অত্যাধিক চাপ ও অক্লান্ত পরিশ্রমের জন্যই চোট পেয়েছেন তিনি, মানছেন ট্রেন্ট বোল্ট 1
ট্রেন্ট বোল্ট

টানা ম্যাচের চাপ, কঠিন অনুশীলন এখনকার দিনে ক্রিকেটের এক প্রতিশব্দ হয়ে দাঁড়িয়েছে। পর পর টেস্ট ও সীমিত ওভারের ম্যাচ খেলাটা খুবই কঠিন ব্যাপার। সবাই এই চাপ সহ্য করতে পারেন না। কার্যত এভাবেই, নিজের অসুস্থ্য হওয়ার জন্য অমানষিক চাপকে দায়ী করলেন কিউই সিম বোলার ট্রেন্ট বোল্ট।

চোটের কারণে কিউই দল থেকে বাদ বোল্ট, দলে এলেন টিম সাউদি

ডুনেডিন টেস্টে অসুস্থ্য বোধ করার ফলে তাঁকে ওয়েলিংটন টেস্ট থেকে অব্যাহতি দেয় নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে একটানা পাঁচটা একদিনের ম্যাচ খেলার পর প্রথম টেস্টের চতুর্থ দিনেই ভেঙে পড়েন বোল্ট। অবশ্য দলের প্রধাণ বোলার হওয়ার জন্য তাঁকে অনেক ওভারও করতে হয়েছে। এই টেস্টে প্রায় ৪৮ ওভার বল করেছেন বোল্ট। একদিনের দুটি ম্যাচ না খেললে হয়ত তিনি সুস্থ্য থাকতে পারতেন এমনটাই মনে করছেন বোল্ট। তিনি বলেন, “এটি সত্যিই একটি কঠিন অবস্থা। কোনও ক্রিকেটারই চায়না সিরিজ চলাকালীন দলে থাকা সত্ত্বেও মাঠের বাইরে থাকতে। দু’একটা একদিনের ম্যাচ না খেললে আজ ফিট থাকতে পারতাম আমি।”

ভারতীয় বোর্ডের তরফ থেকে জানিয়ে দেয়া হল বিরাটের চোট গুরুতর নয়!

এদিকে বোল্টের কথায় কথা মিলিয়েছে তাঁরই সতীর্থ টিম সাউদি। দ্বিতীয় টেস্টে বোল্টের পরিবর্তে দলে জায়গা হয়েছে তাঁর। তিনি বলেন, “টেস্ট ম্যাচে সবাই বেশি বল করতে চায়। বেশি বল করলে তবেই বেশি উইকেট পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই কাজের চাপের কথা চিন্তা না করেই মাঠে নামতে হয়। এই জায়গাটায় একটু নজর দেওয়া দরকার।”

ওয়েলিংটন টেস্টে না খেলতে পারলেও, হ্যামিলটনে শেষ টেস্টে ফিরতে প্রত্যয়ী বোল্ট। তিনি বলেন, “শেষ টেস্টে দলে ফেরার জন্য সমস্ত রকম প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তৃ্তীয় টেস্ট শুরু হওয়ার আগেই আশাকরি আমি ফিট হয়ে যাব।”

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *