টিম ইন্ডিয়ার হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জিতেছেন এই তারকা ব্যাটসম্যান, এখন রোহিতের জন্য কেরিয়ার নষ্ট! 1

টিম ইন্ডিয়ার (India)0 অধিনায়ক রোহিত শর্মার (Rohit Sharma) কারণে, একজন ড্যাশিং ব্যাটসম্যানের টেস্ট কেরিয়ার সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস হয়ে গেছে। এই ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মার মতো ঝড়ো ব্যাটিংয়ে পারদর্শী এবং ২০১৩ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও ভারতকে বিজয়ী করেছেন। এই দুর্ভাগা খেলোয়াড়ও রোহিত শর্মার ঘনিষ্ঠ বন্ধু, কিন্তু হিটম্যান নিজেই এই ব্যাটসম্যানের জন্য খলনায়ক প্রমাণিত হয়েছিল। নিজের সেরা বন্ধুর টেস্ট কেরিয়ারের ইতি টানলেন রোহিত শর্মা। এখন টেস্ট দলে এই খেলোয়াড়ের ফেরা কল্পনা করাও অসম্ভব। এখন টিম ইন্ডিয়ার বর্তমান অধিনায়ক রোহিত শর্মা সহ সবাই টেস্ট দলে জায়গা নিয়ে এই খেলোয়াড়ের দিকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন।

রোহিতের কারণেই ধ্বংস হয়ে গেল এই খেলোয়াড়ের কেরিয়ার!

It Was Not Right, He Could Have Been Treated Slightly Better – Aakash Chopra On Shikhar Dhawan's Test Career

টেস্ট ক্রিকেটে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন না এই খেলোয়াড়। যে ব্যাটসম্যান নির্বাচকদের উপেক্ষা করছেন, তিনি রোহিত শর্মার মতো ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে পারদর্শী। একটা সময় ছিল যখন ৩৫ বছর বয়সী শিখর ধাওয়ানকে (Shikhar Dhawan) টিম ইন্ডিয়ার সবচেয়ে বড় ম্যাচ জয়ী বলে মনে করা হতো, কিন্তু এখন শিখর ধাওয়ানের টেস্ট কেরিয়ারে সবচেয়ে বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছেন রোহিত শর্মা। শিখর ধাওয়ানকে দীর্ঘদিন টেস্ট দলে সুযোগ দিচ্ছেন না নির্বাচকরা। টেস্ট অধিনায়ক হওয়ার পর ওপেনিং পজিশন থেকে রোহিত শর্মাকে সরিয়ে দেওয়া কঠিন। রোহিত শর্মার সাথে, এখন হয় কেএল রাহুল (KL Rahul) টেস্ট দলে ওপেনার হিসেবে সুযোগ পান বা মায়াঙ্ক আগরওয়াল সুযোগ পান। শিখর ধাওয়ানের জন্য টেস্ট দলের দরজা এখন বন্ধ। সবাই মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন শিখর ধাওয়ানের দিকে।

মুখ ফিরিয়ে নিলেন নির্বাচকরা

The Fastest Debut Test Century By Shikhar Dhawan | Chase Your Sport - Sports Social Blog

শিখর ধাওয়ানের পরিবর্তে এখন টেস্ট দলে কেএল রাহুল এবং মায়াঙ্ক আগরওয়ালকে (Mayank Agarwal) বেশি সুযোগ দেওয়া হয়েছে। টেস্ট ক্রিকেটের কথা বলতে গেলে, ধাওয়ান শেষবার ভারতের হয়ে ২০১৮ সালে লাল বলের ক্রিকেট খেলেছিলেন। আমরা যদি শিখর ধাওয়ানের পরিসংখ্যান দেখি, তাকে ক্রিকেটের সমস্ত ফর্ম্যাটে শীর্ষ খেলোয়াড় হিসাবে দেখা যায়। টেস্ট ক্রিকেটেও, শিখর ৩৪ ম্যাচে ৪১ গড়ে ২৩০০ রান করেছেন, যার মধ্যে তিনি ৭ সেঞ্চুরি করেছেন, কিন্তু মনে হচ্ছে নির্বাচকরা ধাওয়ানকে সঠিকভাবে মূল্যায়ন করেননি। ২০১৩ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে প্রথমবারের মতো ক্যারিশম্যাটিক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি (MS Dhoni) রোহিত শর্মা এবং শিখর ধাওয়ানকে ওপেন করতে নিয়ে আসেন। তারপর থেকে দুজনেই ভারতীয় ব্যাটিংয়ের ভিত্তি হয়ে ওঠেন। একসঙ্গে টপ অর্ডারে অনেক রান করেছিলেন তারা।

Leave a comment

Your email address will not be published.