেটে বোলওলারদের কি ভাবে খেলেছেন তার ভিডিও আমার কাছে আছে।”
“বিরাট কেবল একজনই হয়”,পেইনের মা বিরাটকে নিয়ে যা বললো।
পেইনরা ভাবছিলো কিভাবে বিরাটকে আউট করা যায় তখন তার মা তাকে যা বলেছিলো তা পেইন জানায়,”সে কেবল একজনই হয়,সে অন্যরকম।” তার মায়ের কথা বিরাট কে প্যাভেলিয়ানে ফিরত পাঠাতে অনেক সাহায্য করে।

টিম পেইন এই ভারতীয়কে বললেন বিশ্বর সেরা ক্রিকেটার! 4
“আমি কেবল বসে বসে তাকে দেখছিলাম এবং আমাদের কয়েকজন খেলোয়াড়দের মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেয়। তিনি যখন ব্যাটিং করছিলেন তখন তাঁর সঙ্গে কথা বলার পরিকল্পনা ছিল না। আমরা যখন ব্যাটিং করছিলাম, তখন তারা যা করতে চায় তা তাদের নিজস্ব ধরণের পরিকল্পনা। এবং আমি নিজের দলকে যথেষ্ট পরিমাণে সাজিয়েছি এবং ভেবেছিলাম আমার নিজেকেও দাঁড়াতে হবে। এটি অন্যতম কারণ ছিল ঘুরে দাঁড়ানোর। আমি কেবল ভেবেছিলাম আমি অধিনায়ক, এখন আমার পালা। আমাকে উঠে দাঁড়াতে হবে এবং তাকে দেখাতে হবে যে আমরা লড়াইয়ের জন্য এসেছি। ”

 

টিম পেইন এই ভারতীয়কে বললেন বিশ্বর সেরা ক্রিকেটার! 5

দুই অধিনায়কের মধ্যে উত্তপ্ত বিনিময় তখনও শুরু হয়নি। প্রথম টেস্ট ভারত অ্যাডিলেডে জিতেছিল। পার্থে ভারতের প্রথম ইনিংস চলাকালীন দু’জনের মধ্যেই যুদ্ধের লড়াই শুরু করার চিন্তা এসেছিলো । এমনকি কথোপকোথনগুলো এমন জায়গায় গিয়েছিল যে আম্পায়ার আসতে বাধ্য হয়েছিল এবং দুই অধিনায়ককে থামাতে হয়েছিল, এবং মনে করিয়ে দাওয়া হয় যে অধিনায়ক হিসাবে তাদের কাছ থেকে এরম ব্যবহার প্রত্যাশা করা হয় না।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *