বোর্ড কর্তাদের তীব্র সমালোচনা করে রায়ডুর পাশে দাড়ালেন এই প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার 1

হঠাৎ করে গোটা ক্রিকেট বিশ্বকে অবাক করে সবধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে নিলেন ভারতীয় ব‍্যাটসম‍্যান আম্বাতি রায়ডু। এবছর বিশ্বকাপের দলে তার পনেরো জনের দলে থাকার সম্ভাবনা ছিলো প্রবল, যদিও শেষ মুহূর্তে তা না হওয়ায় খানিকটা হতাশ ছিলেন তিনি , এবং সেই হতাশাই শেষ অবধি রায়ডু কে এমন অবাক করা সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করেছে বলেই মনে করা হচ্ছে। বিশ্বকাপের মাঝে রায়ডুর এমন অবসর নেওয়ার খবর ঘিরে ঋতিমতো তোলপাড় ভারতীয় ক্রিকেট মহল। ইতিমধ্যে রায়ডুর পাশে দাড়িয়েছে বেশ কিছু প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার।

বোর্ড কর্তাদের তীব্র সমালোচনা করে রায়ডুর পাশে দাড়ালেন এই প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার 2

আরও একবার রায়ডুর হয়ে সুর চড়ালেন প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার গৌতম গম্ভীর। একসময় রায়ডু বিশ্বকাপের দলে সুযোগ না পেলে নির্বাচকদের একহাত নিয়েছিলেন গম্ভীর, এবার এই ব‍্যাটসমান অবসর নিতেই ফের আরেকবার নির্বাচকদের তীর্যক মন্তব‍্যে বিঁধলেন গৌতি।

জানিয়েছেন এবারের বিশ্বকাপে তাকে সবচেয়ে বেশী হতাশ করেছেন তাকে এবারের বিশ্বকাপের নির্বাচক কমিটি।তাদের কলকাঠি নাড়াতেই রায়ডু এমনটা ক‍রতে বাধ্য হলেন বলেই মনে করেন২০১১এর বিশ্বকাপ জয়ী ভারতীয় ক্রিকেট দলের সদস্য।

বোর্ড কর্তাদের তীব্র সমালোচনা করে রায়ডুর পাশে দাড়ালেন এই প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার 3

২০১৩ সালে হারারে তে জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে ভারতের হয়ে অভিষেক হয় রায়ডুর।সেই সময় ভারতীয় ক্রিকেটের উদীয়মান তারকা মনে করা হচ্ছিলো তাকে।কিন্তু পরবর্তী সময় ধারাবাহিকতা না দেখানোর ক্রমশ অপ্রাসঙ্গিক হয়ে পড়েন ভারতীয় দলে।দেশের হয়ে ৫৫ টি ওয়ানডে এবং ৬ টি টোয়েন্টি ম‍্যাচে খেলতে দেখা গেছে রায়ডুকে।ওয়ানডে তে তার রান সংখ্যা ১৬৯৪ ।গড় – ৪৭.০৫ । সর্বোচ্চ – ১২৪* । রয়েছে ১০ টি অর্ধশতরান এবং ৩ টি শতরান।অন‍্যদিকে ৫টি টোয়েন্টি ম‍্যাচে তিনি করেছিলেন ৪২ রান।

বোর্ড কর্তাদের তীব্র সমালোচনা করে রায়ডুর পাশে দাড়ালেন এই প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার 4

এবছর বিশ্বকাপের পনেরো জনের দলে তার থাকা নিয়ে একপ্রকার নিশ্চিত ছিলেন সকলে।এমনকি বহুল চর্চিত দলের ব‍্যাটিং অর্ডারে চার নম্বরে রায়ডুকে খেলতে দেওয়ার নিয়ে উঠেছিল জোড়ালো দাবি।কিন্তু নির্বাচকরা অন‍্যকিছু ভেবে রেখেছিলো এক্ষেত্রে,দল ঘোষণা দিন সকলকে চমকে দিয়ে তারা বিজয় শংকর সুযোগ দেয়। এদিক পরবর্তী সময়ে রায়ডুকে নিয়ে তীব্র চাপানোতর তৈরী হলে নির্বাচকরা বিশ্বকাপের অতিরিক্ত ক্রিকেটারের দলে রাখে।যদিও প্রথম পনেরো জনের দলে সুযোগ না পাওয়ায় খানিকটা হতাশ রায়ডু ।হতাশা আরও গভীরতর হয়, যখন শিখর ধাওয়ান এবং বিজয় শঙ্কর চোটের জন্য দল থেকে ছিটকে গেলেও দলে সুযোগ হয়না রায়ডুর ।এরপর কার্যত হতাশা থেকেই কেরিয়ারের এমন ইতি টানলেন এই ব‍্যাটসম‍্যান ,এমনটাই মনে করা হচ্ছে।যদিও বিসিসিআই কে অবসরপত্রে রায়ডু তার অবসর নেওয়ার কোনো কারন বিশেষ উল্লেখ করেনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *