লেফট হ্যান্ডার ডে স্পেশাল: বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঁহাতি খেলোয়াড়দের প্লেয়িং ইলেভেন, ইনি হলেন অধিনায়ক

গতকাল বিশ্বজুড়ে লেফট হ্যান্ডার ডে পালন করা হয়েছে। যে কারণে আপনাদের ক্রিকেট দুনিয়ার বাঁ হাতি খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া প্লেয়িং ইলেভেনের ব্যাপারে আমরা জানাতে চলছি। এই তালিকায় বেশ কিছু তারকা খেলোয়াড় শামিল রয়েছে। যারা নিজেদের দলকে বেশ কিছু ম্যাচ জিতিয়েছেন। এই তালিকায় বেশ কিছু ভারতীয় দলের খেলোয়াড়ও শামিল রয়েছেন। এই দলের অধিনায়কত্বও একজন ভারতীয় খেলোয়াড়কে দেওয়া হয়েছে।

এই ১১জন খেলোয়াড় শামিল রয়েছেন সর্বশ্রেষ্ঠ বাঁহাতি প্লেয়িং ইলেভেন

১. সৌরভ গাঙ্গুলী (অধিনায়ক)

এই প্লেয়িং ইলেভেনে অধিনায়কত্বের দায়িত্বের সঞগেই ওপেনিং ব্যাটসম্যানের দায়িত্ব ভারতীয় তারকা সৌরভ গাঙ্গুলীর কাঁধেই দেওয়া হয়েছে। সৌরভ ভারতীয় দলের হয়ে ১১৩টি টেস্ট ম্যাচে ৪২.১৮ গড়ে ৭২১২ রান আর ৩১১টি একদিনের ম্যাচে ৪০.৭৩ গড়ে ১১৩৬৩ রান করেছেন। সৌরভ গাঙ্গুলী নিজের অধিনায়কত্বে ভারতীয় দলকে আলাদাই মাত্রা দিয়েছিলেন। সৌরভ গাঙ্গুলী তার আক্রামণাত্মকতার জন্যই পরিচিত ছিলেন।

২. অ্যাডাম গিলক্রিস্ট

উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান আর দ্বিতীয় ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসেবে অ্যাডাম গিলক্রিস্টকে খেলতে দেখা যাবে। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের এই তারকা খেলোয়াড় ৯৬টি টেস্ট ৪৭.৬১ গড়ে ৫৫৭০ রান করেছিলেন। একদিনের ক্রিকেটে অ্যাডাম ২৮৭টি ম্যাচ খেলে ৩৫.৮৯ গড়ে ৯৬১৯ রান করেছেন। এই খেলোয়াড় একজন উইকেটকিপার হিসেবে এমন রেকর্ড গড়েছেন যা ভাঙা যে কোনো খেলোয়াড়ের পক্ষেই মুশকিল দেখায়।

৩. কুমার সাঙ্গাকারা

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের তারকা খেলোয়াড় কুমার সাঙ্গাকারা ৩ নম্বরে ব্যাট করার জন্য সর্বশ্রেষ্ঠ ব্যাটসম্যান। এই তারকা খেলোয়াড় শ্রীলঙ্কার হয়ে ১৩৪টি টেস্টে ৫৭.১৪ গড়ে ১২৪০০ রান করেছেন। একদিনের কেরিয়ারেও এই খেলোয়াড় ৪০৪টি ম্যাচ খেলে ৪১.৯৯ গড়ে ১৪২৩৪ রান করেছেন। কুমার সাঙ্গাকারা এর মধ্যে সমস্ত ফর্ম্যাট মিলিয়ে ৬৩টি সেঞ্চুরি করেছেন।

৪. ব্রায়ান লারা

বাঁহাতি সর্বশ্রেষ্ঠ ব্যাটসম্যানদের তালিকায় এই খেলোয়াড়ের নাম থাকবে না এমনটা হওয়া মুশকিল। ব্রায়ান লারা মিডল অর্ডারে ব্যাট করে হাজারো রান করেছেন। ওয়েস্টইন্ডিজের হয়ে লারা টেস্ট ক্রিকেটে ১৩১টি ম্যাচ খেলে ৫২.৮৯ গড়ে ১১৯৫৩ রান করেছেন। একদিনের ক্রিকেটে লারা ২৯৯টি ম্যাচ খেলে ৪০.১৭ ফড়ে ১০৪০৫ রান করেছেন। এই খেলোয়াড়কে অনেক বড়ো ম্যাচ উইনার বলা হত।

৫. মাইক হাসি

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের তারকা বাঁহাতি ব্যাটসম্যান মাইক হাসি বেশ কিছু ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেছেন। মাইক হাসি অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে ৭৯টি ম্যাচ খেলেছেন। যার মধ্যে তিনি ৫১.৫৩ গড়ে ৬২৩৫ রান করেছেন। একদিনের কেরিয়ারে হাসি ১৮৫টি ম্যাচ খেলে ৪৮.১৬ গড়ে ৫৪৪২ রান করেছেন। টি-২০ ক্রিকেটেও এই খেলোয়াড় ৩৮টি ম্যাচ খেলে ৩৭.৯৫ গড়ে ৭২১ রান করেছেন। মিডল অর্ডারে এই খেলোয়াড় দুর্দান্ত ছিলেন।

৬. যুবরাজ সিং

সম্প্রতিই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানানো যুবরাজ সিং একজন অলরাউণ্ডার হিসেবে ভীষণই ভাল প্রদর্শন করেছেন। ভারতীয় দলের হয়ে যুবরাজ সিং টেস্ট ক্রিকেটে ৪০টি ম্যাচ খেলেছেন, যার মধ্যে তিনি ৩৩.৯৩ গড়ে ১৯০০ রান করেছেন। একদিনের ক্রিকেটে যুবরাই ৩০৪টি ম্যাচ খেলেছেন, যার মধ্যে ৩৬.৫৬ গড়ে তিনি ৮৭০১ রান করেছেন আর ১১১টি উইকেটও নিয়েছেন। টি-২০তে যুবরাজ ৫৮টি ম্যাচ খেলেছে যার মধ্যে তার ব্যাট থেকে ১১৭৭ রান এসেছে আর তিনি ২৮টি উইকেটও নিয়েছেন।

৭. সাকিব আল হাসান

বাংলাদেশ ক্রিকেটের তারকা অলরাউন্ডার এই তালিকায় ৭ নম্বরে জায়গা পেয়েছেন। সাকিব বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে ৫৫টি ম্যাচ খেলে ৩৯.৬৬ গড়ে ৩৮০৭ রান করেছেন আর ২০৫টি উইকেট নিয়েছেন। একদিনের ক্রিকেটে ২০৬টি ম্যাচ খেলে তিনি ৩৭.৬৪ গড়ে ৬৩২৩ রান করেছেন আর ২৬০টি উইকেট নিয়েছেন। টি-২০ ক্রিকেটে সাকিব ৭২টি ম্যাচ খেলে ২৩.৩৫ গড়ে ১৪৭ রান করেছেন আর ৮৮টি উইকেট নিয়েছেন।

৮. ওয়াসিম আক্রম

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের তারকা জোরে বোলার ওয়াসিম আক্রম এই প্লেয়িং ইলেভেনে বোলিং ইউনিটের নেতৃত্ব দেবেন। ওয়সিম আক্রম পাকিস্তান দলের হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে ১০৪টি ম্যাচ খেলে ২৩.৬২ গড়ে ৪১৪টি উইকেট হাসিল করেছেন। ওয়সিম আক্রম একদিনের ক্রিকেটে ৩৫৬টি ম্যাচ খেলেছেন। যারমধ্যে তিনি ২৩.৫৩ গড়ে ৫০২টি উইকেত হাসিল করেছেন। ব্যাট হাতে তিনি ৩৭১৭ রানও করেছেন।

৯. জাহির খান

ভারতের বাঁহাতি জোরে বোলার জাহির খানও স্বয়ং একজন ম্যাচ উইনার প্রমানিত হয়েছেন। জাহির ভারতীয় দলের হয়ে ৯২টি টেস্ট ম্যাচে ৩২.৯৫ গড়ে ৩১১টি উইকেট নিয়েছেন। একদিনের ম্যাচে জাহির খান ২০০ ম্যাচ খেলে ২৯.৪৪ গরে ২৮২টি উইকেট হাসিল করেছেন। এই তারকা ভারতীয় দলের হয়ে টি-২০ ক্রিকেটে ১৭টি ম্যাচ খেলে ২৬.৩৫ গড়ে ১৭টি উইকেট নিয়েছেন।

১০. মিচেল জনসন

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের তারকা জোরে বোলার মিচেল জনসনও নিজের বোলিংয়ের দমে অস্ট্রেলিয়া দলকে বেশ কিছু ম্যাচ জিতিয়েছেন। অস্ট্রেলিয়া দলের হয়ে মিচেল জনসন টেস্ট ক্রিকেটে ৭২টি ম্যাচ খেলেছেন। যার মধ্যে তিনি ২৮.৪১ গড়ে ৩১৩টি উইকেট নিয়েছেন। একদিনের ক্রিকেটে এই খেলোয়াড় ১৫৩টি ম্যাচে ২৫.২৬ গড়ে ২৩৯টি উইকেট হাসিল করেছেন। টি-২০তে তিনি ৩০টি ম্যাচ খেলে ২০.৯৭ গড়ে ৩৮টি উইকেট নিয়েছেন।

১১. ট্রেন্ট বোল্ট

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের হয়ে গত বেশকিছু সময় ধরে ভীষণই ভাল প্রদর্শন করা ট্রেন্ট বোল্ট এই তালিকায় নিজের জায়গা করে নিয়েছেন। ট্রেন্ট বোল্ট এখনো পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে ৬১টি ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে তিনি ২৭.৫৪ গড়ে ২৪৬টি উইকেট নিয়েছেন। একদিনের কেরিয়ারে এই খেলোয়াড় ৮৯টি ম্যাচ খেলে ২৫.০৭ গড়ে ১৬৪টি উইকেট নিয়েছেন। টি-২০ ক্রিকেটে বোল্ট ২৫টি ম্যাচে ২১.১৯ গড়ে ৩৭টি উইকেট নিয়েছেন।

আরও পড়ুন

যুবরাজ সিংয়ের অবদানের কথা মাথায় ১২ নম্বর জার্সি কে ” অবসর ” দেওয়া হোক, বিসিসিআই কে এমন পরামর্শ দিলেন গৌতম গম্ভীর

সম্প্রতি একটি প্রতিবেদনে বিসিসিআই কে " ১২ " নম্বর জার্সিকে অবসরে পাঠানোর আবেদন করলেন প্রাক্তন ভারত ক্রিকেটার...

দীপাবলির আগে ভারতীয় খেলোয়াড়দের বিসিসিআই দিল বাম্পার গিফট, এখন হবে টাকার বৃষ্টি

বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে ধোনি ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই সবসময়ই তাদের ব্যানারের তলায় অর্থাৎ ভারতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে খেলা...

হার্দিক পাণ্ডিয়া আর উর্বশী রাউতেলার মধ্যে এখনো চলছে কিছু? ছবির কমেন্ট বলছে এই কথা

হার্দিক পাণ্ডিয়া আর উর্বশী রাউতেলার মধ্যে এখনো চলছে কিছু? ছবির কমেন্ট বলছে এই কথা
ভারতীয় ক্রিকেট দলের তারকা অলরাউন্ডার হার্দিক পাণ্ডিয়া আজ দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হিসেবে নিজের পরিচিতি তৈরি করে...

বিশ্বকাপ ২০১৯ সেমিফাইনালে ভারতের হারের দায় একে মানেন COA প্রধান বিনোদ রায়

বিশ্বকাপ ২০১৯ সেমিফাইনালে ভারতের হারের দায় একে মানেন COA প্রধান বিনোদ রায়
ইংল্যান্ড আর ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের আতিথেয়তায় সম্প্রতিই শেষ হওয়া আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯এ বিরাট কোহলির অধিনায়কত্বে ভারতীয়...

ভারতকে ২০১১ বিশ্বকাপ জয়ী করা গৌতম গম্ভীর করলেন শচীন আর যুবরাজকে চ্যালেঞ্জ

ভারতকে ২০১১ বিশ্বকাপ জয়ী করা গৌতম গম্ভীর করলেন শচীন আর যুবরাজকে চ্যালেঞ্জ
যে কোনো খেলায় খেলোয়াড়দের জন্য সফলতার সবচেয়ে বড়ো রহস্য তাদের ফিটনেস হয়। ফিটনেস খেলার এমন একটা ভাগ...