TOP5: ভারতের যে পাঁচটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে পারে ২০২৩ বিশ্বকাপের ফাইনাল 1

২০১৯ বিশ্বকাপের দিন গণনা শুরু হয়ে গেছে অনেক আগেই। বিশ্ব আসরের এই মহারণের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ইংল্যান্ডের ঐতিহাসিক লর্ডস স্টেডিয়ামে। লর্ডসে বিশ্বকাপের সমাপ্তির পর ২০২৩ বিশ্ব আসরের জন্য নৌকার পালে হাওয়া লাগিয়ে এসে নোঙর করবে বিশ্বের দ্বিতীয় জনবহুল দেশ ভারতে।

২০১৫ বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যনাড যৌথভাবে আয়োজন করলেও ২০২৩ বিশ্বকাপ আয়োজক দেশ কেবল ভারত। অন্যদিকে ২০১১ সালে ওয়ানডে ফরম্যাটের শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের টুর্নামেন্টে ভারত, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ যৌথভাবে আয়োজন করলেও ফাইনাল ম্যাচটি হয় মুম্বাইয়ের ওয়াংখেরে স্টেডিয়ামে।

এখানে দেখে নেওয়া যাক আইসিসির ২০২৩ আসরের ফাইনালের জন্য সবচেয়ে এগিয়ে আছে যে পাঁচটি স্টেডিয়াম

 

৫. ভারত রত্ন অটল বিহারী বাজপেয়ী ক্রিকেট স্টেডিয়াম, লক্ষ্ণৌTOP5: ভারতের যে পাঁচটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে পারে ২০২৩ বিশ্বকাপের ফাইনাল 2

ভারতের উত্তর প্রদেশে অবস্থিত স্টেডিয়ামটি পূর্বে পরিচিত ছিল একানা স্টেডিয়াম হিসেবে বর্তমানে এর নামকরণ করা হয়েছে ভারত রত্ন অটল বিহারী বাজপেয়ী স্টেডিয়াম। সারা বিশ্বে অবস্থিত স্টেডিয়ামগুলোর মধ্যে অন্যতম সৌন্দর্য্যমণ্ডিত স্টেডিয়ামটি যে কারো নজর কাড়বে সহজেই। ৫০,০০০ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতা নিয়ে তৈরি স্টেডিয়ামটিতে হতে পারে ২০২৩ বিশ্বকাপ আসরের ফাইনাল। সম্প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একটি টি-২০ ম্যাচও অনুষ্ঠিত হয়েছে এই স্টেডিয়ামে।

৪. এম চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম, ব্যাঙ্গালুরুTOP5: ভারতের যে পাঁচটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে পারে ২০২৩ বিশ্বকাপের ফাইনাল 3

ব্যাঙ্গালুরুর দর্শকরা ঘরোয়া লিগ থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক ম্যাচে সর্বদাই নিজের পছন্দের দলকে সমর্থন দিয়ে থাকেন গলা ফাটিয়ে। ৩৮,০০০ হাজার সমর্থককে জায়গা দেয়ার ক্ষমতা থাকা স্টেডিয়ামটিতে ২০১১ বিশ্বকাপের ভারত-ইংল্যান্ড ম্যাচ, ২০১৬ টি-২০ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ-ভারত উত্তেজনাপূর্ন ম্যাচ সহ ১৯৯৬ বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। চিন্নাস্বামীর পিচে ব্যাট বলের লড়াই দর্শকদের বাড়তি উত্তেজনা দিবে এতে কোনো সন্দেহ নেই। তাই ২০২৩ বিশ্বকাপের সমাপ্তিমূলক ফাইনাল হতে পারে এখানেই।

৩. ওয়াংখেরে স্টেডিয়াম, মুম্বাইTOP5: ভারতের যে পাঁচটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে পারে ২০২৩ বিশ্বকাপের ফাইনাল 4২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচের আয়োজক ওয়াংখেরে স্টেডিয়াম ২০২৩ আসরেও ফাইনাল আয়োজনে রয়েছে কিছুটা এগিয়েই। যদিও এই স্টেডিয়ামটির দর্শক ধারণ ক্ষমতা ৩৩,১০৮ জন তবুও রঙ ছড়ানো ম্যাচ দেখা যেতে পারে মুম্বাইয়ের এই স্টেডিয়ামটিতে। ২০১৬ টি-২০ বিশ্বকাপ চলাকালে ভারতের ম্যাচ না থাকা সত্ত্বেও দর্শকের কোনো কমতি ছিল না ওয়াংখেরে স্টেডিয়ামে। দর্শকের উপস্থিতির কথা মাথায় রেখে ২০২৩ বিশ্ব আসরের ফাইনাল এই স্টেডিয়ামে বসেই দেখার সুযোগ করে দিতে পারেন সংশ্লিষ্টরা।

২. ইডেন গার্ডেন, কলকাতাTOP5: ভারতের যে পাঁচটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে পারে ২০২৩ বিশ্বকাপের ফাইনাল 5ভারতের প্রাচীনতম এবং বৃহত্তম স্টেডিয়াম ইডেন গার্ডেন ইতিপূর্বে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৮৬৪ সালে বহু সংখ্যক ম্যাচের আয়োজন করা স্টেডিয়ামটিতে দর্শক ধারণ ক্ষমতা ৬৮,০০০। নির্মিত হবার পর দুইবার সংস্কার করা স্টেডিয়ামটিতে ১৯৮৭ সালে ফাইনাল ম্যচে জয় লাভ করে অস্ট্রেলিয়া। তবে ২০১১ বিশ্বকাপে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিভিন্ন কারণে স্টেডিয়ামটিকে অনিরাপদ মনে করায় সেখানে অনুষ্ঠিত হয় মাত্র তিনটি ম্যাচ। যার মধ্যে জিম্বাবুয়ে বনাম কেনিয়ার ম্যাচে বিক্রি হয়েছিল সাকুল্যে ১৫টি টিকিট।

সম্প্রতি স্টেডিয়ামটিতে লর্ডসের ঐতিহ্য লালন করে ঘণ্টা বাজানোর প্রথা চালু করা সহ অন্যান্য দিক বিবেচনায় বিশ্বকাপের ম্যাচ আয়োজনের দৌড়ে এগিয়ে রয়েছে।

১. নতুন স্টেডিয়াম আহমেদাবাদTOP5: ভারতের যে পাঁচটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে পারে ২০২৩ বিশ্বকাপের ফাইনাল 6গুজরাটের আহমেদাবাদে অবস্থিত দ্যা মতিরা স্টেডিয়ামটি ২০১৫ সালে সম্পূর্নভাবে ভেঙে ফেলার কারণে ২০১৬ আইপিএল সহ ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত টি-২০ বিশ্বকাপের কোনো ম্যাচ আয়োজন করা সম্ভব হয়নি। তবে সংস্কার কাজ চলতে থাকা স্টেডিয়ামটির সম্পর্কে গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে এই স্টেডিয়ামটির দর্শক ধারণ ক্ষমতা হবে ১,১০,০০০। যার মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডকে অতিক্রম করে যাবে এই স্টেডিয়াম। আগামী দুই বছরের মধ্যে সংস্কার কাজ শেষ হবার উপর নির্ভর করছে এই স্টেডিয়ামে ২০২৩ বিশ্বকাপ আসরের ম্যাচ আয়োজন করা।

Nazmus Sajid

Sports Fanatic!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *