যখন ভারতীয় দল খেলেছিল খালি স্টেডিয়ামে ম্যাচ, জেনে নিন কোথায় হয়েছিল সেই ম্যাচ 1

অস্ট্রেলিয়া আর নিউজিল্যান্ডের মধ্যে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ খালি স্টেডিয়ামে খেলা হয়েছিল। করোনা ভাইরাসের কারণে ম্যাচ বন্ধ স্টেডিয়ামে খেলা হয়েছে। এরপর এই সিরিজ বাতিল করে দেওয়া হয়। আইপিএলকেও বন্ধ স্টেডিয়ামে করানোর কথা হচ্ছিল কিন্তু এখন এই লীগ স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে। ২৯ মার্চ থেকে শুরু হতে চলা এই টুর্নামেন্ট ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে।

ভারতীয় দল আগেও খেলেছে বন্ধ স্টেডিয়ামে

যখন ভারতীয় দল খেলেছিল খালি স্টেডিয়ামে ম্যাচ, জেনে নিন কোথায় হয়েছিল সেই ম্যাচ 2

ভারতীয় দলও খালি স্টেডিয়ামে ম্যাচ খেলেছে। ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যে ১৯৯৯তে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে টেস্ট ম্যাচ খেলা হয়েছিল। পাকিস্তান প্রথম ইনিংসে ১৮৫ রান করেছিল। ভারতের হয়ে জাভাগল শ্রীনাথ ৫ উইকেট নিয়েছিলেন। প্রথম ইনিংসে ভারতীয় দল ২২৩ রান করে। দল ছোটো লীড পায় কিন্তু পাকিস্তান দ্বিতীয় ইনিংসে দুর্দান্ত ব্যাটিং করে। সঈদ আনোয়ারের ১৮৮ রানের সাহায্যে পাকিস্তান দল ৩১৬ রান করে। ভারত জয়ের জন্য ২৯৭ রানের লক্ষ্য পায়।

শচীন হয়েছিলেন রান আউট

যখন ভারতীয় দল খেলেছিল খালি স্টেডিয়ামে ম্যাচ, জেনে নিন কোথায় হয়েছিল সেই ম্যাচ 3

ভারতীয় ওপেনাররা দ্বিতীয় ইনিংসে ভালো শুরু করেন। প্রথম উইকেটের হয়ে রমেশ আর লক্ষ্মণের জুটি ১০৮ রান করেছিলেন। চার নম্বরে ব্যাট করতে আসা শচীন তেন্ডুলকর ৯ রান করে আউট হন। পাকিস্তানী জোরে বোলার শোয়েব আকতার ইচ্ছাকৃতভাবে শচীনের রাস্তায় আসেন আর যার ফলে তিনি ক্রিজ পর্যন্ত পৌঁছতে পারেননি। এরপর তৃতীয় অ্যাম্পায়ার শচীনকে রান আউট দিয়ে দেন। যারপর মাঠে উপস্থিত দর্শকরা হাঙ্গামা শুরু করে দেন।

খালি স্টেডিয়ামে হয়েছিল ম্যাচ

যখন ভারতীয় দল খেলেছিল খালি স্টেডিয়ামে ম্যাচ, জেনে নিন কোথায় হয়েছিল সেই ম্যাচ 4

পুলিশ দর্শকদের যথেষ্ট বোঝানোর চেষ্টা করে কিন্তু তারা শান্ত হননি। শচীন নিজেও এসে দর্শকদের শান্ত থাকার আবেদন করেন। তারপরও মানুষ শান্ত হয়নি। এরপর দর্শকদের মাঠের বাইরে বের করে দেওয়া হয়। টেস্টের শেষ দিনও স্টেডিয়ামে কোনো দর্শক ছিলেন না। এরপর ম্যাচ খেলা শুরু হয়। দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতীয় দল ২৩২ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল। ভারত এই ম্যাচ ৪৬ রানে হেরে গিয়েছিল।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *