কোহলি হায়দ্রাবাদ রেপকান্ডকে বললেন লজ্জাজনক, অন্য ক্রিকেটাররাও দিলেন নিজেদের প্রতিক্রিয়া 1

ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি সহ ক্রিকেটের বেশকিছু দিগগজরা হায়দ্রাবাদ রেপকাণ্ডে নিজেদের প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন। হায়দ্রাবাদে ভেটারনারি ডাক্তারের সঙ্গে গ্যাং রেপ আর হত্যার ঘটনা মানুষকে নাড়িয়ে দিয়েছে। ঘটনার ভয়ানক বর্বরতাকে দেখে মানুষের ক্ষোভ ক্রমশ বেড়েই চলেছে।

এই হল হায়দ্রাবাদ রেপকান্ডের মামলা

আপনাদের জানিয়ে দিই যে হায়দ্রাবাদের বাইরের এলাকা শামশাবাদে আউটার রিং রোডের কাছে ওই চিকিৎসককে ধর্ষণ এবং খুন করা হয়। ওই পীড়িতার সম্পূর্ণ পুড়ে যাওয়া দেহ হায়দ্রাবাদ-ব্যাঙ্গালুরু হাইওয়েতে শাদনগর শহরের কাছে পাওয়া গিয়েছে।

বিরাট কোহলি এই ঘটনাকে বললেন লজ্জাজনক

কোহলি হায়দ্রাবাদ রেপকান্ডকে বললেন লজ্জাজনক, অন্য ক্রিকেটাররাও দিলেন নিজেদের প্রতিক্রিয়া 2

এই ঘটনা নিয়ে টুইট করে বিরাট কোহলি লিখেছেন – হায়দ্রাবাদে যা হয়েছে, সেটা ভীষণই লজ্জাজনক। সোশ্যাল মিডিয়াতেও এই ঘটনা নিয়ে যথেষ্ট আক্রোশ রয়েছে। এই তালিকায় টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গে সঙ্গে বেশকিছু দিগগজ ক্রিকেটাররা এই ঘটনা নিয়ে নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সেই সঙ্গে অভিযুক্তদের কড়া শাস্তির দাবীও করেছেন। বিরাট কোহলি নিজের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে টুইট করেছেন যেখানে তিনি আগে লিখেছেন – এখন সময় এসে গিয়েছে যে সমাজ এগিয়ে এসে দায়িত্ব নিক আর এই ধরণের অমানবীয় ঘটনার শেষ করা হোক।

এই হল বিরাট কোহলির সেই টুইট

ভিভিএস লক্ষ্মণও করেছেন টুইট

ভিভিএস লক্ষ্মণ টুইট করে লিখেছেন – কেউ কিভাবে এতটা বর্বর আর জঘন্য অপরাধ করতে পারে। আমি এই ঘটনার ব্যাপারে জেনে অবাক আর কিছু বলতে পারছি না। পীড়িতের পরিবারের প্রতি আমার সহানুভূতি রয়েছে। এটাই সময় যে সরকার কড়া অ্যাকশন নিক আর দোষীদের শাস্তি দিক।

রবিচন্দ্রন অশ্বিনের টুইটও এলো সামনে

রবিচন্দ্রন অশ্বিন টুইট করে লিখেছেন- আমার আফসোস হচ্ছে যে আমি এই ঘটনা নিয়ে টুইট করছি। ও মেয়েটি এটা ডিজার্ভ করত না আর আমার ওর পরিবার আর বন্ধুদের প্রতি যন্ত্রণা ছাড়া আর কিছু অনুভূত হচ্ছে না। এটা একটা ঘৃণ্য কাজ আর ভবিষ্যতে এমন অপরাধ আটকানোর জন্য অপরাধীদের এমন সাজা হওয়া উচিৎ যা আগে কখনো হয়নি”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *