ধোনি এবং তাঁর ইনিংসটি অসাধারণ ছিল, ট্যুইটারে তা স্বীকার করলেন বিরাট কোহলি! 1

এবারের আইপিএলে এই প্রথম ধোনির ব্যাট থেকে বেরিয়ে এলো একটা ম্যাচ উইনিং ইনিংস। মূলত কঠিন সময়ে তাঁর ব্যাটিং ঝড়ের ওপর ভর করে তলানিতে থাকা রাইজিং পুণে সুপার জায়েন্টস শক্তিশালী প্রতিপক্ষ সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে জয় পেয়ে পয়েন্ট টেবিলের ওপরে উঠে এলো। মাহির এহেন মারকাটারি ইনিংসে মুগ্ধ গোটা ক্রিকেটবিশ্ব। বহুদিন বাদে সেই পুরানো ফর্মের ধোনিকে দেখে সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে তাঁর প্রশংসায় মেতে উঠেছেন সমালোচক থেকে ভক্তরা। সে তালিকায় এবার নাম যুক্ত হলো বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেট দলের নেতা বিরাট কোহলির।

ধোনির ফর্ম নিয়ে প্রশ্ন তোলায় সৌরভকে কড়া জবাব দিলেন এই বলিউড তারকা!

ম্যাচের একেবারে শেষ বলে চার রান নিয়ে ধোনিকে ম্যাচ জেতাতে দেখে কোহলি ট্যুইটারে লেখেন, “আজ মহেন্দ্র সিং ধোনি সেটাই করে দেখালেন, যেটা তিনি বিগত লম্বা একটা সময় ধরে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে করে আসছিলেন। কি অসাধারণ একটি ম্যাচ উইনিং ইনিংস খেললেন তিনি। সত্যি বলতে, এমন ইনিংস দেখে খুব ভালো লাগলো।”

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে কোহলির এহেন প্রশংসায় ধোনিভক্তরা টিপ্পনি দিলেন এই বলে যে, “অবশেষে কোহলি মেনে নিলেন ধোনির মধ্যে ভালো খেলার মশলা শেষ হয়নি।”

প্রতিপক্ষ হায়দ্রাবাদ প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে নিজেদের স্কোর বোর্ডে ১৭৬ রান তুলে ফেলে। এই স্কোরকে ধাওয়া করতে নেমে টিম পুণে ১৫ রানের মাথায় অজিঙ্কে রাহানেকে হারিয়ে ফেলে।এরপর অবশ্য রাহুল ত্রিপাঠি ধৈয্যের সঙ্গে ব্যাট করে দলকে ক্রমে সুরক্ষিত স্থানে টেনে আনতে থাকেন। এরপর ফের ম্যাচের মোড় ঘুরে যায় যখন রাহুল এবং নেতা স্টিভ স্মিথ আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান।

ধোনির প্রশংসায় একি বলে ফেললেন, তাঁর পুণে ফ্র্যাঞ্চাইজির একনিষ্ঠ সমালোচক!

ঠিক সেই সময় পুণেকে ম্যাচ জিততে হলে ৪২ বলে ৭৯ রান তুলতে হতো শক্তিশালী হায়দরাবাদের বোলিং লাইন আপের বিরুদ্ধে। ক্রিজে তখন ধোনি এবং বেন স্টোকস। ক্রিকেট ঈশ্বর বোধহয় দিনটি ধোনির জন্যই তুলে রেখেছিলেন। সেই পুরানো ফর্মে মারমুখি মেজাজের ধোনিকে দেখলো ক্রিকেটবিশ্ব। ফের তিনি কঠিন সময়ে দলের হাতে প্রত্যাশিত জয় উপহার তুলে দিলেন। ৩৪ বলে ৬১ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলার পাশাপাশি শেষ বলে চার মেরে দলকে ৬ উইকেটের জয়ে এনে দিয়ে একযোগে সবার মন জিতে নিলেন মাহি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *