৩টি কারণ, কেনো বিরাট কোহলির পর রোহিত নন বরং শ্রেয়স আইয়ার হতে পারেন ভারতের পরবর্তী অধিনায়ক

ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব বর্তমানে বিরাট কোহলির হাতে রয়েছ। তবে সেই সঙ্গেই এখন ভারতীয় দল ভবিষ্যতের দলও তৈরি করছে। যে কারণেই এখন তরুণ খেলোয়াড়দেরও ইন্ডিয়া এ দলের অধিনায়কত্ব দেওয়া হচ্ছে, যাতে তারা আগামী দিনের জন্য তৈরি থাকেন। বিরাট কোহলির জায়গায় বারবার রোহিত শর্মাকে অধিনায়ক করার দাবী উঠেছে। কিন্তু ভবিষ্যতে ভারতীয় দলের নির্বাচকরা রোহিতের জায়গায় তরুণ খেলোয়াড়দের অধিনায়কত্ব দিতে পারেন। যেখানে এই দৌড়ে সবার আগেই শ্রেয়স আইয়ারকেই দেখা যাচ্ছে। আজ আমরা এমন তিনটি কারণ আপনাদের জানাব যাতে বিরাট কোহলির উত্তরাধিকারী রোহিত শর্মা নন বরং শ্রেয়স আইয়ার হতে পারেন। তবে বর্তমান সময়ে তো এই তিন খেলোয়াড়ই আইপিএলে আলাদা আলাদা দলের হয়ে অধিনায়কত্ব করেন। অন্যদিকে এক সঙ্গে তারা ভারতীয় দলেও খেলছেন।

১. বয়েসের হিসেবে বিরাট কোহলির পর রোহিত নন আইয়ার সঠিক

৩টি কারণ, কেনো বিরাট কোহলির পর রোহিত নন বরং শ্রেয়স আইয়ার হতে পারেন ভারতের পরবর্তী অধিনায়ক 1

বর্তমান সময়ে ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলির বয়স ৩১ বছরের বেশি। অন্যদিকে রোহিত শর্মার বয়সও ৩২ বছর। যে কারণে যদি বিরাট কোহলি আগামী সাত বছর ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব করেন তো তার পর সম্ভবতই রোহিত শর্মাকে দলের অধিনায়কত্ব দেওয়া হবে। অন্যদিকে বিরাট কোহলির জায়গায় শ্রেয়স আইয়ারকেই দলের অধিনায়কত্ব দেওয়া যেতে পারে। এই খেলোয়াড়ের বয় এখন মাত্র ২৫ বছর। যে কারণে বয়সও এই খেলোয়াড়ের সঙ্গেই রয়েছে। শ্রেয়স আইয়ার যদি অধিনায়কত্ব পান তো তিনি দীর্ঘ সময় পর্যন্ত দলের অধিনায়কত্ব করতে পারেন। যে কারণেই বিরাট কোহলির উত্তরাধিকারী হিসেবে রোহিত শর্মার জায়গায় শ্রেয়স আইয়ারের দাবী মজবুত দেখাচ্ছে। শ্রেয়সের ভবষ্যতও ভীষণই উজ্জ্বল দেখাচ্ছে। যার উপর ভারতীয় দলের নির্বাচকদের দৃষ্টি রয়েছে।

২. দুর্দান্ত অধিনায়ক হয়ে উঠছেন শ্রেয়স আইয়ার

৩টি কারণ, কেনো বিরাট কোহলির পর রোহিত নন বরং শ্রেয়স আইয়ার হতে পারেন ভারতের পরবর্তী অধিনায়ক 2

ভালো অধিনায়ক হতে রোহিত শর্মারও টাইম লেগেছে। এখন যদি তিনি দলের পরবর্তী অধিনায়ক হন তো তিনি মাত্র ২ বা ৩ বছরই দলের অধিনায়কত্ব সামলাতে পারেন। যে কারণ হলো তার ক্রিকেট কেরিয়ারও আগামী ৩ বছরের বেশি দেখা যাচ্ছে না। যা তার বিরুদ্ধে যাবে। কোহলি যদি ভারতীয় দলকে ২০২৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত নেতৃত্ব দেন তো তারপর একজন অধিনায়ক হিসেবে শ্রেয়স আইয়ার ভীষণই উন্নত দেখাবেন। যা তিনি মাত্র ২টি আইপিএল মরশুমেই দেখিয়েছেন। আইয়ার ইন্ডিয়া এ দলের হয়েও অধিনায়কত্ব করেছেন। আইপিএলে তিনি দিল্লি ক্যাপিটালসের অধিনায়কত্ব করেন। যেখানে তিনি একটি ভীষণই তরুণ দলকে টপ ৩তে নিয়ে যেতে সফল হয়েছিলেন। আইয়ারকে একজন ভীষণই কুল অধিনায়ক হিসেবে দেখায়। মুশকিল পরিস্থিতিতেও তাকে শান্তভাবে কাজ করতে দেখা যায়।

৩. তরুণ দলের পড়বে তরুণ অধিনায়কের প্রয়োজন

৩টি কারণ, কেনো বিরাট কোহলির পর রোহিত নন বরং শ্রেয়স আইয়ার হতে পারেন ভারতের পরবর্তী অধিনায়ক 3

যদি বর্তমান সময়ে ভারতীয় দলকে দেখা যায় তো বেশকিছু তরুণ খেলোয়াড়কে দলে জায়গা করে নিতে দেখা যাচ্ছে। যে কারণে একটা তরুণ দলকে সামলানোর জন্য ভারতীয় দলের নির্বাচকরা একজন তরুণ খেলোয়াড়কেই দলের দায়িত্ব দেবেন। যাতে তারা ভালো দল তৈরি করতে পারেন। শ্রেয়স আইয়ার যদি দলের অধিনায়ক হন তো তাকে ২০২৭ বিশ্বকাপেও দলের অধিনায়কত্ব করতে দেখা যাতে পারে। এই সিদ্ধান্ত ধোনির সময়ও নেওয়া হয়েছিল। যখন সেহবাগ আর যুবরাজকে উপেক্ষা করে ধোনিকে দলের অধিনায়ক করা হয়েছিল। ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি করা যেতে পারে। আইয়ারের ক্রিকেট খেলার ধরণও ভীষণই ভালো। তাকে সবসময়ই দলের হয়েই খেলতে দেখা যায়। যে কারণেই তিনি কখনো আক্রামণাত্মক শুরু করেন তো কখনো তাকে উইকেট বাঁচাতেও দেখা যায়। যা তাকে অন্য খেলোয়াড়দের তুলনাতেও আলাদা করে। যে কারণে তিনি পছন্দেরও।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *