ক’দিন আগেই গোটা ক্রিকেটবিশ্বকে অবাক করে দিয়ে দেশের সীমিত ওভার ক্রিকেটের নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।এর ফলে অবশ্য দেশের সীমিত ওভার ক্রিকেটে নেতার দায়িত্ব আপনা আপনি চলে আসে টেস্ট অধিনায়ক বিরাট কোহলির কাঁধে।ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সামনের সীমিত ওভার ক্রিকেট সিরিজে কোহলির নেতৃত্বে মাঠে নামবে টিম ইন্ডিয়া।তার আগে এদিন বিসিসিআই টিভিকে দেওয়া সাক্ষা্ৎকারে ভারতের নতুন ওয়ানডে এবং টি-২০ দলের নেতা কোহলি জানিয়ে দিলেন, সামনের ২০১৯ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে ভারতীয় দলকে নেতৃ্ত্ব দেওয়াটা তাঁর কাছে অনেক বড় ব্যাপার।আর সেটাই নাকি তাঁর কাছে অনেক বড় পাওনা।কোহলি বলেন, ‘বিশ্বকাপের কথা শুনলেই বাড়তি উদ্দীপ্ত হই। এরই মধ্যে আমি একটা ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ খেলেছি। দুইবার টি-২০ বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছি। তবে সামনের বিশ্বকাপে জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে খেলাটা আমার জীবনে সবচেয়ে বড় সাফল্য হবে।’

ধোনির খুলে রাখা জুতোতে পা গলিয়ে আগামীদিনে দৌড়ানোর কাজ খুব একটা সহজ হবে না তা বুঝেই এদিন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক কোহলি আরও বলেন, ‘জাতীয় দলে নেতৃত্ব দেওয়ার বিষয়টিতে সত্যি খুব চ্যালেঞ্জের।এতে অনেক কিছু বোঝার প্রয়োজন থাকে। এটি একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া।তবে একটা জিনিষ খুবই ভালো, আমাদের দলের বেশিরভাগ ক্রিকেটাররা তরুণ। ওরা প্রত্যেকে ভবিষ্যতে বড় ক্রিকেটার হওয়ার মানসিকতা নিয়ে ধারাবাহিকভাবে ভালো পারফরম্যান্স করে যাচ্ছে। যেটা দলের একটা অধিনায়কের কাজ অনেক সহজ করে দেয়। এর পাশাপাশি দলে তো ধোনি ভাই থাকছেন।দলের স্বার্থে আশাকরি উনিই মূল্যবান পরামর্শ দেবেন। আমি মনে করি এটা ভারতীয় ক্রিকেটের পক্ষে একটা দারুণ সময়। যেখানে দেশের তরুণ ক্রিকেটাররা বড় প্রতিযোগিতায় ভালো পারফরম্যান্স করে জাতীয় দলে নিজের জায়গা পাকা করার সুযোগ পাচ্ছে।’

২০১৯ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের আগে অধিনায়ক কোহলির সামনে থাকছে ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির চ্যালেঞ্জ।যদিও ভারতীয় দলের এই তরুণ নেতা ওই ‘মিনি বিশ্বকাপ’-এও ভালো ফল করার ব্যপারে আশাবাদী। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সামনেই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি প্রতিযোগিতা। আমার দলের সবাই ওই টুর্নামেন্টে ভালো পারফরম্যান্স করার ব্যাপারে খুব উৎসাহী। আমরা জানি, ওখানে আমাদের কি করতে হবে।’ভারতীয় দলের নতুন কম্বিনেশন নিয়ে কোহলি আরও বলেন, ‘ভারতের একদিনের দলে জায়গা করে নিতে সবাই কঠিন লড়াই চালাচ্ছে। তার মধ্যে দিয়ে আমরা সামনের সিরিজের জন্য একটা সঠিক দল নির্বাচন করেছি। এখন আমাদের প্রধান লক্ষ্য হবে কো্ন ক্রিকেটার দলের প্রয়োজনে নানান ভূমিকায় খেলতে পারবে। পাশাপাশি ওই সব গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটারদের বড় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের প্রস্তুতির জন্য প্রয়োজনীয় সময় দেওয়া হবে। সবকিছুই সহজভাবে নিতে হবে। দলের ক্রিকেটারদের বেড়ে ওঠার জন্য সুযোগ দেওয়া হবে। একই সঙ্গে এটাও বুঝতে হবে, দলের কোনও পজিশনের জন্য কোন ক্রিকেটার বেশি যোগ্য।আশা করি এতে নিশ্চিতভাবে দলে ভারসাম্য বজায় থাকবে।’

 

  • SHARE

    আরও পড়ুন

    বিরাটের কাছেই স্পিন খেলা শিখেছি: স্টিভ স্মিথ

    বিরাটের কাছেই স্পিন খেলা শিখেছি: স্টিভ স্মিথ
    বিশ্ব ক্রিকেটে এই মুহুর্তে তাদের মধ্যে চলছে শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই। তা সত্ত্বেও এই দুজনের মধ্যে একে অপরকে সম্মান...

    তৃতীয় টি২০তে এই তারকার খেলা নিয়ে সন্দেহ

    পিটিআইয়ের একটি রিপোর্টের মোতাবিক তৃতীয় এবং ফাইনাল ওয়ান ডেতে জসপ্রীত বুমরাহের অংশ নেওয়া এখনও সন্দেহজন অবস্থায় রয়েছে।...

    বিশ্বকাপে ভারতীয় স্পিন বিভাগে কারা খেলবেন মুখ খুলনে নির্বাচক প্রধান

    বিশ্বকাপে ভারতীয় স্পিন বিভাগে কারা খেলবেন মুখ খুলনে নির্বাচক প্রধান
    ২০১৯ বিশ্বকাপের বাকি আর মাত্র দেড় বছর। তার আগে গত ২ বছর ধরেই দুরন্ত ফর্মে রয়েছে ভারতীয়...

    অনুষ্কাকে যাবতীয় কৃতিত্ব দিয়ে অবসর নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি

    অনুষ্কাকে যাবতীয় কৃতিত্ব দিয়ে অবসর নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি
    তার ব্যাটিং প্রতিভা নিয়ে সন্দেহ নেই কারও। সকলেই একবাক্যে স্বীকার করে নিয়েছেন যে তিনি ব্যাটিংয়ের জিনিয়াস। তামাম...

    প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে সদ্য সমাপ্ত একদিনের সিরিজে যে যে রেকর্ড গড়লেন ভারত অধিনায়ক বিরাট

    তার শ্রেষ্ঠত্ব মেনে নিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বের সকলেই। বিশ্বের সর্বকালের সেরা একদিনের ক্রিকেটার হিসেবে তাকে মেনেও নিয়েছেন সকলে।...