ভারতের এই তিন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানকে যদি দেওয়া হতো ওপেনিংয়ের সুযোগ তো করতে পারতেন কামাল

ক্রিকেটের খেলায় এমনিতে মাঠে কোনো দলের হয়ে নামা ১১জন খেলোয়াড়ের সবারই মিলিয়ে জুলিয়ে বিশেষ যোগদান থাকে, কিন্তু যখন এদের মধ্যে থেকে ওপেনিং ব্যাটসম্যানদের কথা বলা হয় তো যে কোনো দলের হয়ে ওপেনিং ব্যাটসম্যানরা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হন। কারণ একজন ওপেনিং ব্যাটসম্যান যে কোনো দলের স্কোরের ভিত তৈরি করেন।

এই তিন ব্যাটসম্যানকে ওপেনিংয়ে সুযোগ দেওয়া হলে হতেন বড়ো ওপেনার

ভারতের এই তিন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানকে যদি দেওয়া হতো ওপেনিংয়ের সুযোগ তো করতে পারতেন কামাল 1

ওপেনিং ব্যাটসম্যানরা নিজের দলের জয়ের একটা ভিত তৈরি করেন। এমনিতে ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসের কথা বলা হলে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে এক সে এক তারকা ব্যাটসম্যান এসেছেন যারা খুব স্পেশাল পরিচিতি পেয়েছেন। ভারত শচীন তেন্ডুলকর, সৌরভ গাঙ্গুলী, বীরেন্দ্র সেহবাগ বা রোহিত শর্মার মতো মহান ওপেনিং ব্যাটসম্যান পেয়েছে। ভারতের হয়ে বীরেন্দ্র সেহবাগ আর রোহিত শর্মা এমন ব্যাটসম্যান থেকেছেন যারা মিডল অর্ডার থেকে ওপেনিং ব্যাটসম্যান হয়েছেন আর আজ তাদের নাম ওপেনিংয়ে বিশ্বস্তরে রয়েছে। কিন্তু কিছু এমন ব্যাটসম্যান থেকেছেন যদি তাদের ওপেনিংয়ের সুযোগ দেওয়া হতো তো তারাও একজন বড়ো শক্তিশালী ওপেনিং ব্যাটসম্যান হতে পারতেন।

সুরেশ রায়না

ভারতের এই তিন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানকে যদি দেওয়া হতো ওপেনিংয়ের সুযোগ তো করতে পারতেন কামাল 2

ভারতীয় ক্রিকেট দলের মিডল অর্ডারের বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান থাকা সুরেশ রায়নার যোগদান ভীষণই ভালো থেকেছে। সুরেশ রায়না আজ যতই দলের থেকে বাইরে থাকুন কিন্তু ওয়ানডেতে তিনি ভারতকে বেশকিছু ম্যাচ জিতিয়েছেন। সুরেশ রায়না ভারতীয় দলের হোয়ে ২২৬টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন যার মধ্যে ৫ হাজারের বেশি রান করেছেন। সুরেশ রায়না যথেষ্ট বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে ব্যাটিং করার জন্য পরিচিত। তার মধ্যে দ্রুতগতিতে খেলার ক্ষমতাও রয়েছে তো উইকেট টিকে থেকে খেলার ক্ষমতাও রয়েছে। এই অবস্থায় যদি তাকে ওয়ানডেতে ওপেনিংয়ের সুযোগ দেওয়া হত তো তিনিও একজন দারুণ সফল ওপেনিং ব্যাটসম্যান হতে পারতেন।

আম্বাতি রায়ডু

ভারতের এই তিন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানকে যদি দেওয়া হতো ওপেনিংয়ের সুযোগ তো করতে পারতেন কামাল 3

ভারতীয় ক্রিকেট দলে এক সে এক তারকা খেলোয়াড় খেলেছেন। ভারতের হয়ে সেইভাবেই হায়দ্রাবাদের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান আম্বাতি রায়ডুও খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন। আম্বাতি রায়ডুকে এমনিতে তো খুব বেশি খেলার সুযোগ দেওয়া হয়নি কিন্তু তিনি ভারতের হয়ে খেলা ৫৫টি ওয়ানডে ম্যাচে ৪৭ এরও বেশি গড়ে প্রায় ১৭০০ রান করেছেন। আম্বাতি রায়ডুর প্রতিভার অভাব ছিল না আর তিনি মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলেছেন। রায়ডু দেখিয়েছেন যে তার মধ্যে ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসেবেও খেলার ক্ষমতা রয়েছে। চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে রায়ডু ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসেবে ভালো খেলেছেন। যদি রায়ডুকে ভারতের হয়েও ওপেনিংয়ের সুযোগ দেওয়া হতো তো তার সফলতার স্তর আরো বেশি হতে পারত।

যুবরাজ সিং

ভারতের এই তিন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানকে যদি দেওয়া হতো ওপেনিংয়ের সুযোগ তো করতে পারতেন কামাল 4

ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসে মিডল অর্ডারের সবচেয়ে ভালো ব্যাটসম্যানদের উল্লেখ যখনই করা হবে তো প্রাক্তন তারকা ব্যাটসম্যান যুবরাজ সিংয়ের নাম সবার আগে স্মরণে আসবে। যুবরাজ সিংয়ের ভারতীয় দলের হয়ে বড়ো যোগদান থেকেছে আর তিনি মিডল অর্ডারে ব্যাটিং করে না জানি কত জয়ের ভিত্তি স্থাপন করেছেন। তিনি ৩০০র বেশি ওয়ানডে খেলেছেন আর ৮ হাজারের বেশি রান করেছেন। যুবরাজ সিং অসাধারণ মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান থেকেছেন, কিন্তু এমনটা নয় যে যুবি ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতে পারতেন না। যুবরাজ সিংয়ের ব্যাটিং শৈলি এমন থেকেছে যে তিনি যে কোনো জায়গায় খেলতে সক্ষম ছিলেন। যদি যুবরাজ সিংকে ওপেনিংয়ের সুযোগ দেওয়া হতো তো তিনি মিডল অর্ডারের চেয়েও বেশি সফলতা হাসিল করতে পারতেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *